Begin typing your search above and press return to search.

রাজ্যের দুই জেলায় বিষ মদে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ১৫০

রাজ্যের দুই জেলায় বিষ মদে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ১৫০

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  25 Feb 2019 10:04 AM GMT

গুয়াহাটিঃ উজান অসমের গোলাঘাট ও যোরহাট জেলার চা বাগান এলাকায় বিষ মদে মৃত্যুর ঘটনা ক্ৰমেই বেড়ে চলেছে। রবিবার পর্যন্ত এই দুই জেলায় বিষ মদে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৫০ জনে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। গোলাঘাট জেলায় বিষ মদের বিষক্ৰিয়ায় ৯২ জন মারা গেছেন। যোরহাট জেলায় রবিবার সন্ধে পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫৮ জনের। এদের মধ্যে ৪৩ জন পুরুষ এবং ১৫ জন মহিলা। অনেকের অবস্থা এখনও সংকটজনক। গোলাঘাট জেলায় বিষাক্ত মদ খেয়ে এপর্যন্ত ৯২ জন প্ৰাণ হারিয়েছেন। আরও প্ৰায় ১০০ জনের মতো চিকিৎসাধীন রয়েছেন জেলার হাসপাতালে। তবে রবিবার বিকেল থেকে হাসপাতালে এজাতীয় নতুন রোগী ভর্তি হওয়ার সংখ্যা হ্ৰাস পেয়েছে। গোলাঘাটের জেলাশাসক ধীরেন হাজরিকা জানিয়েছেন একথা। তিনি বলেন,বেশকিছু অভি্যুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে পুলিশ এবং আবগারি বিভাগ ইতিমধ্যে মামলা নথিভুক্ত করেছে।

ওদিকে যোরহাটের জেলাশাসক রোশনি কোরাটি দ্য সেন্টিনেলকে বলেছেন,বিষ মদের ক্ৰিয়ায় জেলায় রবিবার পর্যন্ত ৫৮ জন মারা গেছেন।এই ঘটনায় রাজ্যজুড়ে ব্যাপক প্ৰতিক্ৰিয়ার সৃষ্টি হয়। তাই রাজ্য সরকার অবৈধ মদ সংগ্ৰহ ও বিক্ৰির বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্ৰহণ করেছে। আবগারি মন্ত্ৰী পরিমল শুক্লবৈদ্য ইতিমধ্যেই গোলাঘাট জেলা সফর করে চিকিৎসাধীন অসুস্থদের খোঁজ খবর নিয়েছেন। হাসপাতল এবং রাস্তায় মন্ত্ৰীকে ক্ষুব্ধ জনতার ক্ষোভের মুখে পড়তে হয়। মানুষের সৃষ্ট এধরনের দুর্যোগ মোকাবিলায় সরকার ব্যর্থ হয়েছে বলে শ্লোগান দেন অনেকে।

সরকার বিষ মদে মৃত্যু হওয়া ব্যক্তিদের পরিবারের জন্য দুলক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ এবং অসুস্থদের চিকিৎসা বাবদ ৫০ হাজার টাকা করে সাহা্য্য ঘোষণা করেছে।

মুখ্যসচিব অলোক কুমার এবং ডিজিপি কুলধর শইকিয়াকে রাজ্যে অবৈধ এবং বিষাক্ত মদের উৎপাদন যুদ্ধকালীন তৎপরতার সঙ্গে বন্ধ করতে এবং সেইসঙ্গে এই মর্মান্তিক ঘটনায় জড়িত অপরাধীদের বিরুদ্ধে অভি্যান শুরু করতে বলা হয়েছে। অতিরিক্ত ডিজিপি(আইনশৃঙ্খলা)মুকেশ আগরওয়াল ঘটনার পুলিশি তদন্তের কাজ পরিচালনা করছেন। আবগারি বিভাগের জনৈক কর্মকর্তা বলেছেন যে বেআইনিভাবে মদ বিক্ৰি,উৎপাদন এবং আবগারি আইন লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে ৯০টি মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে। ‘গত ২২ ফেব্ৰুয়ারি থেকে আমরা ৪৮৬০ লিটার অবৈধ মদ বাজেয়াপ্ত করে তা ধ্বংস করে ফেলেছি’-বলেন তিনি। গোলাঘাট জেলার শালমরা বাগানে বৃহস্পতিবার রাতে বিষাক্ত মদ খাওয়ার পর এই মর্মান্তিক ঘটনার সূত্ৰপাত ঘটে। এরপর যোরহাট জেলার তিতাবর মহকুমার দুটি প্ৰত্যন্ত গ্ৰামে বিষ মদ খেয়ে একের পর এক মৃত্যুর ঘটনা ঘটতে থাকে।

Next Story