Top
undefined
Begin typing your search above and press return to search.

ক্যা-র বিরুদ্ধে উত্তর পূর্বাঞ্চল এখনও একজোট রয়েছেঃ সমুজ্জ্বল ভট্টাচার্য

ক্যা-র বিরুদ্ধে উত্তর পূর্বাঞ্চল এখনও একজোট রয়েছেঃ সমুজ্জ্বল ভট্টাচার্য

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  1 March 2020 9:19 AM GMT

ডিব্ৰুগড়ঃ সারা অসম ছাত্ৰ সংস্থা(আসু)ও তাদের ডিব্ৰুগড় শাখা এবং অন্যান্য স্থানীয় সংগঠন নাগরিকত্ব(সংশোধনী)আইনের(ক্যা)বিরুদ্ধে শনিবার ডিব্ৰুগড়ের মিলননগরে সরকারি বালক হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলের খেলার মাঠে ‘জনতার অগ্নিকণ্ঠ’ কর্মসূচির আয়োজন করে। এ উপলক্ষে আয়োজিত বিশাল জনসমাবেশে ভাষণ দিতে গিয়ে আসুর সভাপতি দীপাঙ্ক কুমার নাথ বলেন,ক্যার জন্য অসম এক মারাত্মক হুমকির সম্মুখীন হয়েছে। আন্দোলন বানচাল করতে ক্যা বিরোধী আন্দোলনকারীদের ওপর আইন প্ৰণয়নকারী সংস্থাগুলোর বিভিন্ন নির্যাতন চালানোর ওপরও আলোকপাত করেন তিনি। রাজ্যের খিলঞ্জিয়া মানুষের ওপর যে হুমকির সৃষ্টি হয়েছে সে ব্যাপারে তাঁদের প্ৰভাবিত করতে গিয়ে নাথ পড়শি রাজ্য ত্ৰিপুরার উদাহরণ টেনে আনেন। বলেন,ত্ৰিপুরার ভূমিপুত্ৰ ত্ৰিপুরীরা তাদের জমি হারিয়েছে। নিজেদের ককবরক ভাষার মর্যাদাও তারা খুইয়েছে বাংলাদেশ থেকে আসা বাঙালি অনুপ্ৰবেশকারীদের জন্য।

সমাবেশে আসুর মুখ্য উপদেষ্টা সমুজ্জ্বল কুমার ভট্টাচার্য বলেন,ক্যার বিরুদ্ধে আন্দোলন পথভ্ৰষ্ট হয়নি,ফিকেও হয়নি। আন্দোলনরত ছাত্ৰদের পড়াশোনায় যাতে বিঘ্ন না ঘটে এবং বর্তমানে বিভিন্ন স্কুল,কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা চলার জন্য সাময়িকভাবে আন্দোলনে ঢিলে দেওয়া হয়েছে। তবে ক্যা-র বিরুদ্ধে গণতান্ত্ৰিক আন্দোলন এগিয়ে নিতে এবং তা কিভাবে দীর্ঘমেয়াদি করা যায় সেই উদ্দেশ্যে তিনি জনগণের পরামর্শ চান।

ভট্টাচার্য বলেন,দেশের বিভিন্ন প্ৰান্তে ক্যার বিরুদ্ধে আন্দোলন হিংসাত্মক মোড় নিয়েছে। কিন্তু অসমে আন্দোলন হচ্ছে শান্তিপূর্ণ ও সুশৃঙ্খলভাবে। ক্যা ইস্যু নিয়ে কেন্দ্ৰ ও রাজ্য সরকার উত্তর পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলির মধ্যে বিভাজন সৃষ্টির চেষ্টা চালানোয় তিনি তাদের সমালোচনা করেন। ভট্টচার্য আস্থার সঙ্গে বলেন,সরকারের বিভাজন সৃষ্টির এসব চেষ্টা সত্ত্বেও এই অঞ্চল ক্যা-র বিরুদ্ধে এখনও সম্পূর্ণ ঐক্যবদ্ধ রয়েছে। তিনি অভি্যোগ করেন,সরকার ক্যা আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে দমন,পীড়ন ও বিভাজনের নীতি গ্ৰহণ করেছে। আসুর সাধারণ সম্পাদক লুরিনজ্যোতি গগৈ-ক্যা নিয়ে একই উৎকণ্ঠা ব্যক্ত করে বলেন,জাতিধ্বংসী এই আইন প্ৰত্যাহার না হওয়া অবধি তাঁদের আন্দোলন চলবে। ৭১ এর পরে আসা কাউকেই অসমে স্থান দেওয়া হবে না তা সে হিন্দু অথবা মুসলিম যেই হোক না কেন। এই আইনের বিরুদ্ধে দাঁতে দাঁত চেপে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি। প্ৰতিবাদ সমাবেশে অসম জাতীয়তাবাদী যুব ছাত্ৰ পরিষদের সভাপতি উদয়ন কুমার গগৈও এরআগে বক্তব্য রাখেন।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ তেজপুরে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে গ্ৰেপ্তার পূর্ত বিভাগের ইঞ্জিনিয়ার

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Web portal journo arrested for allegedly misbehaving with on-duty police officer in Lumding

Next Story