Begin typing your search above and press return to search.

এনআরসিকে উচ্চ অগ্ৰাধিকার দিচ্ছে সরকারঃ পাটোয়ারি

এনআরসিকে উচ্চ অগ্ৰাধিকার দিচ্ছে সরকারঃ পাটোয়ারি

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  22 Feb 2019 12:17 PM GMT

গুয়াহাটিঃ রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জি(এনআরসি)সম্পূর্ণ করাই এখন সরকারের কাছে সবচেয়ে অগ্ৰাধিকারের বিষয়। বৃহস্পতিবার রাজ্য বিধানসভায় সরকারের তরফ থেকে একথা ঘোষণা করা হয়। পঞ্চায়েত এবং গ্ৰামোন্নয়ন সম্পর্কে এদিন এক কর্তন প্ৰস্তাবে অংশ নিয়ে সংসদ বিষয়ক মন্ত্ৰী চন্দ্ৰমোহন পাটোয়ারি বলেন,‘একমাত্ৰ এনআরসি-ই অসমিয়া মানুষের জাতি,মাটি ও ভিত্তি রক্ষা সুনিশ্চিত করবে’।

মন্ত্ৰী পাটোয়ারি আরও বলেন,‘ব্যাপক সংখ্যক সরকারি কর্মী এনআরসি-র কাজে জড়িত থাকায় এবছর রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচন আয়োজনে কিছুটা দেরি হয়েছে। প্ৰকৃতপক্ষে এনআরসি-র সম্পূর্ণ খসড়া প্ৰকাশিত হওয়ার পরই পঞ্চায়েত নির্বাচন সংক্ৰান্ত কাজকর্ম হাতে নেওয়া হয়েছিল। আমরা ইচ্ছাকৃত বা উদ্দেশ্যপূর্ণভাবে দেরি করিনি’।

পঞ্চায়েত বা স্থানীয় পর্ষদের নির্বাচন প্ৰসঙ্গে পাটোয়ারি বলেন,প্ৰফুল্ল কুমার মহন্তের অগপ আমলে পঞ্চায়েত নির্বাচনই হয়নি আইনশৃঙ্খলা জড়িত পরিস্থিতির জন্য। তবে তদানীন্তন মুখ্যমন্ত্ৰী রাজ্যে সন্ত্ৰাসবাদের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ পদক্ষেপ নিয়েছিলেন’। অন্যদিকে,‘কংগ্ৰেস শাসন কালের তীক্ষ্ণ সমালোচনা করে পাটোয়ারি বলেন,কংগ্ৰেস সরকার স্থানীয় পর্ষদের নির্বাচন করতে পেরেছিল। তবে এটা সম্ভবত হয়েছিল এর আগে পূর্বতন অগপ সরকার রাজ্যে সক্ৰিয় জঙ্গি কার্যকলাপ প্ৰতিরোধে বলিষ্ঠ পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য’। ইন্দিরা আবাস যোজনার(আইএওয়াই)ওপর আলোকপাত করে পাটোয়ারি বলেন,কংগ্ৰেসি জমানায় তিন লক্ষের বেশি ইন্দিরা আবাস যোজনার বাড়ি অসম্পূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। আরও বড় কথা হলো,কংগ্ৰেস আমলে কিছু সরকারি কর্মীর নিজেদের টিনের ঘর থাকা সত্ত্বেও তারা ওই বাড়িগুলি কব্জা করে রেখেছেন। তবে ‘দিশপুরে ক্ষমতা বদল হওয়ার পর আমরা এধরনের ২.৭৫ লক্ষ বাড়ির নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ করেছি’। বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট সরকারের সময়ে এমজিএনরেগা স্কিমে কেন্দ্ৰীয় বরাদ্দের পরিমাণও বৃদ্ধি পেয়েছে।

Next Story