Begin typing your search above and press return to search.

কংই হিন্দু শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে চেয়েছিলঃ রমেন ডেকা

কংই হিন্দু শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে চেয়েছিলঃ রমেন ডেকা

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  4 April 2019 11:17 AM GMT

গুয়াহাটিঃ নাগরিকত্ব(সংশোধনী)বিল(ক্যাব)নিয়ে বিজেপিকে তাদের অবস্থান পাল্টানোর বিষয়টি নজরে এসেছে। বিজেপির রাষ্ট্ৰীয় সভাপতি অমিত শাহ তাঁর সাম্প্ৰতিক অসম সফরকালে স্পষ্ট করে বলেছিলেন,গেরুয়া দল ক্ষমতায় এলে তারা ফের ক্যাব উত্থাপন করবে। ওদিকে কেন্দ্ৰীয় স্বরাষ্ট্ৰ প্ৰতিমন্ত্ৰী কিরেন রিজিজু অরুণাচল প্ৰদেশে বলেছেন,তাঁর দল ফের ক্যাব আনার পক্ষপাতী যদিও তবে এর আওতা থেকে উত্তর পূর্বাঞ্চলকে বাদ দেওয়া হবে। তাই শাহ ও রিজিজুর বক্তব্য যে পরস্পরবিরোধী সেটা খুই স্পষ্ট।

এখানে বিজেপি সাংসদ তথা দলের জাতীয় সম্পাদক রমেন ডেকা বলেছেন,ক্যাব নিয়ে শাহ সম্প্ৰতি যে কথা বলেছেন,সেটাই দলের অবস্থান। তবে রিজিজুর বিবৃতি সম্পর্কে কোনও মন্তব্য করেননি ডেকা।

গুয়াহাটির হেঙেরাবাড়িতে অটল বিহারী বাজপেয়ী ভবনে বুধবার ডেকা সাংবাদিকদের বলেন,‘কংগ্ৰেস উদ্বাস্তু হিন্দু বাঙালিদের নাগরিকত্ব দেওয়ার বিষয়টি সমর্থন করেছিল। কিন্তু এখন শুধু ভোটে ফায়দা তুলতে ওই দল নাগরিকত্ব বিলের বিরোধিতা করছে। ২০১২ সালের ২০ এপ্ৰিল দিশপুরের তদানীন্তন তরুণ গগৈ সরকার হিন্দু শরণার্থীদের নাগরিকত্ব মঞ্জুর করার জন্য ওই সময়ের প্ৰধানমন্ত্ৰী মনমোহন সিঙের কাছে একটি স্মারকপত্ৰ পাঠিয়েছিল। এরপরও ২০১৪-র ১৬ জুলাই হিন্দু শরণার্থীদের নাগরিকত্ব মঞ্জুর করার জন্য তদানীন্তন এনডিএ সরকারের স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰীর কাছে আরও একটি স্মারকপত্ৰ পাঠিয়েছিল তরুণ গগৈ সরকার। এরপর ২০১৫-র ১ জুন গগৈ সরকার আন্তর্জাতিক সীমান্ত পার থেকে আসা সব বাঙালি হিন্দু শরণার্থীদের ভারতীয় নাগরিকত্ব মঞ্জুর করার দাবি উত্থাপন করেছিল। এটাই সব নয়। ২০১৫-র মে মাসে অসম প্ৰদেশ কংগ্ৰেস কমিটি(এপিসিসি)অনুরূপ একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। কিন্তু এখন রাজনৈতিক ফায়দা তুলতে এই ইস্যুটি নিয়ে পিছু হাঁটছে’।

ডেকা বলেন,‘ক্যাব নিয়ে কংগ্ৰেস একটা দোনামোনা অবস্থান নিয়েছে। তারা যৌথ সংসদীয় কমিটিতে(জেপিসি)এক ভাষায় কথা বলেছে এবং কমিটির বাইরে গিয়ে বলেছে অন্য ভাষায়। এটাই হচ্ছে কংগ্ৰেস যারা দেশ বিভাজন করেছে। হিন্দু শরণার্থীদের এখানে রাখার ক্ষেত্ৰে এটাই তাদের দায়িত্ব’। স্থানীয় মানুষের রাজনৈতিক অধিকার যদি সুরক্ষিত হয় তাহলে রাজ্যের মানুষের বিজেপিকে ভোট দিয়ে ক্ষমতায় আনা উচিত’-বলেন ডেকা।

ডেকা আরও বলেন,গত ৫৫ বছরে কংগ্ৰেস এমন কোনও প্ৰকল্পের নাম বলতে পারবে না,যা প্ৰত্যেক নাগরিকের মনকে ছুঁয়েছে। কিন্তু অটল বিহারী বাজপেয়ীর পিএমজিএসওয়াই,নরেন্দ্ৰ মোদির উজালা,অনাময়,পেনশন,আয়ুষ্মান ভারত ইত্যাদি প্ৰতিজন ভারতীয়কে স্পর্শ করেছে’-বলেন ডেকা।

Next Story