Top
Begin typing your search above and press return to search.

জনশক্তির অভাবে টলটলায়মান হয়ে পড়েছে পল্টনবাজার থানা

জনশক্তির অভাবে টলটলায়মান হয়ে পড়েছে পল্টনবাজার থানা

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  23 Sep 2019 12:12 PM GMT

গুয়াহাটিঃ গুয়াহাটির পল্টনবাজার থানায় ২০০৬ সাল থেকে ৪,৭১০ মামলা ঝুলে আছে। দীর্ঘদিন ধরে এই বিশাল সংখ্যক মামলা ঝুলে থাকায় বলতে গেলে থানার কাজকর্ম টলটলায়মান হয়ে পড়েছে। মহানগরী গুয়াহাটির ব্যস্ততম বাণিজ্যিক এলাকা পল্টন বাজার। প্ৰতিটি ঘটনার চটজলদি মোকাবিলায় এই থানায় সব রকমের ব্যবস্থা মজুত থাকা উচিত ছিল। কিন্তু সেটা আজ অবধি হতে দেখা যায়নি। পল্টন বাজার থানার এই স্থবিরতার অন্যতম কারণ হলো পর্যাপ্ত জনশক্তি বা ম্যানন পাওয়ারে অপ্ৰতুলতা।

একটি সূত্ৰের মতে,পল্টন বাজার থানায় বর্তমানে মাত্ৰ ১৪ জন কনস্টেবল রয়েছেন। অথচ এই থানায় কনস্টেবলের সেংশন পোস্ট হলো ৬৫। নায়েকের সেংশন পোস্ট দুটি থাকলেও কার্যত একজন নায়েক রয়েছেন। এছাড়া ইন্সপেক্টর ও সাব-ইন্সপেক্টরের সেংশন পদ ৮টি থাকলেও ইন্সপেক্টর আছেন একজন এবং সাব-ইন্সপেক্টর(এসআই)রয়েছেন ৪ জন।

সেংশন পোস্টের চেয়ে অনেক কম মাত্ৰ পাঁচ জন এএসআই এবং হাবিলদার রয়েছেন মাত্ৰ ৩ জন। অথচ হাবিলদারের সেংশন পোস্টের সংখ্যা হলো ৯। এই থানায় মহিলা পুলিশ কর্মী রয়েছেন মাত্ৰ দুজন। অথচ এক্ষেত্ৰে সেংশন পোস্ট রয়েছে ৫টি।

সূত্ৰটির মতে,এই থানা এলাকায় জালিয়াতি,চুরি,ছিনতাই ও মালপত্ৰ নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার মতো ঘটনা আকছারই ঘটতে দেখা যায়। গুয়াহাটি রেলওয়ে স্টেশনটিও রয়েছে এই এলাকায়। তাই এই থানায় বিভিন্ন মামলার ঘটনা নিত্যদিনই নথিভুক্ত হচ্ছে। নিষ্পত্তির অভাবে মামলার বহর দিনদিনই বৃদ্ধি পেতে দেখা যাচ্ছে।

এলাকাটি রেলওয়ে স্টেশনের গা ঘেঁষে থাকায় গভীর রাতেও এলাকাটিতে মানুষজনের আসা যাওয়া লেগেই থাকে। ফলে পল্টন বাজার থানার এক্তিয়ারে থাকা এলাকায় বিভিন্ন ধরনের ঘটনা ঘটছে প্ৰায় রোজই। তাছাড়া থানা চত্বরে পার্কিঙের সুষ্ঠু ব্যবস্থা না থাকাটাও সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বাজেয়াপ্ত করা বাইক ও অন্যান্য যানবাহনে থানার অঙ্গন ভরে আছে।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ কোকরাঝাড়ে হোটেলে এসপি রাজেন সিং-এর হাতে ম্যাজিস্ট্ৰেট নিগ্ৰহের অভিযোগ

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: 13 year old boy drowns in River Brahmaputra | The Sentinel News | Assam News

Next Story