Top
Begin typing your search above and press return to search.

গণপ্ৰহারে নিহত অভিজিৎ-নীলোৎপলকে মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণ,বিচার এখনও ঝুলছে

গণপ্ৰহারে নিহত অভিজিৎ-নীলোৎপলকে মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণ,বিচার এখনও ঝুলছে

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  8 Jun 2019 11:04 AM GMT

গুয়াহাটিঃ অভিজিৎ নাথ ও নীলোৎপল দাসের মৃত্যুর আজ পুরো এক বছর পূর্ণ হলো। একদল উন্মত্ত জনতা দুই তরতাজা যুবক অভিজিৎ ও নীলোৎপলকে গণপিটুনিতে নৃশংসভাবে হত্যা করেছিল। কিছু অশিক্ষিত,বর্বর ও পাষণ্ড লোকের অন্ধবিশ্বাসের বলি হতে হয়েছিল অভিজিৎ ও নীলোৎপলকে। অসমের ইতিহাসে গণপিটুনির এই ঘটনা চিরকাল কলঙ্কিত অধ্যায় হয়ে থাকবে। গুয়াহাটির উদীয়মান দুই তরুণ শিল্পীর এই নারকীয় হত্যাকাণ্ড গোটা রাজ্যকে নাড়িয়ে দিয়েছিল। শুভ বুদ্ধিসম্পন্ন প্ৰতিজন মানুষ ধিক্কার জানিয়েছিলেন এই বর্বরোচিত ঘটনার। যে অভিভাবকরা তাঁদের প্ৰাণের টুকরোকে হারিয়েছেন,ঘটনার বছর পূর্ণ হওয়ার পরও তাঁরা ন্যায় পাননি। প্ৰত্যেকেই এই ঘটনার বিচার চেয়ে দোষীদের কঠোর শাস্তি দেওয়ার দাবি জানিয়েছিলেন। কিন্তু বিচারের বাণী আজও নীরবে নিভৃতে কাঁদছে।

অভি-নীল হত্যাকাণ্ড মামলার বিচার প্ৰক্ৰিয়া চলছে নগাঁও কোর্টে। গণপিটুনির শিকার অভিজিৎ ও নীলোৎপলের অভিভাবকরা প্ৰকৃত দোষীর উপযুক্ত শাস্তির দাবিতে আজও আশায় পথ চেয়ে আছেন।

অভি-নীল স্মৃতিরক্ষা সমিতি উভয়ের প্ৰতি শ্ৰদ্ধা জানাতে আজ শিলপুখুরির রাজহুয়া নামঘরে এক স্মরণ সভার আয়োজন করে।

উল্লেখ্য,২০১৮ সালের ৮ জুন গুয়াহাটির উদীয়মান তরুণ শিল্পী অভিজিৎ ও নীলৎপল প্ৰকৃতির নান্দনিক রূপ চাক্ষুষ করতে কার্বি আংলঙের ডকমোকায় গিয়েছিল। কিন্তু ওই দিনে ওখানে যে তাদের জন্য মৃত্যুর ফাঁদ পাতা ছিল তাঁরা কী করে জানবে। অশিক্ষিত,অন্ধবিশ্বাসী ও কুসংস্কারাচ্ছন্ন একদল লোক তাঁদের ওপর চড়াও হয়। বার বার প্ৰাণ ভিক্ষা চেয়েও সভ্য জগতের কলঙ্ক ওই মানুষগুলোর হৃদয়ে এতটুকু দয়া হলো না। মিডিয়ায় ছেলেধরার একটা ভুয়া খবর চাউর হওয়ায় ক্ৰোধাম্মত্ত বর্বররূপী মানুষগুলোর মাথায় তা চেপে বসে। ছেলেধরা সন্দেহে উম্মত্ত পাষন্ডরা সম্পূর্ণ নির্দোষী অভি-নীলের ওপর লাগাতার গণপ্ৰহার করে নিষ্ঠুরভাবে তাঁদের হত্যা করে।

এই হৃদয় বিদারক ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই সারা রাজ্যে ভয়,আতঙ্ক দেখা দেয়। শোকে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন সর্বস্তরের মানুষ।

এতবড় এটা ঘটনা অভি-নীলের মৃত্যুর বছর পরও রাজ্যের একাংশ মানুষ যে কোনও শিক্ষা নিতে পারেননি তারই প্ৰমাণ তিনসুকিয়ার বাগানে মা ও ছেলেকে গণপিটুনিতে হত্যার ঘটনা। তারা নিজের হাতে আইন তুলে নিচ্ছেন প্ৰশাসন থাকা সত্ত্বেও।

Next Story