Begin typing your search above and press return to search.

নির্বাচন চলাকালে রাজ্যে বাজেয়াপ্ত ১১.৭৯ কোটি টাকা

নির্বাচন চলাকালে রাজ্যে বাজেয়াপ্ত ১১.৭৯ কোটি টাকা

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  17 April 2019 11:45 AM GMT

গুয়াহাটিঃ রাজ্যে চলতি লোকসভা নির্বাচনে টাকা দিয়ে ভোটার ও ভোট কেনার অশুভ প্ৰবণতার বিরুদ্ধে ভারতীয় নির্বাচন কমিশনের(ইসিআই)লড়াই পুরোদস্তর অব্যাহত আছে। ইসিআই ও আয়কর কর্মীরা গোটা উত্তর পূর্বাঞ্চলে এই প্ৰবণতার বিরুদ্ধে অভি্যান চালিয়ে এপর্যন্ত ২১.৬৬ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে। এরমধ্যে শুধু অসম থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে ১১.৭৯ কোটি টাকা। তবে চলতি নির্বাচনী প্ৰক্ৰিয়ায় মিজোরামই হচ্ছে একমাত্ৰ ব্যতিক্ৰমী রাজ্য। মিজোরামে এখনো পর্যন্ত কোন নগদ অর্থ বাজেয়াপ্ত হয়নি। নির্বাচনী আচরণ বিধি(এমসিসি)বলবৎ হবার পর প্ৰোগ্ৰেসিভ সিজার রিপোর্ট অনু্যায়ী সারা দেশ থেকে এসময়ে ৮৬৩.২৮৯ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এছাড়া ফ্লাইং স্কোয়াড,স্টেটিক সার্ভেইল্যান্স টিম,আয়কর বিভাগ,পুলিশ ও অন্যান্য নিরাপত্তা সংস্থাগুলো নগদ অর্থ,মদ,ড্ৰাগস,নেশা জাতীয় সামগ্ৰী এবং মূল্যবান ধাতু সোনা,রুপো ইত্যাদি বাজেয়াপ্ত করেছে যথেষ্ট পরিমাণে।

ইসিআই-র প্ৰোগ্ৰেসিভ সিজার রিপোর্ট অনু্যায়ী এই সময়ে অসমে ১১.৭৯ কোটি টাকা নগদ,১.৪২ কোটি টাকার ১.৬ লক্ষ লিটার মদ,২৫০ গ্ৰাম ড্ৰাগস ও অন্যান্য নেশাজাতীয় সামগ্ৰী যার মূল্য ০.৫২ কোটি টাকা,০.২৩ কোটি টাকার অন্যান্য সামগ্ৰী বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এই নিয়ে বাজেয়াপ্ত করা মোট সামগ্ৰীর অর্থমূল্য দাঁড়িয়েছে ১৪.৩২১ কোটি টাকায়।

ওদিকে অরুণাচল প্ৰদেশ থেকে এসময়ে মোট ৬.৯২ কোটি টাকা,মণিপুর থেকে ০.৬৮ কোটি টাকা,মেঘালয় থেকে ০.৭২ কোটি এবং নাগাল্যান্ড থেকে ০.৯২ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করা গেছে। এছাড়া ০.২৪ কোটি টাকা সিকিম ও ত্ৰিপুরা থেকে ০.৩৯ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

Next Story