Begin typing your search above and press return to search.

এসবিআই আধিকারিক জুনু শর্মার হত্যাকাণ্ডের অভিযোগে ধৃত ৩ সুপারি কিলার

এসবিআই আধিকারিক জুনু শর্মার হত্যাকাণ্ডের অভিযোগে ধৃত ৩ সুপারি কিলার

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  23 Nov 2018 1:29 PM GMT

গুয়াহাটিঃ ভারতীয় স্টেত ব্যাংকের দদরা শাখার সার্ভিস ম্যানেজার জুনু শর্মার হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত তিন সুপারি(কনট্যাক্ট)কিলারকে কামরূপ পুলিশ শুক্ৰবার হাজো থেকে গ্ৰেপ্তার করেছে। কামরূপ জেলার আগিয়াথুরিতে ব্যস্ত সড়কের মধ্যে ব্যাংক আধিকারিক জুনু শর্মাকে হত্যা করা হয়েছিল।

তিনজনকে অরূপ দাস(মূল অভিযুক্ত)এবং অজন্ত কলিতা ও পূজা দাস(সহযোগী)নামে শনাক্ত করা হয়েছে। কামরূপের সহকারী পুলিশ সুপার সঞ্জয় শইকিয়া দ্য সেন্টিনেল ডিজিটালকে বলেছেন ‘হত্যাকাণ্ডের তদন্তের ভিত্তিতে আমরা এপর্যন্ত এই তিনজনকে আটক করেছি। বৃহস্পতিবার রাতেই আমরা একজনকে আটক করি এবং বাকি অভিযুক্ত হত্যাকারীকে আটক করা হয় আজ সকালে’।

পুলিশ সূত্ৰটি এটাও নিশ্চিত করেছে যে ব্যাংকের একজন এজেণ্ট সুপারি বা কনট্যাক্ট কিলারদের হায়ার করেছিল যার নাম সাদ্দাম আলি বলে রিপোর্ট পাওয়া গিয়েছে। সাদ্দাম কোটি টাকা ব্যাংক কেলেংকারির সঙ্গে জড়িত বলে সন্দেহ করা হচ্ছে এবং ব্যাংক আধিকারিক জুনু শর্মার হত্যাকাণ্ডে সে উল্লিখিত সুপারি কিলারদের হায়ার করেছিল।

খবরে প্ৰকাশ,সার্ভিস ম্যানেজার জুনু শর্মাই কোটি টাকা ব্যাংক কেলেংকারির তদন্ত করছিলেন। পূর্বের রিপোর্ট অনু্যায়ী ব্যাংককর্মী এবং মানি ল্যান্ডি মাফিয়ারাই জুনু শর্মার হত্যাকাণ্ডে জড়িত বলে অভিযোগ করা হয়েছিল।

অসমের ডিজিপি কুলধর শইকিয়া ইতিপূর্ব জুনু শর্মার হত্যাকাণ্ড পূর্বপরিকল্পিত বলে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। উল্লেখ্য,গত ৯ আক্টোবর সন্ধ্যায় গুয়াহাটির কাছে আগিয়াথুরি এলাকায় মোটর সাইকেলে আসা দুই আততায়ী জুনু শর্মাকে গুলি করে হত্যা করেছিল। পুলিশ ইতিপূর্বে দাবি করেছিল বাইকে আসা আততায়ীদের একজন জুনু শর্মা গাড়ির গ্লাস ভেঙে কাছে থেকে তাঁর গলায় গুলি চালিয়েছিল। গুলিতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছিল জুনু শর্মার।

অভিযুক্ত সুপারি কিলার অরূপ দাসের কাছ থেকে পুলিশ একটি ৯এমএম পিস্তল এবং একটি মোটর সাইকেল বাজেয়াপ্ত করেছে।

Next Story