Begin typing your search above and press return to search.

রাজ্যে পাঁচ লোকসভা কেন্দ্ৰে আজ দ্বিতীয় দফায় ভোট হচ্ছে

রাজ্যে পাঁচ লোকসভা কেন্দ্ৰে আজ দ্বিতীয় দফায় ভোট হচ্ছে

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  18 April 2019 7:25 AM GMT

গুয়াহাটিঃ রাজ্যের পাঁচ কেন্দ্ৰে আজ দ্বিতীয় দফায় লোকসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। মোট ৮,৯৯২টি ভোটগ্ৰহণ কেন্দ্ৰে ৫০ জন প্ৰার্থীর ভাগ্য আজ ইভিএম মেশিনে আটকা পড়বে। সকাল ৭টা থেকে শুরু হয়েছে ভোটগ্ৰহণ পর্ব। চলবে বিকেল ৫টা অবধি। রাজ্যের যে পাঁচটি লোকসভা আসনে আজ ভোট হছে সেগুলি হলো নগাঁও,মঙ্গলদৈ,করিমগঞ্জ,শিলচর এবং স্বশাসিত জেলা(ডিফু সংরক্ষিত)। নির্বাচন নির্বিঘ্নে সারতে সব ভোট কেন্দ্ৰে ঢালাও নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্ৰহণ করা হয়েছে। জরুরিকালীন পরিস্থিতির মোকাবিলায় রাজ্য পুলিশ বেশকটি কপ্টার মজুত করে রেখেছে। মোট ১৬৯ কোম্পানি কেন্দ্ৰীয় সংরক্ষিত পুলিশ বাহিনী(সিআরপিএফ)এবং অসম পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

দ্বিতীয় দফার নির্বাচনে মোট ৬৯,১০,৫৯২ জন ভোটার তাঁদের ভোটাধিকার প্ৰয়োগ করার সু্যোগ পাচ্ছেন। এরমধ্যে ৩৫,৫৪,৪৬০ জন পুরুষ এবং ৩৩,৫৫,৯৫২ জন মহিলা ভোটার। তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার রয়েছেন ১৮০ জন। ৬২১টি ভোটকেন্দ্ৰে ওয়েবকাস্টিং-এর ব্যবস্থা থাকছে। এরফলে নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা আজকের এই নির্বাচনী প্ৰক্ৰিয়ায় সরাসরি তদারক করতে পারবেন। দ্বিতীয় দফার নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সারতে মোট ৩৫,৯৬৮ জন নির্বাচন কর্মীকে কাজে লাগানো হয়েছে। নির্বাচনের সময় ৫৪৪ জন মাইক্ৰো অবজারভার,৬ জন সাধারণ পর্যবেক্ষক,৫ জন এক্সপেনডিচার অবজারভার এবং তিনজন পুলিশ পর্যবেক্ষক ডিউটিতে বহাল থাকছেন। তাছাড়া ১৩৭ জন ভিডিও সার্ভেইল্যান্স টিমকে নিয়োগ করা হয়েছে দ্বিতীয় দফার নির্বাচনে তদারক করার জন্য। ১৩৭টি ভোট কেন্দ্ৰ পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন মহিলারা। ৩ জন মহিলা সহ ৫০ জন প্ৰার্থীর ভাগ্য আজই নির্ধারিত হয়ে যাবে। দ্বিতীয় দফার ভোটে করিমগঞ্জ ১৪,শিলচরে ১৩,মঙ্গলদৈয়ে ১১,নগাঁওয়ে ৭ এবং স্বশাসিত জেলার ৫ জন প্ৰার্থী লড়াইয়ের ময়দানে রয়েছেন। ২০১৪-র সাধারণ নির্বাচনে কংগ্ৰেস শিলচর ও ডিফু আসনে বিজয়ী হয়েছিল। বিজেপি জিতেছিল নগাঁও ও মঙ্গলদৈয়ে।

করিমগঞ্জ আসন দখল করেছিল এআইইউডিএফ। আজ করিমগঞ্জ আসনে বিজেপি-র কৃপানাথ মাল্লা,বর্তমান সাংসদ এআইইউডিএফ-এর রাধেশ্যাম বিশ্বাস এবং কংগ্ৰেসের স্বরূপ দাসের মধ্যে ত্ৰিমুখী লড়াই হচ্ছে। শিলচর,ডিফু,মঙ্গলদৈ ও নগাঁওয়ে কংগ্ৰেস-বিজেপির মধ্যে সরাসরি লড়াই জমবে বলে আশা করা হচ্ছে।

কেন্দ্ৰগুলিতে সকাল ৯টা পর্যন্ত গড়ে ১১.৬১ শতাংশ ভোট পড়ার খবর পাওয়া গেছে। করিমগঞ্জে সকাল ৯টা পর্যন্ত ভোট পড়ে ১১.৮২ শতাংশ। শিলচরে এই সময়ের মধ্যে ১৩.২৯ শতাংশ ভোট পড়েছে। এছাড়া ডিফুতে ১২,মঙ্গলদৈয়ে ১১.৩২ ও নগাঁওয়ে ১১.৬১ শতাংশ ভোট পড়ার রেকর্ড নথিভুক্ত হয়েছে। যে ১৩৭টি ভোট কেন্দ্ৰ মহিলারা পরিচালনা করছেন সেগুলির মধ্যে করিমগঞ্জের ১১,নগাঁওয়ের ২৬,মঙ্গলদৈয়ে ৬৭,শিলচরে ১০ ও স্বশাসিত জেলার ২৩টি কেন্দ্ৰ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

ইভিএম বিচ্যুতির জন্য ডিমা হাসাওয়ের কয়েকটি ভোট কেন্দ্ৰে দেরি করে ভোটগ্ৰহণ শুরু হয়।

Next Story