Begin typing your search above and press return to search.

নির্বাচনে টাকার ব্যবহার রুখতে কড়া পদক্ষেপ নির্বাচন কমিশনের

নির্বাচনে টাকার ব্যবহার রুখতে কড়া পদক্ষেপ নির্বাচন কমিশনের

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  28 March 2019 12:02 PM GMT

গুয়াহাটিঃ অসমে লোকসভা নির্বাচনের জন্য প্ৰচারের পালা শুরু হতেই ভারতের নির্বাচন কমিশন(ইসিআই)নির্বাচনী সময়কালে প্ৰার্থীদের খরচ খরচা সংক্ৰান্ত বিষয়টি দেখভালের জন্য কঠোর নজরদারির ব্যবস্থা হাতে নিয়েছে। এই উদ্দেশ্যে ইসিআই ইতিমধ্যেই রাজ্যে ১৪ জন এক্সপেনডিচার অবজারভারকে(ব্যয় পর্যবেক্ষক)(ইও)মোতায়েন করেছে। ওই ১৪ জন ব্যয় পর্যবেখকের মধ্যে ১০ জন ইতিমধ্যেই রাজ্যে পৌঁছে গেছেন। বাকি চারজন শীঘ্ৰই রাজ্যে এসে পৌঁছবেন। আনুমানিক ৪০০ জন ফ্লাইং স্কোয়াড এবং ভিডিও সার্ভেইল্যান্স টিম এই সব এক্সপেনডিচার অবজারভারকে সহযোগিতা করবেন। রাজ্য নির্বাচন বিভাগের একটি সূত্ৰ এখবর জানিয়েছে।

প্ৰার্থীদের মনোনয়নপত্ৰ প্ৰত্যাহারের শেষ দিন থেকে একেবারে নির্বাচন পর্যন্ত এই সব এক্সপেনডিচার অবজারভার ও তাদের দল একেবারে গ্ৰাউন্ড লেবেল থেকে কাজ করবেন। ভোট গণনার পরও এক্সপেনডিচার পর্যবেক্ষকরা প্ৰার্থীদের নির্বাচন সংক্ৰান্ত খরচ খরচা সম্পর্কে চূড়ান্ত্পর্যায়ে পর্যালোচনা ও পরীক্ষা নিরীক্ষার কাজ চালাবেন। ইসিআই সংসদীয় নির্বাচনে প্ৰত্যেক প্ৰার্থীর জন্য খরচের সীমা ৭০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ধার্য করে দিয়েছে। ১২৬টি বিধানসভা কেন্দ্ৰের প্ৰত্যেকটিতে কমপক্ষেও তিনজন ফ্লাইং স্কোয়াডের কর্মী মোতায়েন করা হবে। তাদের সঙ্গে থাকছেন পুলিশ কর্মকর্তারাও।

কেউ নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করছে কিনা,ভোটারদের পক্ষে টানতে টাকার ব্যবহার ও অন্যান্য কৌশল অবলম্বনের অভি্যোগগুলি খতিয়ে দেখাই হবে ফ্লাইং স্কোয়াডের কাজ। এরপরই ফ্লাইং স্কোয়াডগুলি তাদের রিপোর্ট এক্সপেনডিচার অবজারভারদের কাছে দাখিল করবে।

অন্যদিকে ভিডিও,সার্ভেইল্যান্স টিম নির্বাচনী প্ৰচার ও সভাসমিতির ভিডিও ফুটেজগুলি রেকর্ড করবে। নির্বাচনী সমাবেশ গুলিতে কী পরিমাণ টাকা খরচ হয়েছে সে সম্পর্কে নিশ্চিত হতে ওই ফুটেজগুলি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সার্ভেইল্যান্স টিমের রিপোর্টগুলি নির্বাচন কমিশনের কাছে দাখিল করার প্ৰত্যেক প্ৰার্থীর খরচের হিসেবের সঙ্গে মিলিয়ে দেখা হবে।

Next Story