Begin typing your search above and press return to search.

কেএমএসএস নেতা অখিল গগৈ-র গুয়াহাটির বাড়িতে তদন্তকারী সংস্থার তল্লাশি

কেএমএসএস নেতা অখিল গগৈ-র গুয়াহাটির বাড়িতে তদন্তকারী সংস্থার তল্লাশি

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  26 Dec 2019 11:34 AM GMT

গুয়াহাটিঃ রাষ্ট্ৰীয় তদন্তকারী সংস্থা(এনআইএ)আজ কৃষক নেতা এবং আরটিআই কর্মী অখিল গগৈর গুয়াহাটির বাড়িতে তল্লাশি চালায়। তদন্তকারী সংস্থার দলটি এদিন সকাল সাতটা নাগাদ গুয়াহাটির চান্দমারির নিজরাপারে অখিল গগৈর বাড়িতে এসে পৌঁছয়। তল্লাশি অভিযানকালে তদন্তকারী দলটি ন্যাশনাল হাইড্ৰোইলেকট্ৰিক পাওয়ার কর্পোরেশন লিমিটেডের(এনএইচপিসি)সম্পর্কিত কিছু নথিপত্ৰ বাজেয়াপ্ত করে। উল্লেখ্য,এই একই কোম্পানি সুবনশিরি জলবিদ্যুৎ প্ৰকল্প নির্মাণের কাজে জড়িত রয়েছে। অখিল গগৈ এই জলবিদ্যুৎ প্ৰকল্পের বিরোধিতা করে আসছেন।

তল্লাশি অভিযানকালে অখিল গগৈর পরিচয়পত্ৰ এবং ব্যাংকের অন্যান্য নথিপত্ৰও বাজেয়াপ্ত করা হয়। উল্লেখ্য,গগৈ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের(ক্যা)বিরুদ্ধে উজান অসমে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। অসম পুলিশ গত ১২ ডিসেম্বর গগৈকে যোরহাট থেকে গ্ৰেপ্তার করে এবং পরে তাঁকে রাষ্ট্ৰীয় তদন্তকারী সংস্থার(নিয়া)হাতে তুলে দেওয়া হয়। নিয়া কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মাধ্যমে অখিল গগৈকে বিশেষ আদালতে উপস্থাপন করার পর আদালত তাকে দশদিনের জন্য নিয়ার হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেয়। এদিকে আদালত গগৈর স্বাস্থ্যের নিয়মিত পরীক্ষা সুনিশ্চিত করতে এবং তার পরিবারের সদস্য ও আইনজীবীদের তাঁর সঙ্গে দেখা করার অনুমতি দিতে নিয়াকে নির্দেশ দিয়েছে।

আইনজীবী শান্তনু বরঠাকুর বলেছেন নিয়া গগৈকে ২০ দিনের জন্য তাদের হেফাজতে দেওয়ার আর্জি রেখেছিল। কিন্তু আদালত দশ দিনের হেফাজত মঞ্জুর করেছে।

ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারা এবং বেআইনি(কার্যকলাপ)প্ৰতিরোধ আইনে গগৈকে গ্ৰেপ্তার করা হয়। অখিল গগৈকে গত রাতে গুয়াহাটিতে উড়িয়ে আনা হয়।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ এইচপিসি কর্মীদের ৩১ জানুয়ারির মধ্যে কোয়ার্টার খালি করার নির্দেশ

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Christmas celebrated in Kokrajhar

Next Story