Top
Begin typing your search above and press return to search.

করোনা হুমকির জন্য গুয়াহাটিতে রঙালি বিহুর অনুষ্ঠান বাতিল করল বিহু কমিটি

করোনা হুমকির জন্য গুয়াহাটিতে রঙালি বিহুর অনুষ্ঠান বাতিল করল বিহু কমিটি

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  21 March 2020 10:08 AM GMT

গুয়াহাটিঃ করোনা হুমকির জন্য বিহু কমিটি গুয়াহাটিতে রঙালি বিহুর অনুষ্ঠান বাতিল করে দিয়েছে। গুয়াহাটির ২৬টি বিহু কমিটির সমন্বয়রক্ষী কমিটি বর্তমান পরিস্থিতির প্ৰতি লক্ষ্য রেখেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ‘বড় ধরনের সমাবেশ এড়িয়ে চলতেই আমরা রঙালি বিহুর সমস্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বাতিল করেছি। কারণ,বিহুর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানগুলোতে দশ সহস্ৰাধিক মানুষের সমাবেশ লক্ষ্য করা যায়। তবে সম্ভব হলে সংক্ৰান্তির সকালে শুধু সামাজিক প্ৰথাগুলি পালন করা হবে। গুয়াহাটির লতাশিল বিহু কমিটির একজন কর্মকর্তা কৈলাশ শর্মা প্ৰচার মাধ্যমকে একথা জানান। মারণ জীবাণু করোনা বর্তমানে বিশ্বজুড়ে হুমকির সৃষ্টি করায় সরকার গণ সমাবেশ থেকে বিরত থাকতে জনগণের প্ৰতি আহ্বান জানিয়েছে।

অসমে এখনও পর্যন্ত নোভেল করোনা ভাইরাসের কোনও পজিটিভ কেস পাওয়া যায়নি। তবে ৬ এপ্ৰিল পর্যন্ত করোনা সংক্ৰমিত কোনও ব্যক্তি শনাক্ত না হলে রাজ্য ‘একপ্ৰকার নিরাপদ’ বলে ভাবা যেতে পারে।

শুক্ৰবার জনতা ভবনে এক সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্ৰী হিমন্তবিশ্ব শর্মা বলেছেন,রাজ্য বর্তমানে এক চরম সংকটের মধ্য দিয়ে চলছে এবং করোনার সম্ভাব্য সংক্ৰমণ প্ৰতিরোধে রাজ্য সরকার যতটা সম্ভব সতর্ক রয়েছে এবং প্ৰতিরোধমূলক ব্যবস্থাও গ্ৰহণ করেছে। তিনি বলেন,অনেক লোক রয়েছেন যারা এখন রাজ্যে ফিরেছেন। তাই এই সমস্ত লোকেদের স্বাস্থ্যের প্ৰতি কমপক্ষেও ১৪ দিন গভীরভাবে নজর রাখতে হবে।

ভারতে করোনায় আক্ৰান্ত হয়ে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে এবংসংক্ৰমণের সংখ্যা ২০০ ছাপিয়ে গেছে। কোভিড-১৯ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মহামারির রূপ নিয়েছে। এই মহামারিতে আক্ৰান্ত হয়েছে ভারতও। প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মোদি আগামি রবিবার অর্থাৎ ২২ মার্চ সকাল ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দেশবাসীকে ‘জনতা কার্ফু’ পালন করার আহ্বান জানিয়েছেন।জাতির উদ্দেশে এক ভাষণে মোদি বলেছেন ‘আমি দেশবাসীকে ২২ মার্চ জনতা কার্ফু পালন করার আবেদন জানাচ্ছি। এটা জনগণের কার্ফু। জনগণ যেন এই কার্ফু পালন করেন-অনুরোধ করেছেন প্ৰধানমন্ত্ৰী। ওই আহ্বানে মোদি বলেছেন,২২ মার্চের দিনটিতে জনগণ যেন পথে না বেরোন। কোনও সামাজিক আড্ডায় না নিয়ে বাড়িতেই থাকেন। ২২ মার্চ সন্ধ্যা ৫ টায় বাড়ির দরজার সামনে বা বারান্দায় দাঁড়িয়ে এই সংকটলগ্নে যে সমস্ত চিকিৎসক,নার্স,স্বাস্থ্যকর্মী এবং অন্যান্য মানুষের সেবায় দিনরাত কাজ করছেন শঙ্খ,ঘন্টা ধ্বনি করে ও হাত তালি দিয়ে তাদের প্ৰতি আন্তরিক শ্ৰদ্ধা জানাতে আহ্বান জানিয়েছেন প্ৰধানমন্ত্ৰী।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ করোনা প্ৰতিরোধে স্বাস্থ্য বিভাগের গৃহীত ব্যবস্থাবলি প্ৰকাশ মন্ত্ৰী হিমন্তের

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Veterinary College in Guwahati creates hand sanitizers to fight the shortage of Sanitizers in Assam

Next Story