Top
undefined
Begin typing your search above and press return to search.

অসম চুক্তির দফা ৬-ঘিরে বিতর্ক অব্যাহত

অসম চুক্তির দফা ৬-ঘিরে বিতর্ক অব্যাহত

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  13 Jan 2019 8:01 AM GMT

অসম চুক্তির ৬ নম্বর ধারা প্রণয়নের জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক দ্বারা গঠিত ৯ সদস্যের প্যানেলে নেতৃত্ব দিতে অস্বীকার করলেন প্রাক্তন আমলা সাংসদ বেজবড়ুয়া।সংবাদ মাধ্যমের তরফে প্রশ্ন করা হলে কমিটির কার্যকারীতা নিয়েই প্রশ্ন তোলেন প্রাক্তন সাংসদ। “স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে আমি আমার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছি। বহু সদস্য কমিটি ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে ওই কমিটিতে নেতৃত্ব দেওয়াকে আমি সমর্থন করতে পারছি না”।

১৯৮৫-এর অসম অ্যাকর্ডের ৬ নম্বর ধারা প্রণয়নের জন্য চলতি মাসের শুরুতেই কেন্দ্রিয় মন্ত্রিসভায় এক উচ্চস্তরের কমিটি তৈরির প্রস্তাব রাখা হয়েছিল। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং তখন বলেন, ‘৬ নম্বর ধারা পুরোপুরি প্রণয়ন করা হয়নি”। কেন্দ্রে যখন নাগরিক পঞ্জি আপডেট করার কাজ চলছিল, তখন থেকেই উচ্চস্তরের কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্র।লোকসভায় পাশ হওয়া নাগরিকত্ব (সংশোধন) বিলের বিরোধিতা করে কমিটি থেকে ইতিমধ্যে তিনজন সদস্য বেরিয়ে গিয়েছেন। ছাত্র সংগঠন আসু-র পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল, তাদের কোনও প্রতিনিধি পাঠানো হবে না কমিটিতে।

অসম অ্যাকর্ডের ৬ নম্বর ধারা অনুযায়ী অসমের মানুষের সাংস্কৃতিক, সামাজিক, ভাষাগত পরিচয় এবং ঐতিহ্য সুনিশ্চিত করার জন্য সাংবিধানিক, আইনগত এবং প্রশাসনিক নিরাপত্তা দিতে হবে।

বিজেপি সরকারের নাগরিকত্ব (সংশোধন) বিল ২০১৬ অনুযায়ী, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের হিন্দু, পার্সি, শিখ, জৈন এবং খ্রিষ্টান ধর্মালম্বী ‘শরণার্থী’দের নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এই বিলের বিরোধিতা করে দিন কয়েক আগেই আসামের বিজেপি সরকার থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করেছে অসম গণ পরিষদ। কারণ অগপ মনে করছে, এই বিল আইনে রূপান্তরিত হলে বাংলাদেশি হিন্দুতে ভরে যাবে অসম । আর এ জন্যই তারা এই বিলের বিরোধিতা করছে। উল্লেখ্য, গত বছর অক্টোবর মাসে অসম গণ পরিষদ এই নাগরিকত্ব বিলের বিরুদ্ধে মিছিল করেছিল সে রাজ্যে।

Next Story