Begin typing your search above and press return to search.

আগামিকাল ৪ কেন্দ্ৰে তৃতীয় দফায় ভোট,ইভিএম-এ বন্দি হবে ৫৪ প্ৰার্থীর ভাগ্য

আগামিকাল ৪ কেন্দ্ৰে তৃতীয় দফায় ভোট,ইভিএম-এ বন্দি হবে ৫৪ প্ৰার্থীর ভাগ্য

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  22 April 2019 8:10 AM GMT

গুয়াহাটিঃ আগামিকাল রাজ্যের মর্যাদাসম্পন্ন চারটি লোকসভা কেন্দ্ৰে তৃতীয় তথা শেষ দফার নির্বাচন। এই চার লোকসভা কেন্দ্ৰ হলো গুয়াহাটি,বরপেটা,কোকরাঝাড় ও ধুবড়ি। তৃতীয় দফা নির্বাচনে প্ৰচারের পালা রবিবার বিকেল পাঁচটায় শেষ হয়। মঙ্গলবার ৯,৫৭৭টি ইভিএম এবং ভিভিপিএটি মেশিনে মোট ৫৪ জন প্ৰার্থীর ভাগ্য সিল হবে। ২৩ এপ্ৰিল চার কেন্দ্ৰে ভোট গ্ৰহণ শুরু হবে সকাল ৭টায়। শেষ হবে বিকেল পাঁচটায়।

বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্ৰার্থী সহ সমর্থকরা ভোটারদের মন জয় করতে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বিভিন্ন সমাবেশ ও রোড শো করেন সংশ্লিষ্ট কেন্দ্ৰগুলিতে।

তৃতীয় দফার নির্বাচনে ধুবড়ি কেন্দ্ৰে ১৫,বরপেটায় ১৩,কোকরাঝাড়(সংরক্ষিত)আসনে ৯ এবং গুয়াহাটিতে ১৭ জন প্ৰার্থী লড়াইয়ের ময়দানে রয়েছেন। উল্লেখ করা যেতে পারে যে গুয়াহাটিতে দুটো ব্যালটিং ইউনিট ব্যবহার করা হবে। এর কারণ হলো সিঙ্গল ব্যালটিং ইউনিটে মাত্ৰ ১৬ জন প্ৰার্থীর নাম রাখার ব্যবস্থা রয়েছে।

চার কেন্দ্ৰের ৯,৫৭৭টি ভোট কেন্দ্ৰে সর্বমোট ৭৪,৭৭,০৬২ ভোটার ভোটদানের সু্যোগ পাচ্ছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৩৮,১৫,৩৩৫ জন এবং মহিলা ৩৬,৬১,৫৭০ জন। তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার ১৫৭ জন। প্ৰত্যন্ত অঞ্চলে মোট ভোট কেন্দ্ৰ রয়েছে ৫২৪টি। এরমধ্যে সর্বাধিক ৩১৪টি পড়েছে ধুবড়ি জেলায়। বরপেটার ১৪০,গুয়াহাটিতে ৭০টি প্ৰত্যন্ত ভোট কেন্দ্ৰ রয়েছে। ভোটকর্মীরা রবিবারই এই সব প্ৰত্যন্ত ভোটকেন্দ্ৰের উদ্দেশে রওনা হয়ে গেছেন। তবে কোকরাঝাড়ের প্ৰত্যন্ত অঞ্চলে কোনও ভোট কেন্দ্ৰ নেই। ১৪৭টি ভোট কেন্দ্ৰ পরিচালনা করবেন শুধু মহিলারা। এরমধ্যে ৭৯টি গুয়াহাটিতে,২৯টি ধুবড়ি এবং ২৮টি বরপেটা ও ১১টি কোকরাঝাড়(সংরক্ষিত)কেন্দ্ৰ রয়েছে। গুয়াহাটির ১৭টি,ধুবড়ি ১৫,বরপেটার ১৩ এবং কোকরাঝাড়ে ৯টিকে মডেল পোলিং স্টেশন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

নির্বাচন বিভাগ,অসম-এর মতে,রাজ্যে ৩৮,৩০৮ জন নির্বাচন কর্মী ভোট গ্ৰহণের কাজে তদারক করবেন। তৃতীয় দফা নির্বাচনের জন্য ২০০ কোম্পানি নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে। রাজ্যে শেষ দফার নির্বাচনে ৪৩৬ মাইক্ৰো অবজারভার,৫ জন জেনারেল অবজারভার,৪ জন এক্সপেনডিচার অবজারভার এবং ৩ জন পুলিশ পর্যবেক্ষক নিয়োগ করা হচ্ছে। এছাড়াও থাকছে ১২৫ ফ্লাইং স্কোয়াড টিম,স্ট্ৰেটিক সার্ভেইল্যান্স টিম(এসএসটিএস),৮৩ ভিডিও সার্ভেইল্যান্স টিম(ভিএসটিএস)। এরা নির্বাচনী কাজকর্ম তদারক করবেন।

মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সোনোয়াল শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত বেশকটি রাজনৈতিক সমাবেশে অংশ নিয়েছেন। গুয়াহাটিতে তিনি সাংবাদিকদের বলেন,‘বিজেপি-অগপ-বিপিএফ জোট নির্বাচনে ভালই ফল করবে। গুয়াহাটি আসনে বিজেপি জিতবে। নরেন্দ্ৰ মোদি আবার দিল্লিতে সরকার গড়বেন’।

অর্থমন্ত্ৰী হিমন্তবিশ্ব শর্মা গোসাইগাঁওয়ে বিপিএফ প্ৰার্থীর প্ৰমীলা রানি ব্ৰহ্মের পক্ষে সমাবেশ করেছেন। তিন বলেন বিজেপি শরিক জোট ১০টির মধ্যে ৯টিতেই জয়ী হবে। ‘অন্যান্য আসনেও আমরা জয় পাবো,তবে ব্যবধান কিছুটা কম হতে পারে। মোদির শাসনে সবার জন্য নিরাপত্তা বহাল থাকবে। উন্নয়নের ধারা হবে আরও ক্ষিপ্ৰতর’।

এদিকে প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈও গুয়াহাটির কংগ্ৰেস প্ৰার্থী ববিতা শর্মার সমর্থনে শহরে রোডশো করেন। ‘জনরায় কংগ্ৰেসের পক্ষেই যাবে বলে মনে করেন তিনি’।

Next Story
সংবাদ শিরোনাম