Begin typing your search above and press return to search.

এলপিজি সংকট,ট্ৰাক ধর্মঘট মিটিয়ে ফেলতে আইওসিএলকে বলল দিশপুর

এলপিজি সংকট,ট্ৰাক ধর্মঘট মিটিয়ে ফেলতে আইওসিএলকে বলল দিশপুর

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  13 Sep 2018 12:39 PM GMT

গুয়াহাটিঃ এলপিজি পরিবহণ সংস্থার পাঁচদিন ধরে চলা ধর্মঘটে সারা উত্তর পূর্বাঞ্চলে এলপিজি সরবরাহ প্ৰক্ৰিয়া সম্পূর্ণ স্তদ্ধ হয়ে পড়েছে। ফলে রাজ্য জুড়ে চলছে গ্যাস সংকট। খাদ্য ও অসামরিক সরবরাহ দপ্তরের মন্ত্ৰী ফণীভূষণ চৌধুরী রাজ্যের প্ৰধান সচিব মনিন্দর সিংকে বুধবার নির্দেশ দিয়েছেন আইওসিএল-এর সঙ্গে কথা বলে ইস্যুটির চটজলদি সমাধানের পথ খুঁজতে। বর্তমানে ২৫০০টি ট্ৰাক এলপিজি পরিবহণের কাজে লিপ্ত ছিল। কিন্তু ধর্মঘটের জন্য তারা হাত গুটিয়ে নিয়েছে। ট্ৰাক চালকরা আইওসিএল-এর নতুন নিয়ম পর্যালোচনা করার আর্জি জানিয়েছে। ওই নীতির ফলে ট্ৰাক চালকদের পরিবহণ ব্যয় বেড়ে গেছে। ইস্যুটি নিয়ে কয়েক দফা আলোচনার পরও অচলাবস্থা কাটেনি।

দিশপুর আইওসিএল-এর ছটি বটলিং প্ল্যান্টের প্ৰবেশ ও বহির্গমন পথে ট্ৰাক চালকদের জন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্ৰহণ করতে জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দিয়েছে। বটলিং প্ল্যান্টগুলি রয়েছে কামরূপে দুটি,তিনসুকিয়া,কাছাড়,চিরাং ও ডিব্ৰুগড়ে একটি করে। এলপিজি সিলিন্ডার যাতে বিনা বাধায় গ্ৰাহকদের পৌঁছে দেওয়া যায় তা সুনিশ্চিত করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় যথোচিত পদক্ষেপ নিতেও দিশপুর জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের অনুরোধ করেছে। খাদ্য ও অসামরিক সরবরাহ দপ্তরের প্ৰধান সচিব মনিন্দর সিং সেন্টিনেলকে বলেন,ইস্যুটি নিয়ে দিশপুর খুবই উদ্বিগ্ন। আমরা আইওসিএল কর্তৃপক্ষকে শীঘ্ৰই ইস্যুটি সমাধান করার জন্য অনুরোধ করেছি।

Next Story
সংবাদ শিরোনাম