সংবাদ শিরোনাম

নেসোর আন্দোলন চলবে,সবাইকে সতর্ক থাকতে বললেন সমুজ্জ্বল

নেসো

গুয়াহাটিঃ নাগরিকত্ব(সংশোধনী)বিল ২০১৯ রাজ্যসভায় পাস করাতে কেন্দ্ৰ ব্যর্থ হওয়ার একদিন পরই উত্তর পূর্ব ছাত্ৰ সংগঠন(নেসো),সারা অসম ছাত্ৰ সংস্থা(আসু)এবং অন্যান্য ৩০টি জাতীয় সংগঠন বৃহস্পতিবার ওই বিলের বিরুদ্ধে আন্দোলন বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শাসক দল বিজেপি বাংলাদেশি হিন্দুদের নাগরিকত্ব দিতে মরিয়া হয়ে আছে। তাই এই সরকারের ভূমিকায় কোনও আস্থা রাখতে পারছে না ছাত্ৰ সংগঠনগুলি। বিদেশি(সংশোধনী)নির্দেশ ২০১৫,পাসপোর্ট(এন্ট্ৰি ইন টু ইন্ডিয়া)নোটিফেকেশন ২০১৫ এবং ভারতে আসা বাংলাদেশি মানুষের জন্য দীর্ঘ মেয়াদি ভিসার ব্যবস্থা রদ করার জন্য ছাত্ৰ সংগঠনগুলি কেন্দ্ৰের ওপর চাপ বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে এখানে এক সাংবাদিক সম্মেলনে নেসোর উপদেষ্টা সমুজ্জ্বল কুমার ভট্টাচার্য বলেন,‘উত্তর পূর্বাঞ্চলের মানুষের গণতান্ত্ৰিক ও ধর্মনিরপেক্ষ আন্দোলনের ফলশ্ৰুতিতে কেন্দ্ৰ বিতর্কিত বিলটি রাজ্যসভায় পাস করাতে ব্যর্থ হয়েছে যদিও তবে এই নিয়ে উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়লে চলবে না। কারণ কেন্দ্ৰ ইতিমধ্যেই বলেছে,হিন্দু বাংলাদেশিদের নাগরিকত্ব দিতে তারা আরো এগোবে। এতে দেখাদেখি লঙ্ঘিত হবে অসম চুক্তি। তাই আমাদের প্ৰতিক্ষণেই সচেতন থাকতে হবে’-বলেন সমুজ্জ্বল।

ভট্টাচার্য বলেন,সমস্যা মিটে গেছে এমনটা ভাবার যুক্তি নেই। কারণ কেন্দ্ৰ ফরেনার্স অ্যামেন্ডমেন্ট অর্ডার ২০১৫,পাসপোর্ট এন্ট্ৰি ইন টু ইন্ডিয়া নোটিফিকেশন ২০১৫ এবং দীর্ঘ মেয়াদি ভিসার নির্দেশ ইত্যাদি এখনও রদ করেনি। এই সব ব্যবস্থার মাধ্যমে ১৯৭১ সালের পর ভারতে আসা বাংলাদেশিদের নাগরিকত্ব দেওয়ার সু্যোগকে লাগাতে পারে কেন্দ্ৰ-বলেন তিনি।

‘সংসদে ক্যাব উত্থাপন করে কেন্দ্ৰ অসম এবং উত্তর পূর্বাঞ্চলের জনগণকে মানসিক নির্যাতন করেছে। এধরনের মানসিক নির্যাতন এই অঞ্চলের মানুষকে ভারতের মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ার মতো ভাবনার জন্ম দিয়েছিল। তাই হিন্দু বাংলাদেশিদের নাগরিকত্ব দেওয়ার যেকোনও প্ৰয়াসের বিরুদ্ধে স্থানীয় ভূমিপুত্ৰদের মানসিকভাবে তৈরি থাকার এটাই চূড়ান্ত সময়’-বলেন ভট্টাচার্য,যিনি আসুরও উপদেষ্টা।

এদিকে নেসোর সেক্ৰেটারি জেনারেল সিনাম সিং সাংবাদিকদের বলেন,‘কেন্দ্ৰ রাজ্যসভায় ক্যাব পাস করাতে ব্যর্থ হওয়ায় বিলের বিরুদ্ধে উত্তর পূর্বাঞ্চলের মানুষের ঐক্যবদ্ধ সংগ্ৰামেরই জয় হলো। ক্যাবের বিরুদ্ধে উত্তর পূর্বের মানুষ একজোট হয়ে কতদূর যেতে পারেন কেন্দ্ৰ সেটা বুঝতে পেরেছে। অন্যান্য জ্বলন্ত ইস্যু নিয়ে আমরা একইভাবে লড়বো’-বলেন তিনি। যারা এই আন্দোলনকে সমর্থন করেছেন তাদের প্ৰতি কৃতজ্ঞতা প্ৰকাশ করেছেন এই নেসো নেতা।