রাজ্যের খবর

২০২০ সালে ব্ৰহ্মপুত্ৰের উপর হচ্ছে দেশের দীর্ঘতম সেতু

ব্ৰহ্মপুত্ৰে
ব্ৰহ্মপুত্ৰে

গুয়াহাটিঃ ভারতে কোনও নদীর ওপর দীর্ঘতম সেতু হচ্ছে অসমে,২০২০ সালের শেষাশেষি। প্ৰত্যাশা মতো যদি সব কাজ ঠিকঠাক এগোয় তাহলে ব্ৰহ্মপুত্ৰের উপর দুই/চারলেনের সেতুটি অসম ও মেঘালয়ের মধ্যে যোগাযোগের ক্ষেত্ৰে বহু প্ৰতীক্ষিত আশা পূরণ করবে। ন্যাশনাল হাইওয়েজ অ্যান্ড ইনফ্ৰাস্টাকচার ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন লিমিটেডকে(এনএইচআইডিসিএল)প্ৰকল্প রূপায়ণের দায়িত্ব দেওয়া হবে।

বর্তমানে দেশের দীর্ঘতম সেতু হচ্ছে ধলা-শদিয়া সেতু,যার নামকরণ করা হয়েছে ড.ভূপেন হাজরিকার নামে। এই সেতুর দৈর্ঘ্য হচ্ছে ৯.১৫ কিলোমিটার। অসমে লোহিত নদীর উপর নির্মাণ করা হয়েছে এই সেতু। ওদিকে পাটনায় গঙ্গার উপরও একটি বিশাল সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে। এই সেতুটির নির্মাণ সম্পূর্ণ হলে তা হবে দেশের দীর্ঘতম সেতু।

অন্যদিকে,পরবর্তী সময়ে ব্ৰহ্মপুত্ৰের উপর প্ৰস্তাবিত ১৯,২৮২ কিলমিটার সেতুটি গড়ে উঠলে তা হবে দেশের দীর্ঘতম সেতু। ব্ৰহ্মপুত্ৰের উপর প্ৰস্তাবিত এই সেতুটি উত্তর পারে ধুবড়ি এবং দক্ষিণ তীরে মেঘালয়ের ফুলবাড়ির সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করবে। ন্যাশনাল হাইওয়ে ১২৭বি স্পর্শ করবে সেতুটি। এই সেতু নির্মাণে আনুমানিক খরচের পরিমাণ ধার্য হয়েছে ৫ হাজার কোটি টাকা। জাপান ইন্টারন্যাশনাল কর্পোরেশন এজেন্সি(জেআইসিএ)সেতু নির্মাণের কাজ করবে।

এই সেতুর অ্যাপ্ৰোচেস সহ প্ৰকল্পটির বিস্তারিত প্ৰোজেক্ট রিপোর্ট(ডিপিআর)২০১৮ সালের ফেব্ৰুয়ারিতে চূড়ান্ত করা হয়েছে। সেতুর জন্য প্ৰাক টেন্ডার ডাকার কাজও সম্পূর্ণ করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। তথ্যাভিজ্ঞ মহলের মতে,এখন শুধু বাকি রয়েছে টেন্ডার প্ৰক্ৰিয়া। প্ৰধানমন্ত্ৰীর নেতৃত্বাধীন অর্থনৈতিক বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটি ২০১৯-এর ২৮ ফেব্ৰুয়ারি প্ৰকল্পটি অনুমোদন করেছে। এনএইচআইডিসিএল-এর এগজিকিউটইভ ডিরেক্টর(এনই)অজয় আলুওয়ালিয়া দ্য সেন্টিনেলকে বলেন,‘আশা করা হচ্ছে এ বছরের শেষদিকে টেন্ডার ডাকার কাজ করা হবে। কাজের বরাত চূড়ান্ত হওয়ার পর আগামি বছর থেকে কাজ শুরু হয়ে যাবে।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ গহপুর-নুমলিগড় চারলেন সড়কঃ ব্ৰহ্মপুত্ৰের উপর সেতু অথবা টানেল নির্মাণের প্ৰস্তাব

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: AJYCP forms Human Chain against NHPC at Gogamukh in Dhemaji | The Sentinel News | Assam News