Begin typing your search above and press return to search.

ক্যাব নিয়ে উত্তর পূর্বাঞ্চলের মানুষের সঙ্গে কথা বলবে বিজেপিঃ রিজিজু

ক্যাব নিয়ে উত্তর পূর্বাঞ্চলের মানুষের সঙ্গে কথা বলবে বিজেপিঃ রিজিজু

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  10 April 2019 12:26 PM GMT

ইটানগরঃ কেন্দ্ৰে ফের ক্ষমতায় এলে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে আইনি রূপ দেওয়া হবে বলে বিজেপি নির্বাচনি ইস্তাহারে যে প্ৰতিশ্ৰুতি দিয়েছে,সে সম্পর্কে কেন্দ্ৰীয় স্বরাষ্ট্ৰ প্ৰতিমন্ত্ৰী কিরেন রিজিজু মঙ্গলবার আশ্বস্ত করে বলেন,বিলটি আনার আগে উত্তর পূর্বাঞ্চলের মানুষের সঙ্গে পরামর্শ করা হবে।

বিলটি উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলির স্থানীয় ভূমিপুত্ৰদের অস্তিত্ব ধ্বংসের মুখে ঠেলে দেওয়ার আশঙ্কায় সাম্প্ৰতিককালে অঞ্চলগুলির বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন বিলের বিরুদ্ধে জোরদার আন্দোলন করেছেন।

‘আমি এটা পরিষ্কার করে দিতে চাই যে দেশের অন্যান্য রাজ্য যেখানে বিলটিকে আইনি রূপ দিতে আগ্ৰহী,সেইহেতু বিজেপি বিলটি আনতে প্ৰতিশ্ৰুতিবদ্ধ। তবে উত্তর পূর্বাঞ্চলের ক্ষেত্ৰে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে দল অঞ্চলটির মানুষের সঙ্গে শলা পরামর্শ করবে,যা ইস্তাহারে পরিষ্কার উল্লেখ করা হয়েছে’। রিজিজু এখানে সাংবাদিকদের একথা বলেন।

বিলটি যদি দেশের অন্যান্য অঞ্চলের জন্য রূপায়ণ করা হয় তাহলেও উত্তর পূর্বাঞ্চলের মানুষের অধিকার রক্ষায় বিজেপি যে প্ৰতশ্ৰুতিবদ্ধ তা নিয়ে কারো মনে কোনও সন্দেহ থাকা উচিত নয়। উত্তর পূর্বাঞ্চলের ক্ষেত্ৰে বিলে বিশেষ ব্যবস্থা থাকবে-পর্যায়ক্ৰমে বলেন রিজিজু।

স্বরাষ্ট্ৰ প্ৰতিমন্ত্ৰী রিজিজু অরুণাচল পশ্চিম সংসদীয় আসন থেকে নির্বাচনে প্ৰতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তিনি বলেন,পূর্বের কোনও সরকারই উত্তর পূর্বের প্ৰতি এতোটা গুরুত্ব দেয়নি,যতটা গুরুত্ব দিয়েছে এনডিএ সরকার। রিজিজু বলেন,অরুণাচল প্ৰদেশ,নাগাল্যান্ড এবং মিজোরাম ইতিমধ্যেই সংরক্ষিত রাজ্য হয়ে উঠেছে। এমনকি ভারতীয় কেউ এই রাজ্যগুলিতে ঘাঁটি গেড়ে বসতে পারবে না।

তবে অসম,মণিপুর,মেঘালয়,ত্ৰিপুরার মতো অন্যান্য রাজ্যগুলি সংরক্ষিত নয়। আর এরজন্যই সরকার রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জি(এনআরসি)চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একমাত্ৰ প্ৰকৃত ভারতীয়দেরই এনআরসিতে নাম অন্তর্ভুক্ত হবে। কোনও বিদেশির নাম এনআরসিতে নাম অন্তর্ভুক্ত হবে না। কোনও বিদেশির নাম এতে উঠবে না-বলেন তিনি। রিজিজু আরও বলেন,এনআরসি চালু হলে উত্তরপূর্ব ও অসমে অবৈধ অনুপ্ৰবেশ বন্ধ হবে। এমনকি ধর্মীয় নির্যাতনের শিকার হয়ে এই অঞ্চলে যারা বসবাস করছেন উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলির বিশেষ ব্যবস্থা অনু্যায়ী তাদের পরীক্ষা করা হবে।

তিনি বলেন,এনআরসিতে যাদের নাম উঠবে তারাই হবেন সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলির প্ৰকৃত নাগরিক। ‘উত্তর পূর্বাঞ্চলের প্ৰতিনিধি হওয়ায় এই অঞ্চলের মানুষের কথা ভাবা আমার কর্তব্য এবং আমি তাঁদের আশ্বাস দিচ্ছি বিজেপি কখনোই এই অঞ্চলের মানুষের স্বার্থের পরিপন্থী কোনও পদক্ষেপ নেবে না। উত্তর পূর্বাঞ্চলের সংস্কৃতি,ভাষা ও পরম্পরা অক্ষুণ্ণ রাখা হবে’-বলেন স্বরাষ্ট্ৰ প্ৰতিমন্ত্ৰী।

পিআরসি ইস্যু নিয়ে গত ফেব্ৰুয়ারি মাসে রাজ্যে হিংসাশ্ৰয়ী ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছিল। এপ্ৰসঙ্গে মন্ত্ৰী বলেন,এই ঘটনার জন্য কারা দায়ী মানুষ সেটা বুঝতে পেরেছেন।

রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির সম্ভাবনা সম্পর্কে রিজিজু বলেন,মানুষ বিজেপিকে ফের ক্ষমতায় আনতে মন স্থির করেছেন। ইতিমধ্যে দিবং,আলো ইস্ট এবং ইয়াচুলিতে তিনজন দলীয় প্ৰার্থী বিনা প্ৰতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। শান্তি,প্ৰগতি এবং উন্নয়নই যে বিজেপির মিশন রাজ্যের মানুষ সেটা বিলক্ষণ বুঝে গেছেন-দাবি করেন রিজিজু।

Next Story