Begin typing your search above and press return to search.

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল আস্তাকুঁড়ে ছুঁড়ে ফেলতে বিজেপি-র প্ৰতি আহ্বান অগপ-র

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল আস্তাকুঁড়ে ছুঁড়ে ফেলতে বিজেপি-র প্ৰতি আহ্বান অগপ-র

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  24 Oct 2018 10:07 AM GMT

গুয়াহাটিঃ অসম চুক্তির প্ৰতি বিজেপি-র শ্ৰদ্ধা রয়েছে বলে বিজেপি যে দাবি করে আসছে,তা প্ৰমাণ করার জন্য অসম গণ পরিষদ(অগপ)নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ২০১৬কে আস্তাকুড়ে ছুঁড়ে ফেলতে শরিক দল বিজেপি-র প্ৰতি আর্জি জানিয়েছে। আঞ্চলিক দলটি কেন্দ্ৰে বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের উদ্দেশে বলেছে,‘তারা ভারতীয় না বিদেশির পক্ষ নেবে সেটা পরিষ্কার করুক। যদি কেন্দ্ৰ ভারতীয়দের পক্ষ নিতে চায় তাহলে তাদের বিতর্কিত ওই বিলটি আস্তাকুঁড়ে ছুঁড়ে ফেলাই উচিত হবে’।

নাগরিক সংশোধনী বিল ২০১৬-এর বিরুদ্ধে আঞ্চলিক দল অগপ সোমবার গুয়াহাটির লতাশিল খেলার মাঠে এক বিশাল গণ সমাবেশের আয়োজন করে। অসমের স্বার্থের পরিপন্থী ওই বিলের বিরুদ্ধে অগপ গোড়া থেকেই প্ৰতিবাদ জানিয়ে আসছে।

দলের প্ৰতিনিধিরা ইস্যুটি নিয়ে রাষ্ট্ৰপতি রামনাথ কোবিন্দ,প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মদি,স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰী রাজনাথ সিং,যৌথ সংসদীয় কমিটির(জেপিসি)অধ্যক্ষ রাজেন্দ্ৰ আগরওয়ালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বিতর্কিত বিলটি বাতিল করার দাবি জানিয়ে এসেছেন। বিল বাতিলের জন্য দলের তরফে লাগাতার চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া সত্ত্বেও এখনও পর্যন্ত এব্যাপারে প্ৰত্যাশিত কোনও ফল পাওয়া যায়নি।

এরপরই বিল বাতিলের দাবিতে নাছোড় আঞ্চলিক দলটি গতকাল লতাশিল মাঠে বিশাল গণ সমাবেশের আয়োজন করে। দলীয় নেতা ও সমর্থকরা মঙ্গলবার লতাশিল মাঠ থেকে চাঁদমারির আসাম ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউটের ময়দান পর্যন্ত একটি মিছিলে অংশ নিয়ে ওই বিলের বিরুদ্ধে সোচ্চার প্ৰতিবার জানান। অগপ এই বিলকে অসম বিরোধী আখ্যা দেয়। দলের সভাপতি তথা মন্ত্ৰী অতুল বরা সমাবেশে বলেন,‘জনগণের রায়ের প্ৰতি সম্মান জানিয়েই আমরা বিজেপির সঙ্গে শরিকানা বজায় রেখে চলেছি। গত বিধানসভার নির্বাচনের সময়ই বিজেপির সঙ্গে এই আঁতাত হয়েছিল। তবে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের মতো যেকোনো অসম বিরোধী অবস্থানের বিরুদ্ধে আমরা সরকারে থাকলেও আওয়াজ অবশ্যই তুলবো। বিলটি বাতিলের জন্য আমরা অনেকবার রাষ্ট্ৰপতি,প্ৰধানমন্ত্ৰী,স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰী ও জেপিসির অধ্যক্ষের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছি। বিজেপি দাবি করে অসম চুক্তির প্ৰতি তাদেরও শ্ৰদ্ধা রয়েছে। যদি সেটাই হয়,তাহলে অসম চুক্তি লঙ্ঘন রুখতে তাদের ওই বিল আস্তাকুঁড়ে ছুড়ে ফেলে সেটা প্ৰমাণ করা উচিত’। ৮৫৫ জনেরও বেশি শহিদের আত্মত্যাগের ফলশ্ৰুতিতে ঐতিহাসিক অসম চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল। তাই অগপর কাছে চুক্তিটি গীতা,বাইবেল,কোরান এর সমতুল্য।

সমাবেশে প্ৰাক্তন মুখ্যমন্ত্ৰী প্ৰফুল্ল কুমার মহন্ত বলেন,‘আমাদের এখন সময় নষ্ট করার সু্যোগ নেই। প্ৰত্যেকেরই বিলের বিরুদ্ধে এগিয়ে আসা উচিত। অগপর কার্যকরী সভাপতি কেশব মহন্ত সমাবেশে বলেন,বিলটি পাস হলে নিজের রাজ্যেই অসমিয়া জাতির অস্তিত্বে টান পড়বে’।

Next Story