Begin typing your search above and press return to search.

প্ৰথম দফার নির্বাচনে ভোটারদের মন জয়ের মরিয়া চেষ্টা শাসক,বিরোধী নেতাদের

প্ৰথম দফার নির্বাচনে ভোটারদের মন জয়ের মরিয়া চেষ্টা শাসক,বিরোধী নেতাদের

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  9 April 2019 10:18 AM GMT

গুয়াহাটিঃ রাজ্যে প্ৰথম দফা লোকসভা নির্বাচনের প্ৰচার অভিযান সোমবার তুঙ্গে ওঠে। শাসক ও বিরোধী দলের হাই-প্ৰোফাইল নেতারা ভোটারদের মন জয় করতে শেষ চেষ্টা চালান। রাজ্যের পাঁচটি লোকসভা কেন্দ্ৰ যোরহাট,ডিব্ৰুগড়,তেজপুর,কলিয়াবর ও লখিমপুরে নির্বাচন হচ্ছে ১১ এপ্ৰিল। বৃহস্পতিবারের এই নির্বাচনের প্ৰচার অভিযান আজ(মঙ্গলবার)বিকেল পাঁচটায় শেষ হচ্ছে।

প্ৰথম দফার নির্বাচনে শাসক দল বিজেপি-অগপ জোটের মূল প্ৰতিদ্বন্দ্বী হচ্ছে বিরোধী কংগ্ৰেস। বৃহস্পতিবার যে পাঁচ কেন্দ্ৰে নির্বাচন হচ্ছে এআইইউডিএফ ওই কেন্দ্ৰগুলিতে কোনও প্ৰার্থী দেয়নি।

মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সোনোয়াল এবং নেডার আহ্বায়ক হিমন্তবিশ্ব শর্মা,প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈ এবং এপিসিসি-র সভাপতি রিপুন বরাসহ অন্যান্যরা রাজ্যের বিভিন্ন প্ৰান্তে নিজেদের দলীয় প্ৰার্থীর সমর্থনে জোর প্ৰচার চালিয়েছেন। সোনোয়াল যোরহাট কেন্দ্ৰের সোনাইয়ে দলীয় প্ৰার্থীর পক্ষে প্ৰচার চালান। নেডার আহ্বায়ক হিমন্তবিশ্ব শর্মা তেজপুর কেন্দ্ৰের গহপুর,যোরহাট কেন্দ্ৰের সোনারি এবং কলিয়াবর কেন্দ্ৰের অধীন গোলাঘাটে বিজেপি প্ৰার্থীর পক্ষে প্ৰচার চালিয়েছেন এই কদিন। শিবসাগরে ইভিনিং রোড শোতেও অংশ নেন শর্মা। বিহু গীত ও নাচের তালে শাসক ও বিরোধী দলের নেতারা প্ৰচারে অংশ নেন। উভয় প্ৰতিদ্বন্দ্বী দলের নেতাদের পরস্পরকে বাক্যবাণে আক্ৰমণ শানাতেও দেখা গেছে।

সোনোয়াল অভি্যোগ করেন তরুণ গগৈ এবং কংগ্ৰেসের অশুভ আঁতাত রয়েছে এআইইউডিএফ-এর সঙ্গে। ‘অথচ তরুণ গগৈ একসময় বলেছিলেন বদরুদ্দিন কে? কিন্তু এখন নিজের ছেলের জয় নিশ্চিত করতে গগৈ ওই এআইইউডিএফ-এর সঙ্গে সমঝোতা করেছেন। অসমের মানুষ গগৈ ও কংগ্ৰেসের হাবভাব বুঝে গেছেন’-বলেন সোনোয়াল।

অন্যদিকে তরুণবাবু শাসক বিজেপি ও সোনোয়ালের বিরুদ্ধে অভি্যোগ এনে বলেছেন,এরা বাংলাদেশিদের এনে অসমীয়া মানুষের ভবিষ্যৎ ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে। উন্নয়ন ইস্যু নিয়ে খোলাখুলি বিতর্কে বসতে সোনোয়ালকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন গগৈ। গগৈ নিজেকে লাচিত বরফুকনের সঙ্গে তুলনা করে সোনোয়ালকে বদন বরফুকনের তুল্য বলে আখ্যা দিয়েছেন।

Next Story