কোনও একটি সংস্থার বিরুদ্ধে আমার এই অবস্থান নয়ঃ মমতা

কোনও একটি সংস্থার বিরুদ্ধে আমার এই অবস্থান নয়ঃ মমতা

কলকাতাঃ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্ৰী মমতা ব্যানার্জি সোমবার তাঁর ‘ধরনা’ কর্মসূচিকে অরাজনৈতিক এবং এটা কোনও ব্যক্তিগত এজেন্সির বিরুদ্ধে নয় বলে অভিহিত করেন। মমতা বলেন,তাঁর এই ধরনা মোদি সরকারের ‘অরাজক প্ৰস্তাব’ ও ‘গণতন্ত্ৰকে’ ধ্বংস করার প্ৰয়াসের বিরুদ্ধে।

‘আমাদের এই ধরনা কোনও ব্যক্তিগত সংস্থার বিরুদ্ধে নয়। এই প্ৰতিবাদ মোদি সরকারের স্বৈরাচারী ভূমিকার বিরুদ্ধে। দেশকে টুকরো করতে এবং বিদ্বেষ ও ভয় দেখিয়ে মানুষের মধ্যে ত্ৰাস সৃষ্টির যে প্ৰয়াস সরকার চালাচ্ছে তার বিরুদ্ধেই আমাদের এই ধরনা’-বলেন মমতা। সারদা চিটফান্ড কেলেংকারি সম্পর্কে কেন্দ্ৰীয় তদন্ত ব্যুরোর(সিবিআই)আধিকারিকদের একটি দল কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে জেরা করতে রবিবার রাতে তাঁর লাউডন স্টিটের বাড়িতে চড়াও হয়। কিন্তু ওখানে আগেভাগেই উপস্থিত থাকা কলকাতা পুলিশের একটি দল তাদের রাজীব কুমারের বাড়িতে ঢুকতে দেওয়া তো দূরের কথা,উল্টে গাড়িতে তুলে শেক্সপিয়ের সরণি থানায় নিয়ে যায়। এর আগে কলকাতা পুলিশ ও সিবিআই কর্তাদের ধস্তাধস্তিতে এক ধুন্ধুমার কাণ্ডও ঘটে সে রাতে। ওই রাতেই মমতা ছুটে যান পুলিশ কমিশনারের বাড়িতে। এরপরই মেট্ৰো চ্যানেলে ধরনায় বসেন মমতা।

মুখ্যমন্ত্ৰী সোমবার বলেন,মানুষের সাংবাধানিক,গণতান্ত্ৰিক এবং সামাজিক অধিকার রক্ষায় ‘সেভ ইন্ডিয়া’-র ব্যানারে আমরা এই বিক্ষোভ দেখাচ্ছি। ‘আমরা চাই মানুষের বলার অধিকার রক্ষা করা হোক এবং বিভিন্ন রাজ্যের কর্মকর্তা ও কেন্দ্ৰীয় সংস্থাগুলি নিরপেক্ষভাবে কাজ করুক’-বলেন তিনি।

ব্যানার্জি বলেন,তাঁর এই বিক্ষোভ ৮ ফেব্ৰুয়ারি পর্যন্ত চলতে পারে। রবিবার রাত থেকে মমতা এই ধরনায় বসেছেন। তিনি মোদি ও বিজেপি সভাপতি অমিত শাহর বিরুদ্ধে অভি্যোগ এনে বলেন,তার রাজ্যে অভ্যুত্থান ঘটাতেই এমন প্ৰয়াস চালানো হয়েছে। এই ঘটনাকে সাংবিধানিক সংকট বলে অভিহিত করেন মমতা। ‘এখানে কোনও রাজনৈতিক ইস্যু নেই। আইন তার পথেই চলবে। কিন্তু কেউ যদি বেআইনিভাবে দেশের গণতান্ত্ৰিক কাঠামো ধ্বংস করার চেষ্টা করে তাহলে পুরো গণতন্ত্ৰ অপ্ৰাসঙ্গিক হয়ে পড়বে-বলেন তৃণমূল সুপ্ৰিমো।

logo
Sentinel Assam- Bengali
bengali.sentinelassam.com