Begin typing your search above and press return to search.

জম্মুর বাসস্ট্যান্ডে গ্ৰেনেড ছোড়ায় ধৃত কিশোরকে ৫০ হাজার টাকা দিয়েছিল হিজবুল

জম্মুর বাসস্ট্যান্ডে গ্ৰেনেড ছোড়ায় ধৃত কিশোরকে ৫০ হাজার টাকা দিয়েছিল হিজবুল

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  9 March 2019 1:26 PM GMT

জম্মুঃ জম্মু বাসস্ট্যান্ডে গ্ৰেনেড ছোড়ার ঘটনায় ইয়াসির জাভেদ ভাট নামে এক সন্দেহভাজন কিশোরকে গ্ৰেপ্তার করা হয়েছে। গ্ৰেনেড হামলায় দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়। শুক্ৰবার জেরার মুখে গ্ৰেনেড ছোড়ার কথা কবুল করেছে কিশোরটি। সে আরও স্বীকার করেছে হিজবুল মুজাহিদিনের একজন ওভারগ্ৰাউন্ড কর্মী তাকে গ্ৰেনেড নিক্ষেপের কাজ সারতে ৫০ হাজার টাকা দিয়েছিল। বৃহস্পতিবার জম্মুর বাসস্ট্যান্ডে এই গ্ৰেনেড আক্ৰমণে ৩০ জনের বেশি ঘায়েল হন। জম্মুর শহরতলি নাগরোটার টোল প্লাজা থেকে কিশোরটিকে গ্ৰেপ্তার করা হয়। কিশোরটি কুলগাম জেলার বাসিন্দা। কাশ্মীর উপত্যকায় পালাবার সময় কিছু প্ৰত্যক্ষদর্শীরা রিপোর্ট ও সিসি টিভি-র ফুটেজ কিশোরটিকে জালে ফেলতে পুলিশকে সাহা্য্য করে। সন্দেহভাজন কিশোরের আধার কার্ড ও স্কুল রেকর্ড যদি সঠিক হয় তাহলে তার জন্মের তারিখ হচ্ছে ২০০৩-এর ১২ মার্চ। আইন অনু্যায়ী ছেলেটিকে জুভেনাইল কাস্টোডিতে রাখার কথা। ছেলেটির বাবা পেশায় একজন পেইন্টার। সে নবম শ্ৰেণির ছাত্ৰ।

তথ্যাভিজ্ঞ মহলের সূত্ৰে জানা গিয়েছে,হিজবুলের ওভারগ্ৰাউন্ড কর্মী মুজাম্মিল কিশোরটির হাতে ৫০ হাজার টাকা ও একটি গ্ৰেনেড ধরিয়ে দিয়ে তা নির্দিষ্ট স্থানে নিক্ষেপ করতে বলে দিয়েছিল। কিশোরটিকে জেরা করে জানা গেছে হিজবুলের জেলা কমান্ডার ফায়েজ ভাট আলি গ্ৰেনেডটি ছোড়ার দায়িত্ব দিয়েছিল মুজাম্মিলকে। কিন্তু মুজ্জামিল ওই কার্য সম্পাদন করতে ব্যর্থ হয়। এরপরই ফায়েজ ভাট একাজের ভার ইয়াসের অর্থাৎ ছোটুর ওপর দেওয়ার জন্য মুজাম্মিলকে নির্দেশ দেয়।

Next Story