Top
Begin typing your search above and press return to search.

বিজেপি সমস্যা সমাধানে রাজনীতি করেঃ জয়ন্তমল্ল বরুয়া

বিজেপি সমস্যা সমাধানে রাজনীতি করেঃ জয়ন্তমল্ল বরুয়া

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  5 Jan 2019 11:42 AM GMT

‘বিজেপি দেশের মূল সমস্যাগুলো সমাধানের রাজনীতিকে বিশ্বাস করে। অসম এবং অসমিয়ার সর্বাঙ্গীণ উন্নতি এবং সুরক্ষা স্বার্থে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছে বিজেপি। জাতির সংকটের কথা বলে সমস্যা সমাধানের পথ উদ্ভাবন না করে অযথা কথা বলে না বিজেপি। এর চেয়ে অসম চুক্তির ৬নং দফা আধারে খিলঞ্জিুা মানুষের সাংবিধানিক,প্ৰশাসনিক,রাজনৈতিক ও ভাষিক সুরক্ষা প্ৰদানে দৃঢ়প্ৰতিজ্ঞ প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদী নেতৃত্বাধীন কেন্দ্ৰের বিজেপি সরকার।’-একথা বলেন রাজ্য বিজেপির মুখপাত্ৰ জয়ন্ত মল্ল বরুয়া।

শনিবার গুয়াহাটিস্থিত রাজ্য বিজেপি-র সদর দপ্তরে সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে তিনি বলেন,অসম ও অসমিয়ার সাংবিধানইক রক্ষাকবস দেওয়ার জন্যই প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদীর নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত ক্যাবিনেট বৈঠকে ৬নং দফা বাস্তবায়ন করার জন্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এমনকি,অসম চুক্তির উল্লেখিত দফা যাতে বাস্তবে রূপায়ণ হয় এর জন্য একটি উচ্চস্তরীয় সমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বলেন,অসম চুক্তির আধারে বাংলাদেশের সঙ্গে থাকা সীমান্ত সম্পূর্ণরূপে সীল করার জন্য প্ৰতিবেশি দেশটির সঙ্গে ভূমির চুক্তি করা হয়েছিল।

তাঁর কথায় বিদেশি নাগরিককে শনাক্তকরণ করে জাতিকে সুরক্ষা প্ৰদানের জন্য এনআরসি নবায়ণ প্ৰক্ৰিয়া সম্পূর্ণ সহযোগিতা করছে সরকার। এতেই বোঝা যায় যে,বিজেপি সরকার সমস্যা সমাধানে রাজনীতিতে বিশ্বাস করে বলে মন্তব্য করতে গিয়ে তিনি বলেন,একাংশ সংগঠন আন্দোলনের মাধ্যমে সমস্যাগুলিকে বাচিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। সেইসঙ্গে তিনি বলেন,অসম চুক্তি রূপায়ণে সদইচ্ছা রয়েছে বর্তমানের সরকারে। এনিয়ে তিনি আরও বলেন,অসম চুক্তি রূপায়ণের জন্য গত ৩৪ বছরে ১৭ বার কেন্দ্ৰীয় সরকার,রাজ্য সরকার ও সারা আসম ছাত্ৰ সংস্থার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

এরমধ্যে ৯বার অটলবিহারি বাজপেয়ী ৬ বছরের প্ৰধানমন্ত্ৰীত্বকালে এবং বাকি ২৮ বছরে ৯টি ত্ৰিপ্স্ক্শিক বৈঠক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এরমধ্যে ড.মনমোহন সিঙের ১০ বছরে প্ৰধানমন্ত্ৰীত্বকালে ৬টি,আই কে গুজরাজের আমলে ১টি এবং ভি পি সিঙের আমলে ১টি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল। কিন্তু ওসব বৈঠকের পরও কোনও সমাধান সূত্ৰ বেড়িয়ে আসেনি বলে মন্তব্য করে বরুয়া বলেন,প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদী ও মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সনোয়ালের হাত ধরেই এই চুক্তি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে রূপায়ণ হবে বলে আমরা সবাই আশাবাদী।

Next Story