ব্ৰেকিংনিউজ

রাফেল যুদ্ধবিমান কেনা নিয়ে তদন্তের প্ৰয়োজন নেইঃ সুপ্ৰিম কোর্ট

সুপ্ৰিম কোর্ট

বিজেপি তিন রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে জনতার দরবারে জোর ধাক্কা খাওয়ার পর আদালতের দরবারে বড়ো স্বস্তি পেল নরেন্দ্র মোদীর সরকার। সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট জানিয়ে দিল, ৩৬টা রাফেল যুদ্ধবিমান কেনা নিয়ে ফরাসি সংস্থা দাসো-র সঙ্গে ভারতের যে চুক্তি হয়েছে, তা নিয়ে কোনো তদন্তের প্রয়োজন নেই। এই চুক্তির তদন্ত সংক্রান্ত সমস্ত আবেদন শীর্ষ আদালত শুক্রবার খারিজ করে দিয়েছে। উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক বিধানসভা নির্বাচনে এই রাফেল চুক্তি অন্যতম প্রধান ইস্যু হয়ে উঠেছিল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও তাঁর সরকারকে দুর্নীতির অভিযোগে বিদ্ধ করে বিরোধী দলগুলি শাসকপক্ষকে ‘পুঁজিবাদের প্রাণের বন্ধু’ বলে কাঠগড়ায় তুলেছিল।

শীর্ষ আদালত এ দিন তার রায়ে বলেছে, রাফেল চুক্তি নিয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ অনুসন্ধানের প্রয়োজন নেই। রায় পড়তে গিয়ে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন, রাফেল যুদ্ধবিমান কেনার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত-প্রক্রিয়ায় আদালত সন্তুষ্ট এবং এ ব্যাপারে সন্দেহ করার কোনো অবকাশ নেই।প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ বলে, যুদ্ধবিমানের দাম নির্ধারণ, ভারতের সহযোগী শরিক (অফসেট পার্টনার) বাছাই ইত্যাদি বিষয়গুলি পরীক্ষা করার মতো প্রযুক্তিগত কুশলতা আদালতের নেই। এ ছাড়া জাতীয় নিরাপত্তার প্রসঙ্গ তুলে প্রধান বিচারপতি বলেন, প্রতিরক্ষা চুক্তি এবং প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম সংগ্রহের মতো বিষয়গুলিতে আদালত নাক গলাতে পারে না।

প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ, বিচারপতি সঞ্জয় কিশান কউল এবং বিচারপতি কে এম জোসেফের ডিভিশন বেঞ্চ গত ১৪ নভেম্বর রায়দান স্থগিত রেখেছিল। রায়দান স্থগিত রাখার সময় ডিভিশন বেঞ্চ বলেছিল, রাফেল চুক্তি নিয়ে অর্থ লেনদেনের বিষয়টি প্রকাশ্যে আনা উচিত কিনা তা নিয়ে আদালত সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর এ নিয়ে আলোচনা করা যেতে পারে।

ভারতের শত্রুদের সুবিধা হয়ে যাবে, এই যুক্তিতে সরকার রাফেল চুক্তি নিয়ে অর্থ লেনদেনের বিস্তারিত তথ্য দিতে রাজি না হওয়ার পর শীর্ষ আদালত এই রায় দিল।