Top
Begin typing your search above and press return to search.

শান্তিপুর শ্ল্যুইচগেট পুজো কমিটির থিম এবার রাজপ্ৰসাদ

শান্তিপুর শ্ল্যুইচগেট পুজো কমিটির থিম এবার রাজপ্ৰসাদ

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  25 Sep 2019 12:53 PM GMT

গুয়াহাটিঃ বিশ্বকর্মা পুজো দিন কয়েক আগে সম্পন্ন হয়েছে। এখন শারদীয় দুর্গোৎসব দ্বারে। মহানগরী এবং রাজ্যের অন্যান্য অঞ্চলগুলির কুমোর টুলিতে দিনরাত এক করে প্ৰতিমা গড়ছেন মৃৎশিল্পীরা। বসে নেই পুজো কমিটিগুলোও। দিকে দিকে চলছে মণ্ডপ গড়ার কাজ। শরতের আকাশে এখন আগমনির সুর। কাশফুলের দোলা আর শিউলি ঝরা সকালই জানান দিচ্ছে পুজো এসে গেছে। হাট বাজারগুলোতে জমছে খদ্দের ভিড়। দিন যত ঘনাচ্ছে ততই উন্মাদনা বাড়ছে মানুষের। বলতে গেলে মহানগরী এসময়ে পুজোর জ্বরে আক্ৰান্ত। গুয়াহাটির ফ্যান্সিবাজারেও এখন ধুম পড়েছে পুজোর কেনা কাটায়।

শহরের বিভিন্ন পুজো কমিটি লাখ লাখ টাকার বাজেট নিয়ে মণ্ডপ গড়ার কাজে নেমেছে। অসমে থিম পুজো নতুন কোনও কথা নয়। বিভিন্ন কমিটি একদিকে যেমন থিম পুজোর আয়োজনে মাথা ঘামাচ্ছে,তেমনি কেউ কেউ আবার সাবেকি পুজোর আয়োজনে ব্যস্ত। মোদ্দা কথায় কোনও পুজো কমিটির এখন বিন্দুমাত্ৰ ফুরসত নেই। সর্বত্ৰ নজরে আসছে শুধু ব্যস্ততা।

মহানগরীর শান্তিপুর শ্ল্যুইচগেট পুজো কমিটি এবার তাদের ২২তম দুর্গাপুজোর আয়োজন করছে। এই কমিটি প্ৰতি বছরই থিম পুজোর আয়োজন করে আসছে। এবারও তার ব্যতিক্ৰম নয়। এবার তাদের থিম হচ্ছে রাজকীয় নৌকো এবং প্ৰাসাদ রাজমহল তৈরি করা।

শ্ল্যুইচগেট পুজো কমিটি এবার পুজোর বাজেট নির্ধারণ করেছে ১৮ লাখ টাকা। কমিটি তাদের মণ্ডপে আহোম রাজাদের প্ৰতিকৃতি তুলে ধরার পরিকল্পনা এঁটেছে। পুজো মণ্ডপে নিরাপত্তা ব্যবস্থা অক্ষুণ্ণ রাখার জন্য খরচে কোনও খামতি রাখতে চায় না কমিটি। সেইহেতু স্বেচ্ছাসেবক,মহিলা পুলিশ,৩০ জন এনসিসি কাডেট,মহিলা নিরাপত্তা কর্মী ও হোমগার্ড মজুত রাখা হবে মণ্ডপে-জানান পুজো কমিটির একজন কর্মকর্তা। এছাড়া মণ্ডপ চত্বর ও আশপাশ এলাকায় বসানো হবে ১২টি সিসিটিভি ক্যামেরা।

কমিটির সিকিউরিটি ইনচার্জ দীপমণি দাস জানিয়েছেন, কলকাতার একজন মৃৎশিল্পী প্ৰতিমা গড়ার কাজে ব্যস্ত রয়েছেন। তিনি বলেন,বাঁশ দিয়ে মণ্ডপের পুরো কাঠামো নির্মাণ করা হচ্ছে। মণ্ডপ নির্মাণের কাজ ইতিমধ্যেই ৮০ শতাংশ সম্পূর্ণ হয়েছে। একইভাবে মহানগরী বিষ্ণুপুর,লাচিতনগর,ভাস্কর নগর,লখরা,মালিগাঁও সহ বৃহত্তর গুয়াহাটি মহানগরীর সর্বত্ৰ দ্ৰুতগতিতে এগিয়ে চলেছে মণ্ডপ নির্মাণের কাজ। কাঠামো গড়ে ওঠার পরপরই শুরু হবে মণ্ডপ সজ্জার কাজ। পাশাপাশি চলবে আলোক সজ্জা।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ হিন্দু বাঙালিদের নাম এনআরসিতে অন্তর্ভুক্তির দাবি এএবিওয়াইএসএফ-এর

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Irani Thieves chased and caught by two daring ladies in Nagaon | The Sentinel News | Assam News

Next Story