Begin typing your search above and press return to search.

বিরোধীদের প্ৰতিবাদের মধ্যেই ফের তিন তালাক বিল লোকসভায় পেশ

বিরোধীদের প্ৰতিবাদের মধ্যেই ফের তিন তালাক বিল লোকসভায় পেশ

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  22 Jun 2019 11:20 AM GMT

নয়াদিল্লিঃ মোদি সরকার শুক্ৰবার ফের তিন তালাক বিল লোকসভায় পেশ করলো। বিরোধী দলগুলি আগের বারের মতো এবারও এই বিলের বিরোধিতায় সোচ্চার হয়ে ওঠে। এই বিল মুসলিম পরিবারগুলির ক্ষতি করবে এবং এটা বৈষম্যমূলক অভিহিত করে বিলের সমালোচনা করে বিরোধীরা।

কেন্দ্ৰীয় আইনমন্ত্ৰী রবিশঙ্কর প্ৰসাদ তিন তালাক বিলটি লোকসভায় দেশ করে জানান,মুসলিম মহিলাদের বিয়ের অধিকার সুরক্ষিত রাখতেই সরকার নতুন ভাবে এই বিলটি পেশ করেছে। প্ৰসাদ বলেন,মুসলিম মহিলাদের অধিকার রক্ষায় বিরোধীরা সহযোগিতা করবে বলে তিনি আশা করেন।

বিরোধীরা বিলটি উত্থাপনের আগে রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে বিস্তারিত আলোচনার দাবি জানায়। এমনকি ভোটাভুটিরও দাবি তোলে।

এমআইএম নেতা আসাউদ্দিন ওয়েইসি বিলের বিরোধিতা করে বলেন,তিন তালাক বিল সংবিধান বিরোধী। তাঁর মতে,এই বিল মুসলিম মহিলাদের স্বার্থ কোনওভাবেই রক্ষা করতে পারবে না। ওয়েইসি সংবিধানের ১৪ ও ১৫ নং ধারা উল্লেখ করে বলেন,এই বিলের কোনও যৌক্তিকতাই নেই। তাঁর ধারণা এই বিলের মাধ্যমে কোনও মহিলাকে ন্যায় পাইয়ে দেওয়া সম্ভব নয়।

কিন্তু আইনমন্ত্ৰী প্ৰসাদ বিরোধীদের সমস্ত যুক্তি খন্ডন করে বলেন,এক্ষেত্ৰে ধর্মের বিষয়টি মূল কথা নয়। মহিলাদের অধিকার কী ভাবে সুরক্ষিত করা যায় সরকার সেটাই চাইছে। মহিলাদের মর্যাদা যাতে কোনও ভাবেই ক্ষুণ্ণ না হয় সরকার সেটাই চাইছে। তিনি আরও বলেন,এযাত্ৰায়ও বিরোধীরা বিলের বিরোধিতা করে সেই একই ভুল করছে। প্ৰসাদ আরও বলেন,বিলের বিরোধিতা করে সেই একই ভুল করছে তারা। আইনমন্ত্ৰী বলেন,মানুষ তিন তালাক বিলের পক্ষেই বিগত নির্বাচনে রায় দান করেছেন। নির্বাচনী ফলাফলে এটা স্পষ্ট হয়ে যাওয়ার পরও বিরোধী শিবিরের এই নেতিবাচক মনোভাব খুবই আশ্চর্যের।

প্ৰসাদ বলেন,মানুষ পূর্বের ঘটনা থেকে শিক্ষা নেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু বিরোধীরা সেই একই ভুলের পুনরাবৃত্তি চাইছে। দেশবাসী এটা কখনোই মেনে নেবেন না।

এরআগে বিল নিয়ে দুপক্ষের বিতর্ক চলাকালে লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা বলেন,সরকার যেহেতু বিলটি পেশ করার পক্ষে সওয়াল করছে সেইহেতু তিনি ভোটাভুটির নির্দেশ দেন। ভোটাভুটিতে বিলের পক্ষে সায় দেন ১৮৬ সাংসদ এবং বিপক্ষে ভোট পড়ে ৭৪টি। ফলে বিলটি লোকসভায় গৃহীত হয়। তৃণমূল কংগ্ৰেসের সাংসদরা এই বিল নিয়ে ভোটাভুটির সময় লোকসভায় অনুপস্থিত ছিলেন। কংগ্ৰেস সাংসদ শশী থারুর তিন তালাক বিলের বিরোধিতা করে বলেন,এই বিল এনে সরকার আসলে দেওয়ানি ও ফৌজদারি আইনের বিরুদ্ধাচরণ করেছে। এটা মানুষের সাংবিধানিক অধিকার ক্ষুণ্ণ করবে। তিনি বলেন,একটা সম্প্ৰদায়ের মহিলাকে সুরক্ষা দেওয়ার লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ প্ৰকৃতপক্ষে সংবিধান বিরোধী।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ লোকসভায় পাশ হল ঐতিহাসিক তিন তালাক বিল

Next Story