Begin typing your search above and press return to search.

রাজেন গোঁহাইর বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের মামলা খারিজ হাইকোর্টে

রাজেন গোঁহাইর বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের মামলা খারিজ হাইকোর্টে

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  26 March 2019 10:25 AM GMT

গুয়াহাটি/নগাঁওঃ রেল প্ৰতিমন্ত্ৰী তথা নগাঁওয়ের সাংসদ রাজেন গোঁহাইর বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া যৌন নির্যাতন মামলা সোমবার খারিজ করে দিয়েছে গৌহাটি হাইকোর্ট। মামলাটি খারিজ হয়ে যাওয়ায় অবশেষে স্বস্তি পেলেন গোঁহাই। নগাঁও সদর থানায় দাখিল যৌন নির্যাতন মামলায়(নং ১৭৮১/২০১৮)তাঁকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল নগাঁওয়ের সিজেএম আদালত। কিন্তু গোঁহাই এই সম্পূর্ণ প্ৰক্ৰিয়ার বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইহোর্টে একটি রিট আবেদন দাখিল করেছিলেন। এরই পরিপ্ৰেক্ষিতে নিম্ন আদালতের নির্দেশ সহ সম্পূর্ণ এজাহারটি সোমবার বাতিল ঘোষণা করে হাইকোর্ট।

অভি্যোগকারীর পক্ষে আইনজীবী কোর্টকে জানান,গোঁহাইর সঙ্গে অভিযোগকারীর পরিবারের সুসম্পর্ক রয়েছে। অভিযোগকারীর তরফে যৌন নির্যাতনের কথাও পুরোপুরি অস্বীকার করা হয়েছে। অভি্যোগকারীর তরফে এই বয়ানের পর আদালত মামলার শুনানি শেষে গোঁহাইর বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলাটি খারিজ করে দেয়। হাইকোর্টের তরফে বিচারপতি সুমন শ্যাম এই রায় দান করেন।

উল্লেখ্য,গত বছর ১ আগস্টে এক মহিলা গোঁহাইর বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ এনে নগাঁও সদর থানায় এজাহার দাখিল করেছিলেন। এই ঘটনায় রাজ্যজুড়ে প্ৰতিবাদের ঝড় তোলে বিভিন্ন দল,সংগঠন। নগাঁও সিজেএম আদালতে মামলা চলাকালে গোঁহাইকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল ২০১৮-র ১৬ নভেম্বর। কিন্তু রাজেন আদালতে হাজির না হয়ে নিম্ন আদালতে চলা সম্পূর্ণ বিচার প্ৰক্ৰিয়ার বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টে রিট পিটিশন দাখিল করেন। গতকাল মামলাটি নিয়ে শুনানির সময় অভি্যোগকারীর তরফে যৌন নিপীড়নের কথা অস্বীকার করার পাশাপাশি তাদের মধ্যে সুসম্পর্ক থাকার কথা কোর্টকে জানানো হয়। এরপরই আদালত মামলাটি খারিজ করে দেয়। অভি্যোগকারী মহিলা গত বছর ১ আগস্টে নগাঁও সদর থানায় দাখিল করা এজাহারে(নং ২৫৯২/১৮)চাকরি দেওয়ার নামে,গোঁহাইর বিরুদ্ধে প্ৰতারণা ও ধর্ষণের অভি্যোগ এনেছিলেন। গোঁহাইর বিরুদ্ধে মহিলাটির বৌদির সঙ্গে যৌন সম্পর্কেরও অভিযোগ আনা হয়েছিল। হাইকোর্টে মামলা নিয়ে গতকাল অভিযোগকারীর তরফে যৌন আতিশয্যের কথা অস্বীকার করায় এবং তাদের মধ্যে ভাল সম্পর্ক রয়েছে বলে বয়ান দেওয়ার পর পুরো শুনানি শেষ মামলাটি খারিজ করে দেওয়া হয়।

Next Story