দাবি-আপত্তির সময় বাড়ানোর আহবান আজমলের

দাবি-আপত্তির সময় বাড়ানোর আহবান আজমলের

গুয়াহাটি: জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর চুড়ান্ত তালিকা থেকে বাদ মানুষের নাম ভোটাধিকার কর্তন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে খবর প্রকাশ হওয়ায় প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন রাজ্যের অন্যতম ববল বিরোধি দল এ আই ইউ ডি এফ -এর সুপ্রিম মৌলানা বদরুদ্দীন আজমল। সংবাদমাধ্যমে প্রেরণ করা এক বিবৃতিতে তিনি জানান সম্প্রতি অসমে চলছে নাগরিকপঞ্জী নবায়ন প্রক্রিয়া। চুড়ান্ত খসড়ায় বাদ পড়া ৪০ লক্ষায়ধিক লোকের মধ্যে ১০ লক্ষ লোক নাগরিকপঞ্জিতে নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য দাবি আপত্তির মাধ্যমে আবেদন পত্র দাখিল করছেন। কিন্তু পঞ্চায়েত নির্বাচনের জন্য অনেকে নথি-পত্র জমা দিতে পারেনি বলে মন্তব্য করেন আজমল। তাঁর কথায় প্রতীক হ্যাজেল বলার পরও বহুলোকের নথি-পত্র ইনএন এস কে -তে জমা নিচ্ছে না। বিনাকারণে মানুষকে হয়রানি করা হচ্ছে। নীতি নিয়ম মানছে না। দিকে বাকি ৩০ লক্ষ মানুষ কিভাবে এতো কম সময়ের মধ্যে কিভাবে আবেদন পত্র জমা দেবেন তানিয়ে এন আর সি কর্তৃপক্ষ সময়সীমা বৃদ্ধি করা উচিত বলে জানিয়েছেন আজমল। এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

এনআরসি-র চূড়ান্ত তালিকা থেকে যাদের নাম বাদ যাবে তারা হয়তো ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত হতে পারেন। উল্লেখ্য,কয়েকদিন আগে স্বরাষ্ট্ৰ মন্ত্ৰক থেকে সংবাদ মাধ্যমকে একথা জানানো হয়েছে। মোট ৪০ লক্ষ মানুষের মধ্যে এনআরসি-র খসড়া থেকে বাদ যাওয়া ১০ লক্ষ লোক তালিকায় নাম ওঠাতে ফের আবেদন জমা করেছে। স্বরাষ্ট্ৰ মন্ত্ৰক থেকে জানানো হয়েছে, বিষয়টি নিয়ে ফের একবার সুপ্ৰিম কোৰ্টে শুনানি হতে পারে। এ সংক্ৰান্তে কেন্দ্ৰীয় স্বরাষ্ট্ৰ মন্ত্ৰক অসম সরকারের সঙ্গে একবার আলোচনায়ও বসবে। প্ৰসঙ্গত, গত মাসে কেন্দ্ৰীয় স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰী রাজনাথ সিং এনআরসি প্ৰক্ৰিয়াকে এগিয়ে নিতে অসমের মুখ্যমন্ত্ৰী সৰ্বানন্দ সনোয়াল এবং রাজ্যের স্বাস্থ্য, পরিবার কল্যাণ মন্ত্ৰী হিমন্ত বিশ্ব শৰ্মার সঙ্গে বৈঠক করেন। অন্যদিকে, ভবিষ্যতে এনআরসি-র তালিকা থেকে বাদ যাওয়া লোকদের ওয়াৰ্ক পারমিট দেওয়ার ভবিষ্যতে বিকল্প নিয়েছে কেন্দ্ৰ। এনিয়ে ভবিষ্যতে আরও একটি বিতৰ্ক সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

Related Stories

No stories found.
logo
Sentinel Assam- Bengali
bengali.sentinelassam.com