Begin typing your search above and press return to search.

নতুন রাজনৈতিক মঞ্চ ফেব্ৰুয়ারির পরে,তবে ক্যা বাতিলই আমাদের মূল লক্ষ্যঃ আসু

নতুন রাজনৈতিক মঞ্চ ফেব্ৰুয়ারির পরে,তবে ক্যা বাতিলই আমাদের মূল লক্ষ্যঃ আসু

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  17 Jan 2020 8:01 AM GMT

গুয়াহাটিঃ সারা অসম ছাত্ৰ সংস্থা(আসু)বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন(ক্যা)বাতিলের প্ৰয়োজনীয়তার প্ৰতি গোড়া থেকেই গুরুত্ব আরোপ করে এসেছে। এদিকে অসমে একটা বিকল্প রাজনৈতিক মঞ্চ গঠনে জনগণের তরফ থেকে যে দাবি উঠেছে রাজ্যের প্ৰভাবশালী ছাত্ৰ সংগঠনটি সেই বিষয়টিকেও গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে। এই বিকল্প রাজনৈতিক মঞ্চ কি ধরনের হবে এবং কিভাবে এই মঞ্চ কাজ করবে সেই সিদ্ধান্ত নেবেন জনগণই। আগামি ফেব্ৰুয়ারি মাসের পরই নতুন রাজনৈতিক মঞ্চ গড়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আসুর সভাপতি দীপাঙ্ক কুমার নাথ বৃহস্পতিবার এখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় একথা জানান।

তিনি বলেন,‘অসমের মানুষ তাদের অস্তিত্ব,ভূমি এবং সংস্কৃতি সুরক্ষায় একটা বিকল্প রাজনৈতিক মঞ্চের প্ৰয়োজনীয়তা অনুভব করছেন। বুদ্ধিজীবী ও শিল্পীসমাজ সহ ব্যাপক সংখ্যক মানুষ বিকল্প রাজনৈতিক মঞ্চ গড়ার প্ৰয়োজনীয়তার কথা ইতিমধ্যেই আমাদের জানিয়েছেন’। ‘আমরা বিশ্বাস করি এধরনের শক্তিশালী একটা রাজনৈতিক মঞ্চই কেন্দ্ৰীয় সরকারকে চ্যালেঞ্জ জানাতে সক্ষম হবে’।

আসুর সাধারণ সম্পাদক লুরিনজ্যোতি গগৈ উল্লেখ করেন যে জনগণের রায়কে এগিয়ে নেওয়ার দায়িত্ব আসু এবং সমস্ত সমভাবাপন্ন সংগঠনগুলির। ‘বর্তমান সময়ে একটা বিকল্প রাজনৈতিক মঞ্চ গড়ার প্ৰয়োজন রয়েছে। কারণ বর্তমানে থাকা রাজনৈতিক দল বিজেপি,কংগ্ৰেস,অগপ অথবা অন্যান্যদের দিয়ে ইপ্সিত লক্ষ্য পূরণ হবে না। কারণ এই দলগুলোর হাবভাব অন্য কথাই বলছে। তাই সময়ের আহ্বানে আমাদের সাড়া দিতে হবে। নতুন রাজনৈতিক মঞ্চ গড়ার বিষয়টি নিয়ে সংগঠনের জেলা ও রাজ্য পর্যায়ের সম্মেলনে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে আলোচনা করা হবে’-জানান গগৈ।

তবে আসু নেতা স্পষ্টীকরণ দিয়ে বলেন,‘রাজনৈতিক মঞ্চ গড়া আসুর প্ৰধান লক্ষ্য নয়। আসুর প্ৰাথমিক লক্ষ্য হচ্ছে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন(ক্যা)বাতিল করা। তবে আমরা ক্যা-র বিরুদ্ধে আইনি লড়াই অবশ্যই চালিয়ে যাবো’।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল(ক্যা)এবং এর পরে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাস হওয়ার পর থেকে অসমে বিকল্প রাজনৈতিক মঞ্চ গড়ার দাবি জোরদার হয়ে ওঠে। সরকার ক্যা রূপায়ণে গো ধরে থাকায় এবং ব্যাপক সংখ্যক মানুষের আন্দোলনের প্ৰতি গুরুত্ব না দেওয়ায় একটা উপযুক্ত বিকল্প রাজনৈতিক মঞ্চ গড়া নিয়ে গোটা রাজ্যেই বিতর্ক ও চর্চা চলছে।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ এনডিএফবি(এস)-কে শান্তি আলোচনায় ডাকার কেন্দ্ৰীয় প্ৰস্তাবকে স্বাগত জানালো আবসু

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Watch Bhogali Bihu preparation from Guwahati ahead 'Uruka' (Night before Magh Bihu)

Next Story