Begin typing your search above and press return to search.

এনআরসির অতিরিক্ত খসড়া প্ৰকাশ ঘিরে রাজ্যে ঢেলে সাজানো হচ্ছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা

এনআরসির অতিরিক্ত খসড়া প্ৰকাশ ঘিরে রাজ্যে ঢেলে সাজানো হচ্ছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  30 May 2019 11:50 AM GMT

গুয়াহাটিঃ আগামি ১৫ জুন রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জির(এনআরসি)প্ৰস্তাবিত অতিরিক্ত খসড়া প্ৰকাশকে কেন্দ্ৰ করে কী ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্ৰহণ করা হবে তার জন্য এখন পুরোদস্তর প্ৰস্তুত রাজ্য। ৩১ জুলাই প্ৰকাশিত হবে এনআরসির চূড়ান্ত খসড়া। গৃহ বিভাগের পদস্থ কর্তা এবং রাজ্য পুলিশ সারা রাজ্যের নিরাপত্তা ব্যবস্থার বিষয়টি ইতিমধ্যেই পর্যালোচনা করেছে। এব্যাপারে একটি পরিকল্পনাও ইতিমধ্যে প্ৰস্তুত করা হয়েছে। সূত্ৰটি একথা জানিয়ে বলেছে,প্ৰয়োজন ভিত্তিতে নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করা হবে। ইতিমধ্যেই স্পর্শকাতর চিহ্নিত এলাকাগুলিতে বিশেষ ভাবে আলোকপাত করার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। নির্বাচনের জন্য কেন্দ্ৰীয় সশস্ত্ৰ পুলিশ বাহিনীর(সিএপিএফ)যে সব কোম্পানি ভিন্ন রাজ্যে চলে গিয়েছিল তাদের অধিকাংশই রাজ্যে ফিরে এসেছে। সশস্ত্ৰ বাহিনীর বাকি যে কোম্পানিগুলি এখনও ফেরেনি,তারা ১৫ জুনের আগেই রাজ্যে এসে পৌঁছবে-উল্লেখ করেছে সূত্ৰটি।

২০১৮ সালের ৩০ জুলাইয়ে প্ৰকাশিত সম্পূর্ণ খসড়ায় যাদের নাম উঠেছিল এবং পরে এনআরসি কর্তৃপক্ষের একতরফা তদন্তের সময় যাদের নাম অযোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছিল এনআরসির খসড়ায় সেই সব আবেদনকারীদের নাম ১৫ জুন প্ৰকাশের অতিরিক্ত খসড়ায় ঠাঁই পাবে।

মোট ৩,২৯,৯১,৩৮৪ জন আবেদনকারীর মধ্যে এনআরসির সম্পূর্ণ খসড়ায় নাম উঠেছিল ২,৮৯,৮৩,৬৭৭ জনের। প্ৰকাশিত সম্পূর্ণ খসড়া থেকে বাদ পড়ে প্ৰায় ৪০.০৭ লক্ষ আবেদনকারীর নাম। এরমধ্যে ৩৬.২ লক্ষ মানুষ চূড়ান্ত এনআরসিতে নাম অন্তর্ভুক্তির ‘অযোগ্য’ উল্লেখ করে প্ৰায় দুই লক্ষ আপত্তি পত্ৰ জমা পড়েছে। এনআরসি কর্তৃপক্ষ বর্তমানে দাবি ও আপত্তি নিয়ে শুনানির কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

Next Story