Begin typing your search above and press return to search.

বলিউড গায়ক হিমেশ রেশমিয়ার ছবিতে কণ্ঠ দিলেন রানাঘাটের রানু মণ্ডল

বলিউড গায়ক হিমেশ রেশমিয়ার ছবিতে কণ্ঠ দিলেন রানাঘাটের রানু মণ্ডল

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  24 Aug 2019 7:07 AM GMT

বলিউড গায়ক হিমেশ রেশমিয়ার ছবিতে কণ্ঠ দান করলেন রানাঘাটের রানু মণ্ডল। পশ্চিমবঙ্গের রানাঘাটের রানু মণ্ডলকে আপনার নিশ্চয়ই মনে আছে। যিনি সোসিয়াল মিডিয়ার মাধ্যমে গান গেয়ে দেশের সর্বত্ৰ জনপ্ৰিয়তা অর্জন করেছেন। সেই রানু সম্প্ৰতি হিমেশ রেশমিয়ার একটি ছবিতে কণ্ঠ দান করে চর্চার শীর্ষে উঠে এসেছেন।

বলিউড গায়ক তথা সংগীত পরিচালক হিমেশ রেশমিয়া রানুর গাওয়া ভিডিওটি নিজের ইনস্টাগ্ৰাম অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন। ছোট্ট এই ভিডিওতে রানু তাঁর সুরেলা কণ্ঠ ও হৃদয়কে উজাড় করে দিয়েছেন। ভিডিওতে রানুকে প্ৰতিক্ষণে বিশেষভাবে উৎসাহিত করতে দেখা গেছে হিমেশকে।

রানু ‘তেরি মেরি কহানী’ নামে একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন। এদিকে ভিডিও গায়ক তথা পরিচালক হিমেশ ওই ভিডিওতে লিখেছেন যে ‘যদি আপনার স্বপ্ন পূরণের সাধ থাকে তাহলে আমি সেই স্বপ্নকে সাকার করতে সাহা্য্য করবো। ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে জীবন পথে এগোলে স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবেই’।

অন্যদিকে রানু মণ্ডলের এই ভিডিওটি এক ঘণ্টায় ১ লক্ষ মানুষ প্ৰত্যক্ষ করেছেন। একজন ব্যক্তি বলেছেন,এই গান মানুষের মনে তুফান তুলবে।

উল্লেখ্য,পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানু মণ্ডল রানাঘাটের লতা নামে পরিচিত। ছোট বেলা থেকে গান ভালবাসতেন রানু। সুর সম্ৰাজ্ঞী লতা মঙ্গেশকরের অনুরাগী রানুর সম্প্ৰতি গাওয়া ‘এক প্যার কা নাগমা হ্যায়’ গানটি ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে পড়ে। আশ্চয্যজনকভেবে রানুর কণ্ঠে এই গান শুনেছেন প্ৰায় ১০ লক্ষ শ্ৰোতা।

এসম্পর্কে ২৬ বছর বয়সী ইঞ্জিনিয়ার অতীন্দ্ৰ চক্ৰবর্তী বলেছেন,প্ৰথমবার আমি রানাঘাট রেলস্টেশনে রানুর গলায় মহম্মদ রফির গান শুনেছিলাম। ‘আমি ৬নং প্ল্যাটফর্মে বন্ধুদের সঙ্গে বসেছিলাম। ওই সময় রেডিওতে রফির একটি গান বাজছিল। তখনই শুনতে পাই একজন মহিলা গান ধরেছেন। আমি সামনে গিয়ে জানতে চাইলাম তিনি আমাদের জন্য কিছু গাইবেন কি? এরপরই রানু মণ্ডল আমাদের জন্য একটা গান গাইলেন। আমার সঙ্গে থাকা বন্ধুরা ওই সুরেলা কণ্ঠ শুনে মোহিত হয়ে পড়েন।

রানুর ওই সময়ের গাওয়া গানটি মোবাইলে রেকর্ড করে রেখেছিলেন চক্ৰবর্তী। সেদিন বিকেলে চক্ৰবর্তী ও তার বন্ধুরা রানুর কণ্ঠে বেশকটি পুরনো গান শোনেন। রানুকে তারা কিছু খেতেও দেন। কারণ রানুর ঘরের অবস্থা ভাল ছিল না। এর দুদিন পরই অর্থাৎ ২৩ জুলাই অতীন্দ্ৰ চক্ৰবর্তী রানুর গান রেকর্ড করে রাখা ভিডিওটি ফেসবুকে পোস্ট করেন। ফেসবুকে ভিডিওটি পোস্ট করার পর স্টেশনে গান গেয়ে বেড়ানো রানু মণ্ডল এখন ইতিহাস।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ সুষমা স্বরাজের মৃত্যুতে টুইটে শোকবার্তা বলিউড শিল্পীদের

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Religious procession by Sikh community people arrives in Biswanath Chariali

Next Story