Begin typing your search above and press return to search.

এনআরসিঃ আপত্তি নিয়ে শুরু হলো শুনানি

এনআরসিঃ আপত্তি নিয়ে শুরু হলো শুনানি

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  7 May 2019 9:23 AM GMT

গুয়াহাটিঃ রাজ্যে রাষ্ট্ৰীয় নাগরিক পঞ্জি(এনআরসি)নবায়ন প্ৰক্ৰিয়া বর্তমানে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ে পৌঁছেছে। এনআরসির সম্পূর্ণ খসড়ায় ভুল বশত কোনও নাম অন্তর্ভুক্তি নিয়ে ওঠা আপত্তি সম্পর্কে শুনানি পর্ব শুরু হয়েছে সোমবার থেকে। এনআরসিতে নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য আবেদন জানানো মোট ৩.২৯ কোটি মানুষের মধ্যে ৪০.০৭ লক্ষের নাম সম্পূর্ণ খসড়ায় ওঠেনি,যা প্ৰকাশিত হয়েছিল ২০১৮ সালের ৩০ জুলাই। নামছুট ৪০.০৭ লক্ষের মধ্যে ৩৬.২ লক্ষ মানুষ তাদের যোগ্যতা তুলে ধরে চূড়ান্ত এআরসিতে নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য ফের দাবি জানিয়েছেন। তাছাড়া এনআরসি-র সম্পূর্ণ খসড়ায় দুই লক্ষ লোকের নাম ভুলবশত অন্তর্ভুক্তির অভি্যোগে আপত্তিপত্ৰ জমা পড়েছে।

যারা এনআরসিতে নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য ফের দাবি জানিয়েছেন তাদের বিষয়টি নিয়ে ২০১৯-এর ১৫ ফেব্ৰুয়ারি থেকে শুনানি চলছে। তবে লোকসভা নির্বাচনের জন্য গত ১০ থেকে ২৪ এপ্ৰিল শুনানির কাজ ব্যাহত হয়। বর্তমানে পূর্ণ তৎপরতার সঙ্গে চলছে শুনানি।

এদিকে সম্পূর্ণ খসড়ায় নাম অন্তর্ভুক্তদের বিরুদ্ধে যে সব আপত্তি জমা পড়েছে তা নিয়ে সোমবার থেকে শুনানি শুরু হয়েছে। দাবিদারদের শুনানির ধরন ধারণের সঙ্গে আপত্তি শুনানির যথেষ্ট পার্থক্য রয়েছে। দাবির ক্ষেত্ৰে দাবিদারদের এনআরসিতে নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য শুনানি আধিকারিকের সামনে নিজের যোগ্যতা প্ৰমাণ করতে হবে নথিপত্ৰ সমেত। শুনানি আধিকারিককে দাবিদারদের যোগ্যতার বিষয়টি শুধু যাচাই করতে হবে।

কিন্তু আপত্তির ক্ষেত্ৰে শুনানি আধিকারিককে সম্পূর্ণ খসড়ায় নাম অন্তর্ভুক্ত ব্যক্তি এবং আপত্তিকারী উভয়েরই বয়ান শুনতে হবে। সম্পূর্ণ খসড়ায় নাম অন্তর্ভুক্ত দুলক্ষ মানুষের বিরুদ্ধে আপত্তিপত্ৰ জমা পড়েছে। এক্ষেত্ৰে শুনানি আধিকারিককে ওই দুই লক্ষ আপত্তিপত্ৰের শুনানি গ্ৰহণ করতে হবে নাম অন্তর্ভুক্ত ব্যক্তি ও আপত্তিকারীকে সামনে রেখে।

সূত্ৰটির মতে,শুনানির সময় যদি কোনও আপত্তিকারী অনুপস্থিত থাকেন সংশ্লিষ্ট শুনানি আধিকারিকের নথিপত্ৰ অনুপুঙ্খভাবে পরীক্ষা করে এধরনের মামলা নিষ্পত্তি করার ক্ষমতা থাকবে। যেহেতু সুপ্ৰিমকোর্ট গোড়া থেকেই এনআরসি ইস্যুটির তদারক করেছে সেইহেতু আগামি ৮ মের শুনানিকালে সুপ্ৰিমকোর্ট আপত্তি সংক্ৰান্ত মামলার নিষ্পত্তির জন্য প্ৰয়োজনীয় নির্দেশিকা জারি করতে পারে।

Next Story
সংবাদ শিরোনাম