Top
Begin typing your search above and press return to search.

ফ্যান্সিবাজারে ৫১ কুইন্টেল আম নষ্ট করল খাদ্য নিরাপত্তা কর্মীরা,আটক ২

ফ্যান্সিবাজারে ৫১ কুইন্টেল আম নষ্ট করল খাদ্য নিরাপত্তা কর্মীরা,আটক ২

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  22 May 2019 12:25 PM GMT

গুয়াহাটিঃ খাদ্য নিরাপত্তা বিভাগের কর্মীরা মঙ্গলবার গুয়াহাটির ফ্যান্সিবাজার এলাকায় ফলের বাজার থেকে ৫১ কুইন্টেল আম বাজেয়াপ্ত করে সেগুলি নষ্ট করে ফেলে। এই ঘটনায় পশ্চিমবঙ্গের দুজন ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। অন্যান্য আরও তিনজন অসাধু ব্যবসায়ী ওই এলাকা থেকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

উপর থেকে দেখলে এটাকে খুবই সাধারণ ঘটনা বলেই মনে হবে। কিন্তু আসলে এই ঘটনা মোটেই সাধারণ নয়। মানুষের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিষয় এর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে। কারণ এই আম খেয়ে ক্যান্সারের মতো মারণ রোগে আক্ৰান্ত হতে পারে মানুষ। এই আমগুলি কৃত্ৰিম উপায়ে পাকানো হচ্ছে। নষ্ট করে ফেলা আমগুলি কৃত্ৰিম উপায়ে পাকানোর ব্যবস্থা করেছিল এই সব অসাধু ব্যবসায়ীরা। এসিটিলিন,এথিলিন-এর মতো হাইড্ৰোকার্বন ব্যবহার করে আমগুলো পাকানো হচ্ছিল। এছাড়াও ক্যালসিয়াম কার্বাইড(cac2)ফল পাকাতে হামেশাই ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এই রাসায়নিক পদার্থগুলি শুধু শিল্পকারখানায় ব্যবহারের জন্য অনুমোদিত। ২০০৬ সালের ফুড সেফটি অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ড অ্যাক্ট ফল পাকাতে ক্যালসিয়াম কার্বাইড-এর ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছিল।

কৃত্ৰিম উপায়ে কিংবা রাসায়নিক দ্ৰব্য প্ৰয়োগ করে পাকানো ফল খেলে ডায়েরিয়া এবং বমি হতে পারে। ক্যালসিয়াম কার্বাইড প্ৰয়োগে পাকানো ফল ঘন ঘন খেলে তা ক্যান্সারের মতো মারণ রোগ সৃষ্টি করার সম্ভাবনাও রয়েছে।

ফ্যান্সি বাজার থেকে কৃত্ৰিম উপায়ে ফল পাকানোর দায়ে আটক পশ্চিমবঙ্গের দুই ব্যবসায়ী নিরঞ্জন রায় ও শেখ নুরুল ইসলামকে ফ্যান্সিবাজার পুলিশ ফাঁড়ির হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

Next Story