Top
Begin typing your search above and press return to search.

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরুদ্ধে ত্ৰিপুরায় এনজিও ও চার উপজাতি সংগঠনের প্ৰতিবাদ

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরুদ্ধে ত্ৰিপুরায় এনজিও ও চার উপজাতি সংগঠনের প্ৰতিবাদ

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  9 Feb 2019 11:57 AM GMT

আগরতলাঃ উত্তর পূর্বাঞ্চলের তিন রাজ্য অসম,ত্ৰিপুরা ও অরুণাচল প্ৰদেশে প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদির দুদিনের সফরকালে বিভিন্ন উপজাতি দল এবং এনজিও নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল প্ৰত্যাহারের দাবিতে শুক্ৰবার ত্ৰিপুরায় জোরদার বিক্ষোভ প্ৰদর্শন করে। ত্ৰিপুরা পুলিশ রাজ্যের যে তিন উপজাতি নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্ৰদ্ৰোহের অভি্যোগ এনেছে প্ৰতিবাদকারী গোষ্ঠীগুলি তা প্ৰত্যাহার করে নেওয়ার দাবি জানায়।

আগরতলা থেকে ১০০ কিলোমিটার উত্তরে ত্ৰিপুরার মানুঘাটে টানা কয়েক ঘন্টা চলে এদিনের বিক্ষোভ প্ৰদর্শন। এই ইস্যুতে এর আগে আগরতলা থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে খুমালঙে যে প্ৰতিবাদ সাব্যস্ত করা হয়েছিল তার দশদিন পর গতকাল ফের এমন প্ৰতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। খুমালং হচ্ছে ত্ৰিপুরা উপজাতি এলাকা স্বশাসিত জেলা পরিষদের সদরদপ্তর। ত্ৰিপুরার পুরনো উপজাতি সংগঠন ইন্ডিজেনাস ন্যাশনালিস্ট পার্টি অফ ত্ৰিপুরা(আইএনপিটি)সহ বিভন্ন এনজিও ও চারটি উপজাতি সংগঠনের সম্মিলিত মঞ্চ নবগঠিত মুভমেন্ট অ্যাগেনস্ট সিটিজেনশিপ(সংশোধনী)বিল(এমএসিএবি)রাজ্যে বিল বিরোধী আন্দোলন জোরদার করে তোলে।

এদিকে বিলের প্ৰতিবাদে উত্তর পূর্ব ছাত্ৰ সংগঠন(নেসো)বিল বিরোধিতায় শুক্ৰবার ১১ ঘন্টা উত্তর পূর্বাঞ্চল বনধ ডেকেছিল। সিকিমকে এই বনধের আওতা থেকে বাদ দেওয়া হয়। নেসো হচ্ছে উত্তর পূর্বাঞ্চলের সাত রাজ্যের আটটি ছাত্ৰ ও যুবকদের একটি সংস্থা। সিকিমের দায়িত্বে থাকা এআইসিসির সম্পাদক এবং ত্ৰিপুরা প্ৰদেশ কংগ্ৰেস কমিটির কার্যনির্বাহী সভাপতি প্ৰদোৎ কিশোর মানিক্য দেববর্মন এবং ত্ৰিপুরা কংগ্ৰেসের সাধারণ সম্পাদক ও উপজাতি নেতা দীনেশ দেববর্মা বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন। তবে এদিনের বিক্ষোভ প্ৰদর্শন কর্মসূচি শান্তিপূর্ণই ছিল। কোথাও কোনও অপ্ৰীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

এদিকে ত্ৰিপুরার সিপিআই(এম)দলের তিন সাংসদ এবং ত্ৰিপুরা ছাত্ৰ ফেডারেশন(টিএসএফ)শুক্ৰবারই ঘোষণা করেছে তারা নাগরিকত্ব(সংশোধনী)বিলের প্ৰতিবাদে শনিবার রাজ্যে প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদির কর্মসূচি বয়কট করবে। ত্ৰিপুরা ছাত্ৰ ফেডারেশন হচ্ছে নেসোরই একটা অংশ। নাগরিকত্ব বিলের বিরুদ্ধে নেসোই গোটা উত্তর পূর্বাঞ্চল আন্দোলন জোরদার করে তুলেছে। ত্ৰিপুরার সিপিআই(এম)দলের দুজন লোকসভা সাংসদ জিতেন্দ্ৰ চৌধুরী ও শঙ্কর প্ৰসাদ দত্ত এবং রাজ্যসভা সদস্য ঝরনা দাস বৈদ্য ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছেন যে তাঁরা প্ৰধানমন্ত্ৰীর শনিবারের কর্মসূচি বয়কট করবেন।

Next Story