৩৯ ও ৩৬নং রাষ্ট্ৰীয় সড়ক মরণফাঁদের রূপ নিয়েছে

৩৯ ও ৩৬নং রাষ্ট্ৰীয় সড়ক মরণফাঁদের রূপ নিয়েছে

বোকাজানঃ ব্যস্ততম ৩৯নং রাষ্ট্ৰীয় সড়ক এবং ৩৬নং রাষ্ট্ৰীয় সড়কের প্ৰায় ৪০ কিলোমিটার এলাকা বর্তমানে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। দুটো পথই রূপ নিয়েছে মরণফাঁদের। নামবর সংরক্ষিত বনাঞ্চল হয়ে বোকাজানের বুক দিয়ে চলে গেছে ৩৯নং রাষ্ট্ৰীয় সড়কটি। অন্যদিকে ৩৬নং রাষ্ট্ৰীয় সড়কটি কার্বি আংলং জেলার ডকমোকা ও মানজা হয়ে নাগাল্যান্ড ও মণিপুরের সঙ্গে যোগাযোগের প্ৰধান মাধ্যম। পথের এই এলাকাটি এশিয়ান হাইওয়ে ১(এএইচ ১)-এর অংশ। মায়ানমার হয়ে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষাকারী ভারতের প্ৰবেশ পথ হিসেবে কাজ করছে এই সড়কটি। নামবর সংরক্ষিত বনাঞ্চল এবং অসম-নাগাল্যান্ড সীমান্ত বরাবর পথের ৬০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিভিন্ন স্থানে বড় বড় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। রাস্তার এই শোচনীয় অবস্থা জীবন ও সম্পত্তির ক্ষেত্ৰে গুরুতর হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

৩৬নং রাষ্ট্ৰীয় সড়ক যা কার্বি আংলং জেলার ডকমোকা ও মানজা হয়ে নাগাল্যান্ড ও মণিপুরের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করছে। কিন্তু এই পথের ৪০ কিলোমিটার এলাকা পড়েছে আন্তঃরাজ্য সীমান্তের মানজা ও পুরানা লাহরিজান বরাবর। মেরামতির অভাবে পথের এই অংশের অবস্থা দিন দিনই চলাচলের অনুপযুক্ত হয়ে পড়ছে। সামান্য বৃষ্টি হলে পথের গর্তগুলোতে জল,কাদায় ভরে যায়। পণ্য পরিবাহী ট্ৰাকগুলি প্ৰায়ই এই পথে উল্টে যাওয়ায় যানবাহন চলাচলে অচলাবস্থা সৃষ্টি করে। রাষ্ট্ৰীয় সড়ক দুটোর খানাখন্দে ভরা ওই স্থানগুলিতে প্ৰায়ই ঘটছে অন্যান্য দুর্ঘটনাও। নাম প্ৰকাশে অনিচ্ছুক জনৈক ব্যক্তি বলেন গত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে পথগুলি মেরামতির কোনও ব্যবস্থা করা হয়নি। পথ সারাইয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোনও নজরই নেই।

স্থানীয় মানুষ অবিলম্বে এই দুটো পথ সারাইয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আর্জি জানিয়েছেন।

logo
Sentinel Assam- Bengali
bengali.sentinelassam.com