Top
undefined
Begin typing your search above and press return to search.

বিসর্জনে শেষ হলো দুর্গা পুজো,রেখে গেলো বিজয়ার সুবাস

বিসর্জনে শেষ হলো দুর্গা পুজো,রেখে গেলো বিজয়ার সুবাস

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  8 Oct 2019 12:33 PM GMT

গুয়াহাটিঃ শারদ উৎসবের তিনদিন সপ্তমী,অষ্টমী ও নবমী ইতিমধ্যেই হৈ হৈ করে কেটে গেছে। আজ পুজোর দশমী তিথি। মা দুর্গার বিদায় লগ্ন। সকালে মহানগরীর বুকে বৃষ্টিও হয়ে গেছে একপশলা। আকাশ ভাঙা বৃষ্টিতে বিষাদের সুর। মা বিদায় নিচ্ছেন। বাড়ির সাবেকি আর থিম পুজোয় আজ কোনও পার্থক্য নেই। সবাই যেন গিয়ে মিশে গেছে ভক্তি স্ৰোতে। বিভিন্ন বাড়ির ও বারোয়ারি কমিটির মণ্ডপগুলোতে দশমী পুজো শেষে মাকে বিদায় জানানো হয়। ঘরের মেয়ে উমাকে তো বিদায় দিতেই হবে। তাই বিভিন্ন মণ্ডপে মা বরণের পাল্লা চলে। এয়ো স্ত্ৰীরা সিঁদুর ধুপ,দীপ,ফুল,ফল ও পান সুপুরি নিয়ে পরম্পরাগত প্ৰথায় মাকে বরণ করে নেন আশীর্বাদ। অশ্ৰুসিক্ত নয়নে মাকে বিদায় জানিয়ে মহিলারা পরিবার,দেশ ও দশের মঙ্গল কামনা করেন। এর পর সিঁদুরে রাঙিয়ে দেন একে অপরকে।

মহানগরীতে জেলা প্ৰশাসন বেলা ১১টার পর বিসর্জনের সময় বেঁধে দিয়েছে। সমস্ত সামাজিক নীতি নিয়ম সমাপ্ত হওয়ার পর বিভিন্ন পুজো কমিটি প্ৰতিমা নিয়ে মিছিল বের করে। দেবী প্ৰতিমার নিরঞ্জন চলে ব্ৰহ্মপুত্ৰ ও অন্যান্য নদীতে। গুয়াহাটিতে সাধারণত কাছারি ঘাট,পাণ্ডু ঘাট,চুনশালি ইত্যাদি ঘাটেই প্ৰতিমা নিরঞ্জন করা হয়ে থাকে। এবারও প্ৰশাসনের বেঁধে দেওয়া স্থানেই শৃঙ্খলাবদ্ধভাবে বিসর্জন পর্ব চলে।

রাতে মণ্ডপে মণ্ডপে আয়োজন করা হয় শান্তি জল ছিটানোর পর্ব। এরপরই প্ৰথা অনু্যায়ী চলবে বিজয়ার আলিঙ্গন,প্ৰণাম,বড়দের আশীর্বাদ গ্ৰহণ।

বিজয়ার শুভ লগ্নে সবারই মনে একটা কামনা,আসছে বছর আবার এসো মা। আবার একটা বছরের প্ৰতীক্ষা।

দেশের বিভিন্ন স্থানে রাবণ দহন বা দশেরা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে এদিন।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ গংগা নদীত মূৰ্তি বিসৰ্জন কৰিলে ভৰিব লাগিব ৫০,০০০ টকাৰ জৰিমণা ; কেন্দ্ৰই প্ৰয়োগ কৰিলে বাধা

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Durga Puja 2019: Vijaya Dashami celebrations at Belsiri River in Dhekiajuli, Sonitpur

Next Story