Begin typing your search above and press return to search.

সন্ত্ৰাসের বিরুদ্ধে সমষ্টিগত ব্যবস্থা গ্ৰহণ অত্যন্ত জরুরিঃ মোদি

সন্ত্ৰাসের বিরুদ্ধে সমষ্টিগত ব্যবস্থা গ্ৰহণ অত্যন্ত জরুরিঃ মোদি

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  10 Jun 2019 8:04 AM GMT

কলম্বোঃ প্ৰধানমন্ত্ৰী নরেন্দ্ৰ মদি রবিবার শ্ৰীলংকার রাষ্ট্ৰপতি মাইথিরাপালা সিরিসেনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এই নিয়ে গত ১০ দিনের মধ্যে এটা উভয় রাষ্ট্ৰনেতার দ্বিতীয় সাক্ষাৎ। সন্ত্ৰাসবাদ যে একটা ‘যৌথ হুমকি’ সে ব্যাপারে উভয় নেতা সহমত পোষণ করেন। সন্ত্ৰাসবাদের শিকড় উপড়ে ফেলতে সমষ্টিগতভাবে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্ৰহণের প্ৰয়োজনীয়তার ওপর আলোকপাত করেন দুজনেই। এরআগে গত সপ্তাহ নয়া দিল্লিতে মোদির শপথগ্ৰহণ অনুষ্ঠানে উভয়ের মধ্যে সাক্ষাৎ হয়েছিল।

শ্ৰীলংকায় গত ২১ এপ্ৰিল সন্ত্ৰাসীদের ভয়ংকর হামলায় ২৫০-এরও বেশি লোকের মৃত্যু হয়েছিল। ওই ঘটনার পর দ্বীপরাষ্ট্ৰ সফরকারী প্ৰথম বিদেশি নেতা হলেন মোদি। ইসলামিক স্টেট শ্ৰীলংকায় মারণ আক্ৰমণের দায় স্বীকার করেছিল। পড়শি দেশটির এই সংকটের মুহূর্তে তাদের প্ৰতি একাত্মতা প্ৰকাশ্য করতেই মোদির এই সফর বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে প্ৰধানমন্ত্ৰীর কার্যালয় মোদির এই সফরকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে বর্ণনা করেছে। পড়শি দেশটির প্ৰতি বন্ধুত্বের বন্ধন আরও শক্তিশালী করাই মোদির এই সফরের উদ্দেশ্য।

‘রাষ্ট্ৰপতি মাইথিরাপালা সিরিসেনার সঙ্গে আমাদের এটা দ্বিতীয় বৈঠক। সন্ত্ৰাসের বিরুদ্ধে যৌথভাবে লড়াই চালাত আমি ও সিরিসেনা একমত। সন্ত্ৰাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের প্ৰতিশ্ৰুতির কথা ফের উল্লেখ করে মোদি বলেন,এব্যাপারে শ্ৰীলংকা আমাদের পাশে থাকবে। নিরাপত্তা ও সমৃদ্ধশালী একটা ভবিষ্যৎ গড়ার লক্ষ্যে দুই রাষ্ট্ৰ হাতে হাত মিলিয়ে চলবে’-বৈঠক শেষে এক টুইটে মোদি একথা বলেন।

শ্ৰীলংকার প্ৰধানমন্ত্ৰী রনিল উইকরেমাসিংঘে এবং বিরোধী নেতা মহিন্দা রাজাপাকসার সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন মোদি দ্বীপভূমিতে তাঁর এই সংক্ষিপ্ত সফরকালে। মালদ্বীপ থেকে মোদি সরাসরি কলম্বোতে গিয়ে পৌঁছেন। গত ২১ এপ্ৰিল কলম্বোর সেন্ট অ্যান্টনি চার্চে জঙ্গিরা যে মারণ আক্ৰমণ চালিয়েছিল,মোদি সেই স্থানটি পরিদর্শন করেন।

‘আমি দৃঢ় বিশ্বাসী শ্ৰীলংকা আবার স্বমহিমায় উঠে দাঁড়াবে। সন্ত্ৰাসীদের কাপুরুষোচিত কার্যকলাপ শ্ৰীলংকার মনোবল ও গতিকে কখনোই পরাস্ত করতে পারবে না। ভারত শ্ৰীলংকার সাধারণ মানুষের পাশে রয়েছে। জঙ্গি আক্ৰমণে হতাহতের পরিবারের প্ৰতি আমার আন্তরিক সহানুভূতি রয়েছে’। পরে এক টুইটে উল্লেখ করেন মোদি।

দেশে ফেরার আগে প্ৰধানমন্ত্ৰী ইন্ডিয়া হাউসে ভারতীয় সম্প্ৰদায়ের প্ৰতিনিধিদের সঙ্গে একপ্ৰস্থ বৈঠকে মিলিত হন’। দুদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক শক্তিশালী করতে প্ৰবাসী ভারতীয়রা যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন মোদি তার প্ৰশংসা করেন।

Next Story