সংবাদ শিরোনাম

এনইডব্লিউএমএ-এর সদর দপ্তর গুয়াহাটিতে স্থাপন করতে চায় দিশপুর

দিশপুর

গুয়াহাটিঃ কেন্দ্ৰীয় সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কমিটি উত্তর পূর্বাঞ্চলের প্ৰস্তাবিত জল ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের(এনইডব্লিউএমএ)সদর দপ্তর ইটানগরে স্থাপনের যে প্ৰস্তাব রেখেছে তাতে আপত্তি জানিয়েছে অসম সরকার। দিশপুর এনইডব্লিউএমএ-র সদর দপ্তর ইটানগরের পরিবর্তে গুয়াহাটিতে স্থাপন করা উচিত হবে বলে মত পোষণ করেছে। ব্ৰহ্মপুত্ৰ এবং বরাকের নদী ব্যবস্থার মোটা ভাগই অসমের এক্তিয়ারে যা ভারতের প্ৰাকৃতিক জল ব্যবস্থার এক তৃতীয়াংশ এবং এই অঞ্চল অত্যন্ত বন্যা প্ৰবণ ও নদীগুলির ডাউনস্ট্ৰিমে থাকায় বর্ষার সময় বন্যার ঝক্কিও অসমকেই বইতে হয়।

তাই এসব দিক বিবেচনা করে এনইডব্লিউএমএ-র সদর কার্যালয় ইটানগরের বদলে গুয়াহাটিতে স্থাপন করাই যুক্তিযুক্ত বলে মনে করে দিশপুর। উত্তর পূর্বাঞ্চলে জল সম্পদের যথাযথ ব্যবস্থাপনায় উচ্চ পর্যায়ের ওই কেন্দ্ৰীয় কমিটি একটি খসড়া রিপোর্টও প্ৰস্তুত করেছে। নীতি আয়োগের ভাইস চেয়ারম্যানের পৌরোহিত্যে ২০১৭ সালের ৪ অক্টোবর উচ্চ পর্যায়ের ওই কেন্দ্ৰীয় কমিটি গঠন করা হয়। এরপর উত্তরপূর্বাঞ্চলের জল সম্পদের ওপর বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষার পর কেন্দ্ৰীয় কমিটি খসড়া রিপোর্টটি প্ৰস্তুত করে এবং উত্তর পুবের সব রাজ্যকে খসড়ার কপি পাঠানো হয় সবার মতামত জানার জন্য।