রাজ্যের খবর

পুলওয়ামায় সন্ত্ৰাসী হামলায় শহিদ হলেন অসমের জওয়ান

পুলওয়ামায় সন্ত্ৰাসী হামলা

গুয়াহাটিঃ জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় বৃহস্পতিবার সন্ত্ৰাসী হামলায় কেন্দ্ৰীয় সংরক্ষিত পুলিশ বাহিনীর(সিআরপিএফ)অসমের জওয়ান মনেশ্বর বসুমতারি শহিদ হয়েছেন। পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জৈশ-ই-মহম্মদ-এর আত্মঘাতী ওই বোমা হামলায় কমপক্ষেও ৩৭ জন সিআরপিএফ জওয়ান শহিদ হন। বিস্ফোরণে আহত হন আরও পাঁচ জওয়ান।

মনেশ্বর বসুমতারি সিআরপিএফ-এর ৯৮তম ব্যাটেলিয়ানের জওয়ান ছিলেন। তিনি অসমের বাকসা জেলার তামুলপুরের বাসিন্দা। পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জৈশ-ই-মহম্মদ এই আক্ৰমণের দায় স্বীকার করেছে।

৪৮ বছর বয়সী বসুমতারি রেখে গেছেন স্ত্ৰী সানমতি বসুমতারি ও দুই সন্তান ডিডমশ্ৰী ও ধনঞ্জয় বসুমতারিকে। সেন্টিনেল ডিজিটেলের সঙ্গে কথা বলার সময় মনেশ্বর বসুমতারির ভাইপো বলেন,এটা খুবই শোকাবহ ঘটনা যেখানে ৩৭ জনের বেশি জওয়ানকে শহিদ হতে হলো। ‘আমি সন্ত্ৰাসী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিতে প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদিকে অনুরোধ জানাচ্ছি। ওই সব সন্ত্ৰাসী গোষ্ঠী কদিন পরপরই ভারতের ওপর আক্ৰমণ চালাচ্ছে। কেন্দ্ৰীয় সরকার এরআগে বলেছিল,এই সমস্যার সমাধান করা হবে। কিন্তু আজ অবধি এই সমস্যার কোনও সমাধান করা হয়নি। এই আক্ৰমণের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে আমি সরকারকে অনুরোধ জানাচ্ছি। এটা করা হলে ভবিষ্যতে আর কোনও জওয়ানকে এভাবে প্ৰাণ হারাতে হবে না’-উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি মনেশ্বর ব্ৰহ্ম-র ছেলে মেয়েকে চাকরি দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে আর্জি জানান। ছেলে,মেয়েগুলো চাকরি পেলে পরিবারটিকে বাঁচাতে পারবে।

বঙাইগাঁওয়ের আরও একজন জওয়ান পবিত্ৰ বর্মন কাশ্মীরে সিআরপিএফ-এর কনভয়ে ছিলেন। পুলওয়ামায় আত্মঘাতী বোমা আক্ৰমণে তিনিও শহিদ হয়েছেন বলে ঘটনার পরপরই সোসিয়েল মিডিয়ার গুজব ছড়ানো হয়েছিল। তবে বর্মন জানিয়েছেন তিনি নিরাপদেই রয়েছেন। শরীরে গুলি লাগায় তিনি সামান্য আহত হন বলে জানিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সোনোয়াল এই ঘটনার নিন্দা করে টুইট করে বলেন,পুলওয়ামায় সন্ত্ৰাসীদের এই আক্ৰমণ কাপুরুষোচিত। ভারতে এধরনের সন্ত্ৰাসীদের কোনও স্থান নেই। এধরনের সন্ত্ৰাসের বিরুদ্ধে সম্মিলিতভাবে লড়াই চালাতে হবে। শহিদদের প্ৰতি গভীর শোক প্ৰকাশ করেন তিনি।

শ্ৰীনগরের স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে,২৫৪৭ জন জওয়ানকে নিয়ে সিআরপিএফ-এর কনভয় যখন ট্ৰানজিট ক্যাম্প থেকে শ্ৰীনগর যাচ্ছিলো ওই সময়ই আত্মঘাতী জঙ্গিটি আইইডি বোঝাই গাড়ি চালিয়ে সিআরপিএফয়ের গাড়িতে ধাক্কা মেরে এই বিস্ফোরণ ঘটায়। বিস্ফোরণে সিআরপিএফ-এর গাড়ি ভেঙে দুমড়ে মুচড়ে যায়। বিস্ফোরণের পরপর জঙ্গিরা এলোপাথাড়ি গুলিও চালায়। পুলওয়ামা জেলার অবন্তিপুরার গোরিপোরা এলাকায় এই ভয়ঙ্কর ঘটনাটি ঘটে।