সংবাদ শিরোনাম

‘ক্যাব’ রাজ্যসভায় পাস হবে নাঃ যশবন্ত সিনহা

যশবন্ত সিনহা

গুয়াহাটিঃ নাগরিকত্ব(সংশোধনী)বিল ২০১৯ নিয়ে কেন্দ্ৰীয় সরকার এগোবে বলে প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদি ইঙ্গিত দেওয়ার একদিন পরই প্ৰাক্তন পদস্থ বিজেপি নেতা যশবন্ত সিনহা রবিবার বলেন,বিতর্কিত বিলটি রাজ্যসভায় পাস করা উচিত হবে না।

অটল বিহারী বাজপেয়ীর নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারের অর্থমন্ত্ৰী ছিলেন সিনহা। তিনি বলেন,নরেন্দ্ৰ মোদি দ্বিতীয়বার কেন্দ্ৰের ক্ষমতায় ফিরবেন না। রবিবার অসম নাগরিক সমাজের আয়োজিত ‘স্টেট অফ দ্য ন্যাশন অ্যান্ড দ্য ওয়ে ফরোয়ার্ড’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে বক্তব্য পেশ করছিলেন সিনহা। বর্ষীয়ান নেতা সিনহা বলেন,বিলটি পাস হলে তা ঐতিহাসিক অসম চুক্তিকে লঙ্ঘন করবে। তাছাড়া এই বিল ভারতীয় সংবিধানের ধর্মনিরপেক্ষ চরিত্ৰেরও পরিপন্থী।

এই বিলকে আইনে পরিণত করার কোনও যুক্তিই তিনি দেখতে পাচ্ছেন না বলে উল্লেখ করেন। ‘এখানে আসার আগে আমি বিভিন্ন জনের সঙ্গে এই ইস্যু নিয়ে কথা বলেছি। আমি এটা বুঝতে পেরেছি বিজেপি ছাড়া অন্যান্য সব রাজনৈতিক দল দৃঢ়তার সঙ্গেই বিলের বিরোধিতা করছে। তবে শাসকদল এই বিল রাজ্যসভায় কতটুক পাস করাতে পারবে তা নিয়ে আমার সন্দেহ রয়েছে। সরকারের চলতি শেষ সংসদ অধিবেশনে বিলটি পাস হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই’-বলেন সিনহা। তিনি আরও বলেন, নাগরিকত্ব বিল উত্তরপুরের ভূমিপুত্ৰ মানুষের সামনে অস্তিত্বের সংকট সৃষ্টি করেছে। ‘কেউ যদি কারো অস্তিত্বের অবসান ঘটানোর চেষ্টা করে তাহলে মানুষ আপত্তি ও প্ৰতিবাদ তো করবে। বিলের জন্য উত্তর পূর্বাঞ্চলের মানুষ অস্তিত্ব সংকটে পড়েই এর বিরুদ্ধে প্ৰতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন। তিনি বলেন,‘উত্তর পূর্বাঞ্চলের এই বিল বিরোধী আন্দোলনের পিছনে সারা দেশ রয়েছে। বিলটি আইনগত ও সাংবিধানিক সব দিক থেকেই ত্ৰুটিপূর্ণ’-বলেন সিনহা।