Top
undefined
Begin typing your search above and press return to search.

অসমে লাম্পির স্কুলে মেঘালয় পুলিশের শিবির,বিধানসভায় শাসক-বিরোধীর তর্জা

অসমে লাম্পির স্কুলে মেঘালয় পুলিশের শিবির,বিধানসভায় শাসক-বিরোধীর তর্জা

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  12 March 2020 10:54 AM GMT

পড়শি রাজ্য মেঘালয়ের সঙ্গে থাকা দীর্ঘদিনের সীমা বিবাদের প্ৰসঙ্গটি বুধবার অসম বিধানসভায় আলোচনায় স্থান লাভ করে। সম্প্ৰতি মেঘালয় পুলিশ কামরূপ জেলার লাম্পি অঞ্চলের একটি প্ৰাথমিক বিদ্যালয় দখল করে শিবির স্থাপন করায় সীমান্তপারের এলাকায় উত্তেজনাপূর্ণ পরিবেশের সৃষ্টি হয়। অসম প্ৰশাসনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে মেঘালয় পুলিশ ওই স্কুলটি কব্জা করে রাখে। বুধবার বিষয়টি সদনে উত্থাপন করেন পশ্চিম গুয়াহাটি কেন্দ্ৰের অগপ বিধায়ক রমেন্দ্ৰ নারায়ণ কলিতা। সীমান্ত অঞ্চল উন্নয়নে রাজ্য সরকার গুরুত্ব না দেওয়ার ফলেই এমন সব ঘটনা ঘটায় ক্ষোভ প্ৰকাশ করেন বিধায়ক কলিতা। তিনি আরও বলেন মেঘালয় অসমের জমি দখল করে রেখেছে। বিধানসভায় জিরো আওয়ারে বিষয়টি উত্থাপন করে কলিতা সীমান্ত অঞ্চলের প্ৰতি সরকারের অবস্থানের সমালোচনা করার সঙ্গে সঙ্গে শাসক ও বিরোধী পক্ষের মধ্যে ইস্যুটি নিয়ে কিছুক্ষণ আলোচনা চলে। এর আগে কলিতা বলেছেন,অসম সরকার আন্তঃরাজ্য সীমান্ত অঞ্চল উন্নয়নের কাজ করতে পারছে না। এর কারণ সীমান্ত অঞ্চল উন্নয়নে প্ৰকল্প হাতে নিলে রাজ্যের বন বিভাগের তরফ থেকে বাধা আসে।

কিন্তু মেঘালয়ের ক্ষেত্ৰে এধরনের কোনও প্ৰতিবন্ধকতা নেই। এরই সুবাদে পড়শি রাজ্যটি অনেক স্থানে অসমের জমি দখল করেছে। অন্যদিকে,মেঘালয় সীমান্তে অসমের সীমান্ত পুলিশ ফাঁড়ি(বিওপি)না থাকায় পড়শি রাজ্যটি অসমের জমি দখলের সুযোগ পাচ্ছে বলে কলিতা মন্তব্য করেন। একইসঙ্গে সীমান্ত অঞ্চলে বসবাসকারী অসমের বাসিন্দাদের বনবাসী হিসেবে ঘোষণা করার দাবি জানান তিনি। এর মাধ্যমে সীমান্তপারের অঞ্চলগুলিতে উন্নয়নমূলক কাজ করা যাবে বলে মত পোষণ করে তিনি বলেন,এজাতীয় পদক্ষেপের মাধ্যমে মেঘালয়ের তরফে অসমের জমি বেদখল বন্ধ করা যাবে। বিষয়টি নিয়ে কলিতা কথা বলার সময় অধ্যক্ষ হিতেন্দ্ৰনাথ গোস্বামী তাঁকে বাধা দিয়ে বলেন,লাম্পির ওই বিবাদ পুরনো। তবে বিষয়টি পারস্পরিক সমঝোতার মাধ্যমে মিটমাট করা উচিত বলে মত পোষণ করেন অধ্যক্ষ।

অন্যদিকে,সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্ৰী চন্দ্ৰমোহন পাটোয়ারি বলেন,‘সীমান্তপারের রাজ্যগুলোর সঙ্গে অসমের সীমা বিবাদ লেগেই আছে। তবে লাম্পির সমস্যা শীঘ্ৰই সমাধান করা হবে বলে মন্তব্য করে পাটোয়ারি বলেন,লাম্পি ইস্যু নিয়ে ১৩ মার্চ কামরূপ ও মেঘালয়ের পশ্চিম গারো পাহাড় জেলার জেলাশাসকরা আলোচনায় বসছেন। গত বছর আমরা সীমান্তে একটা সীমান্ত পুলিশ ফাঁড়ি(বিওপি)স্থাপন করতে গেলে মেঘালয় বাধা দিয়েছিল’।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ আমি যতদিন ওখানে আছি বিপিএফ-ই সরকার গড়বেঃ হাগ্ৰামা

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: ‘Saragdeo Puja’ by Sonowal Kachari community observed in Moran

Next Story