Begin typing your search above and press return to search.

বন ও জৈববৈচিত্ৰ্য সংরক্ষণে অসম-ফ্ৰান্সের মধ্যে ৫০০ কোটি টাকার চুক্তি স্বাক্ষরিত

বন ও জৈববৈচিত্ৰ্য সংরক্ষণে অসম-ফ্ৰান্সের মধ্যে ৫০০ কোটি টাকার চুক্তি স্বাক্ষরিত

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  5 Nov 2019 10:42 AM GMT

গুয়াহাটিঃ কাজিরঙা রাষ্ট্ৰীয় উদ্যানে বন্যার সময় জীবজন্তুদের আশ্ৰয়ের জন্য কৃত্ৰিম উঁচু স্থান নির্মাণ করায় ফ্ৰান্স বন বিভাগের প্ৰশংসা করেছে। অসমের বনাঞ্চল ও জৈববৈচিত্ৰ্য সংরক্ষণে ফ্ৰান্স ৪০০ কোটি টাকা দিতে সম্মত হয়েছে।

ভারতে নিযুক্ত ফ্ৰান্সের রাষ্ট্ৰদূত এমানুয়েল লেনাইন সম্প্ৰতি ফ্ৰান্স ডেভেলপমেন্ট এজেন্সির সদস্যদের নিয়ে রাজ্যের পরিবেশ ও বন বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠকে এই অর্থ দেওয়ার কথা উল্লেখ করেন। আসাম প্ৰোজেক্ট ফর ফরেস্ট অ্যান্ড বায়োডাইভারসিটি কনজারভেশন(এপিএফবিসি)রূপায়ণের লক্ষ্যেই বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

রাজ্যের পরিবেশ ও বনমন্ত্ৰী পরিমল শুক্লবৈদ্য সোমবার সাংবাদিকদের বলেন,কাজিরঙা রাষ্ট্ৰীয় উদ্যানে ৩৩টি কৃত্ৰিম উঁচু স্থান নির্মাণ করায় চলতি বছরের বিধ্বংসী বন্যার সময় ব্যাপক সংখ্যক বন্য জীবজন্তুর প্ৰাণ বাঁচানো সম্ভব হয়েছে। তিনি আরও বলেন,এপিএফবিসি এই উঁচু স্থানগুলি নির্মাণ করেছে ফ্ৰান্স ডেভেলপমেন্ট এজেন্সি(এএফডি)ও রাজ্য সরকারের আর্থিক সহযোগিতায়। এএফডি এবং রাজ্য সরকার সোমবার ৫০ মিলিয়ন ইউরো প্ৰোজেক্ট চুক্তিতে(মোট বাজেট ৬২.৫ মিলিয়ন ইউরো)স্বাক্ষর করেছে। ফরেস্ট ইকোসিস্টেম এবং তার জৈববৈচিত্ৰ্য সংরক্ষণে রাজ্য সরকারের পদক্ষেপের প্ৰতি সমর্থন স্বরূপ এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করা হয়েছে।

এই চুক্তি অনু্যায়ী এপিএফবিসি-র দ্বিতীয় পর্যায়ের কাজ শুরু করা হবে। প্ৰকল্পের লক্ষ্য হচ্ছে অতিরিক্ত ১২ হাজার হেক্টর জমিতে নতুন করে বন সৃজন এবং জৈব বৈচিত্ৰ্য সংরক্ষণ।

এর আগে ২০১২ এবং ২০১৯ এর মধ্যে ২১ হাজার হেক্টর জমিতে নতুন করে বনানিকরণে এএফডি-র সমর্থনে এপিএফবিসি-র প্ৰথম পর্যায়ের কাজ রূপায়ণ করা হয়েছিল। বন্যা কবলিত জীবজন্তুদের বাঁচাতে নির্মাণ করা হয়েছিল ৩৩টি উঁচু স্থান। তাছাড়া স্থানীয় প্ৰায় ৬০০০ মানুষকে জীবন ধারণের বিকল্প ব্যবস্থার জন্য প্ৰশিক্ষণও দেওয়া হয়েছিল,বন বিভাগের ওপর তাঁদের নির্ভরতা হ্ৰাস করতে।

জনতা ভবনে ৫০ মিলিয়ন ইউরো প্ৰোজেক্ট চুক্তি স্বাক্ষরকালে মুখ্যমন্ত্ৰী সর্বানন্দ সোনোয়াল বলেন,তাঁর সরকার ১০০ মিলিয়ন গাছ রাজ্যে লাগানোর পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিল এবং এক্ষেত্ৰে সরকার উল্লেখযোগ্যভাবে সফলও হয়েছে। ভারতে নিযুক্ত ফ্ৰান্সের রাষ্ট্ৰদূত এমানুয়েল লেনাইন বলেন,অসমের সমৃদ্ধ প্ৰাকৃতিক ইকোসিস্টেম ও জৈব বৈচিত্ৰ্য সংরক্ষণ ও পুনরুদ্ধারে ভারত ও ফ্ৰান্সের প্ৰতিশ্ৰুতি অনু্যায়ী এই প্ৰকল্পের কাজ চালানো হচ্ছে।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ ক্যাব নিয়ে আসু ও বিজেপির মতামত পরস্পরবিরোধী

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Artists from China, Bangladesh & Thailand perform at South East Asia Cultural Meet in Jorhat

Next Story