সংবাদ শিরোনাম

তেজপুর কেন্দ্ৰের বর্তমান সাংসদ রাম প্ৰসাদ শর্মা বিজেপিতে ইস্তফা দিলেন

সাংসদ রাম প্ৰসাদ শর্মা

গুয়াহাটিঃ রাজ্যের অর্থমন্ত্ৰী হিমন্তবিশ্ব শর্মার নাম তেজপুর লোকসভা কেন্দ্ৰ থেকে লড়ার জন্য দলের কেন্দ্ৰীয় নেতৃত্বের কাছে পাঠানোর পর তেজপুরের বর্তমান সাংসদ রাম প্ৰসাদ শর্মা গেরুয়া দলে ইস্তফা দেওয়ার রিপোর্ট পাওয়া গেছে। শনিবার সকালে এক ফেসবুক পোস্টে তেজপুর কেন্দ্ৰের সাংসদ আর পি শর্মা গেরুয়া দলে তাঁর ইস্তফা দেওয়ার কথা সরকারিভাবে ঘোষণা করেন।

ওই ফেসবুক পোস্টে রামপ্ৰসাদ বলেছেন,আমি বিজেপি ছেড়ে দিলাম। মনে একরাশ দুঃখ নিয়ে তিনি বলেন,দলে নতুনরা আসার পর বর্ষীয়ান নেতারা অবহেলিত হয়ে পড়েছেন। আমি দলের সেই সব বর্ষীয়ান নেতাদের পক্ষেই আওয়াজ তুলছি। এখন থেকে দলের প্ৰবীণ নেতাদের হয়ে কথা বলার আর কেউ রইলো না। দলের যে সব পুরনো কর্মী দশকের পর দশক ঘাম ঝরিয়ে অন্যের কোনও সমর্থক ছাড়াই বিজেপিকে ক্ষমতায় এনেছেন তাঁরাই আজ ব্ৰাত্য। দলের বর্ষীয়ান নেতারা আজ অবহেলিত এবং এমনকি সুষ্ঠু আচরণ টুকুও তারা পাচ্ছেন না। প্ৰিয় বন্ধুদের প্ৰতি আমার ভালবাসা রইলো। আমি আপনাদের পাশেই থাকবো। আমাকে সাহায্য,সমর্থন ও ভালবাসার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি’।

সূত্ৰটির মতে,রাম প্ৰসাদ তাঁর বক্তব্যে আসলে হিমন্তের প্ৰতিই অঙ্গুলি সংকেত করেছেন। কারণ তদানীন্তন মুখ্যমন্ত্ৰী তরুণ গগৈর সঙ্গে মতানৈক্যের জেরে হিমন্ত ২০১৫ সালের আগস্টে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। হিমন্ত সম্প্ৰতি লোকসভা নির্বাচনে লড়ার ব্যাপারেও সদিচ্ছা দেখিয়েছেন। দল টিকিট দিলে তিনি ভোটে লড়তে প্ৰস্তুত এমন কথা জানিয়েছেন হিমন্ত।

এখানে উল্লেখ করা যেতে পারে রাম প্ৰসাদ শুক্ৰবার স্বীকার করেছিলেন যে পরবর্তী লোকসভা নির্বাচনে তেজপুর কেন্দ্ৰ থেকে হিমন্তের প্ৰতিদ্বন্দ্বিতা করার প্ৰবল সম্ভাবনা রয়েছে।

শর্মা টেলিফোনে সাংবাদিকদের বলেন,তেজপুর লোকসভা কেন্দ্ৰ থেকে এবার হিমন্তই লড়ছেন। তিনি টিকিট যে পেয়ে যাবেন সেটাও নিশ্চিত।

এদিকে আরপি শর্মা কংগ্ৰেসে যোগ দিচ্ছেন বলে যে গুজব উঠেছে সে সম্পর্কে তিনি বলেন,‘কংগ্ৰেসে যোগ দেওয়ার কথা আমি কখনোই ভাবিনি। বর্তমানে এই ধরনের কোন সিদ্ধান্ত আমি নেইনি’।

তেজপুর কেন্দ্ৰে টিকিট না পেলে রাম প্ৰসাদ গেরুয়া দলে ইস্তফা দেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন বলে এরআগে খবর প্ৰকাশিত হয়েছিল।