Top
Begin typing your search above and press return to search.

গৌরব গগৈ সহ সাত কংগ্ৰেস সাংসদকে সাসপেন্ড করলেন লোকসভার অধ্যক্ষ

গৌরব গগৈ সহ সাত কংগ্ৰেস সাংসদকে সাসপেন্ড করলেন লোকসভার অধ্যক্ষ

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  6 March 2020 11:33 AM GMT

নয়াদিল্লিঃ লোকসভার অধিবেশনে বাগড়া দেওয়ায় গৌরব গগৈ এবং অন্যান্য আরও ৬ জন কংগ্ৰেস সাংসদকে সাসপেন্ড করেছেন অধ্যক্ষ ওম বিড়লা। সংসদের মধ্যে হৈ-হট্টগোল,অধ্যক্ষের টেবিল থেকে কাগজপত্ৰ ছিনিয়ে নেওয়ার অভি্যোগে অধিবেশনের বাকি সময়ের জন্য এদের সাসপেন্ড করা হয়। অন্যান্য আরও যে ৬জন সাংসদ সাসপেন্ড হয়েছেন তাঁরা হলেন টিএম প্ৰথপন,ডিন কুরিয়াকোশ,উন্নিথান,গুরপ্ৰীত সিং আউজলা,বেনি বেহানান এবং মণিক্কম ঠাকুর। জানা গিয়েছে,কংগ্ৰেস সাংসদদের এহেন আচরণের বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য একটি প্যানেল গঠনের সুপারিশ অধ্যক্ষ গ্ৰহণ করেছেন।

সংসদ বিষয়ক মন্ত্ৰী প্ৰহ্লাদ যোশি বলেন,অধ্যক্ষের টেবিল থেকে কাগজপত্ৰ ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনা অধ্যক্ষের কুর্শির প্ৰতি চরম অবমাননার শামিল। যে সমস্ত সাংসদ অধ্যক্ষের টেবিল থেকে কাগজপত্ৰ ছিনিয়ে নিয়ছেন তাদের বরখাস্ত করা উচিত-বলেন যোশি।

ওদিকে,কংগ্ৰেস এই সিদ্ধান্তের জন্য অধ্যক্ষের কঠোর সমালোচনা করেছে। দলীয় সাংসদদের সাসপেন্ড করার বিরুদ্ধে প্ৰতিক্ৰিয়া ব্যক্ত করে কংগ্ৰেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন,‘আমরা ভুল কিছু করিনি’। ‘এটা আসলে সরকারের সিদ্ধান্ত,অধ্যক্ষের নয়। এটা কেমন ধরনের স্বৈরাচার’? চৌধুরী আরও বলেন,কংগ্ৰেসকে দুর্বল করার লক্ষ্যেই দলের সাংসদদের সাসপেন্ড করা হয়েছে। কারণ দিল্লির দাঙ্গা নিয়ে সংসদের আলোচনা করতে ভয় পাচ্ছে সরকার-বলেন চৌধুরী। গত ২ মার্চ সংসদের বাজেটে অধিবেশন শুরু হওয়ার পর থেকেই কংগ্ৰেস সাংসদরা সদনের কাজকর্মে বাগড়া দিয়ে আসছেন দিল্লির দাঙ্গা নিয়ে আলোচনার দাবিতে। কংগ্ৰেস দিল্লি দাঙ্গা দিয়ে স্বরাষ্ট্ৰমন্ত্ৰী অমিত শাহর পদত্যাগ দাবি করে শ্লোগানও দিয়েছে। কংগ্ৰেস সাংসদদের হট্টগোলে অধিবেশনের চতুর্থ দিনও উত্তপ্ত ছিল সদনের পরিবেশ,বৃহস্পতিবার দুপুরেই সভা মুলতুবি করে দেওয়া হয়।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ পিডব্লিউডি এখন থেকে সংখ্যা নয় গুণগত মানের দিকে দৃষ্টি দেবে,বললেন মন্ত্ৰী হিমন্ত

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Pending dues: Railway Contractors’ Body launched nationwide tool-down strike today

Next Story