Begin typing your search above and press return to search.

স্টার্টআপ ইন্ডিয়া স্কিমের ক্ষেত্ৰে অসম অত্যন্ত পছন্দের অভীষ্ঠ স্থানঃ জিতেন্দ্ৰ সিং

স্টার্টআপ ইন্ডিয়া স্কিমের ক্ষেত্ৰে অসম অত্যন্ত পছন্দের অভীষ্ঠ স্থানঃ জিতেন্দ্ৰ সিং

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  25 Feb 2020 1:01 PM GMT

গুয়াহাটিঃ স্টার্টআপ ইন্ডিয়া স্কিমের ক্ষেত্ৰে অসম ও উত্তর পূর্বাঞ্চল হচ্চ্হে অত্যন্ত পছন্দের অভীষ্ঠ ঠাঁই। ডোনার মন্ত্ৰী ড. জিতেন্দ্ৰ সিং সোমবার এই দাবি করেন। সোমবার সন্ধ্যায় আসাম অ্যাডমিনিস্ট্ৰেটিভ স্টাফ কলেজে তিনদিনের সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল(এসডিজি)সম্মেলন ২০২০-র উদ্বোধনী ভাষণে ড.সিং বলেন,তাঁর মন্ত্ৰক গুজরাট ও কর্নাটকের মতো রাজ্যগুলির তরুণ উদ্যোগীদের কাছ থেকে উত্তর পূর্বে স্টার্টআপ ইন্ডিয়া স্কিমের অধীনে উদ্যোগ স্থাপনের প্ৰস্তাব পেয়েছে। সিং আরও বলেন,স্টার্টআপ স্কিমের জন্য উত্তর পূর্বাঞ্চল হচ্ছে একমাত্ৰ পছন্দের অভীষ্ঠ স্থান। কাঁচা মাল এবং অন্যান্য সম্পদের সরবরাহ ভালো হলে দেশের অন্যান্য স্থানেও এধরনের স্টার্টআপ স্কিম শুরু করা যেতে পারে।

ডোনার মন্ত্ৰী বলেন,২০১৪ সালে বিজেপি যখন কেন্দ্ৰের ক্ষমতায় এসেছিল ওই সময় ভুল কারণ দেখিয়ে উত্তর পূর্বাঞ্চলকে সংবাদ শিরোনামে আনা হতো। ওই সময় বিভিন্ন ক্ষেত্ৰে উত্তর পূর্বাঞ্চল পিছিয়ে দিল। কিন্তু গত ছয় বছরে উত্তর পূর্বাঞ্চলের উন্নয়ন ও পরিবর্তনের খবর এখন পত্ৰপত্ৰিকার শিরোনাম পেতে দেখা যাচ্ছে। ‘গোটা উত্তর পূর্বাঞ্চলের জনসংখ্যা সারা ভারতের মোট জনসংখ্যার ৩ থেকে ৪ শতাংশ। রাজনৈতিক সমীকরণের দিক থেকে দেখতে গেলে দিল্লির ক্ষমতার রজনীতিতে এই অঞ্চল তেমন কোন অবদান রাখতে পারেনি। কিন্তু প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদির সরকার রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে এই অঞ্চলের প্ৰতি ন্যায় বিচার করার চেষ্টা করে যাচ্ছে। অথচ এর আগের কেন্দ্ৰীয় সরকারের শাসন জমানায় উত্তর পূর্বাঞ্চল তেমন গুরুত্বই পায়নি-উল্লেখ করেন সিং।

মন্ত্ৰী আরও বলেন,২০১৪ থেকে কেন্দ্ৰ উত্তর পূর্বাঞ্চলের জন্য বাজেট বরাদ্দের পরিমাণও বৃদ্ধি করেছে। তিনি আশ্বাস দিয়ে বলেন,উত্তর পূর্বাঞ্চলের উন্নয়নের সব বিষয়টি দেখবে ডোনার মন্ত্ৰক। যদি কোনও মন্ত্ৰকের পর্যাপ্ত স্কিম না থাকে তাহলে তাদের ওই তহবিল ডোনার মন্ত্ৰককে ডাইভার্ট করা উচিত-বলেন তিনি। নীতি আরোগ উত্তর পূর্ব পরিষদের(এনইসি),অসম সরকার,টাটা ট্ৰাস্ট,ইউএনডিপি এবং আরআইএস-এর সহযোগিতায় এসডিজি সম্মেলনটি আয়োজন করেছে। নীতি আয়োগের ভাইস চেয়ারম্যান ড.রাজীব কুমার বলেন,২০২০ সালে ভারতের এসডিজি টার্গেটের লক্ষ্যমাত্ৰায় পৌঁছতে উত্তর পূর্বাঞ্চল একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। তিনি উত্তর পূর্বের সব রাজ্যকে এসডিজি মনিটরিং ইউনিট স্থাপন করার আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সোনোয়াল গুয়াহাটিতে এসডিজি সম্মেলন আয়োজনের জন্য নীতি আয়োগকে ধন্যবাদ জানান।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ মত বিরোধ গণতন্ত্ৰের নির্যাস,কিন্তু রাষ্ট্ৰের বিরুদ্ধে বলা যাবে নাঃ এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: KMSS leaders to stage hunger strike inside jail premises from March 1

Next Story