Begin typing your search above and press return to search.

এনআরসি নিয়ে উদ্ভট মন্তব্যের জন্য প.বঙ্গের মুখ্যমন্ত্ৰী মমতার সমালোচনায় মুখর অসমের রাজনৈতিক দলগুলি

এনআরসি নিয়ে উদ্ভট মন্তব্যের জন্য প.বঙ্গের মুখ্যমন্ত্ৰী মমতার সমালোচনায় মুখর অসমের রাজনৈতিক দলগুলি

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  1 Aug 2018 2:03 PM GMT

গুয়াহাটিঃ অসমে জাতীয় নাগরিক পঞ্জির(এনআরসি)সম্পূর্ণ খসড়া প্ৰকাশের একদিন পরই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্ৰী মমতা ব্যানার্জির মন্তব্যের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছে রাজ্যের বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন। মমতা ব্যানার্জি ইস্যুটিতে রাজনৈতিক রং চড়ানোর চেষ্টা করছেন। তাঁর মন্তব্য একেবারেই অযৌক্তিক। এনআরসি বাঙালি বা মুসলিমদের বিরুদ্ধে নয়-বলেছে রাজনৈতিক দলগুলি।

রাজ্যের প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী প্ৰফুল্ল কুমার মহন্ত এনআরসি নিয়ে উদ্ভট মন্তব্য করায় ব্যানার্জির সমালোচনা করে বলেন, সোমবার প্ৰকাশিত নবায়িত এনআরসির ঐতিহাসিক দলিলটি কোনও বাঙালি বা মুসলিমদের বিরুদ্ধে নয়। ‘মমতা রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে ইস্যুটি নিয়ে জলঘোলা করার চেষ্টা করছেন যা মোটেও যুক্তিসিদ্ধ নয়’-বলেন মহন্ত। রাজ্যের প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰ্ৰী তরুণ গগৈ এনআরসি নিয়ে মমতার বিবৃতির নিন্দা করেন। অসম নিয়ে অযথা মাথা না ঘামিয়ে মমতাকে পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতিতে মনোসংযোগ করার পরামর্শ দেন তিনি। এনআরসির নামে কোনও প্ৰকৃত ভারতীয় নাগরিককে হয়রান করা হয়নি। হেনস্তা থেকে প্ৰকৃত ভারতীয়দের সুরক্ষায় আমরা তো আছি-বলেন গগৈ।

স্বাস্থ্যমন্ত্ৰী হিমন্ত বিশ্ব শর্মাও মমতার উদ্ভট বিবৃতির জন্য তাঁর কঠোর সমালোচনা করেছেন। অসমের বিভিন্ন জাতি,ধর্ম,ভাষা নির্বিশেষে কেউই এই প্ৰক্ৰিয়ার বিরোধিতা করেননি। ৪০ লক্ষ লোকের নাম বাদ পড়া সত্ত্বেও তাদের কোনও উচ্চবাচ্য করতে দেখা যায়নি। এনআরসি নবায়নে পশ্চিমবঙ্গ কোনও সহযোগিতা করেনি অসমকে। রাজ্যের এনআরসি নিয়ে ব্যানার্জির কোনও মন্তব্য দেওয়ার অধিকার নেই-বলেন শর্মা।

Next Story