ন্যাশনাল

যুবককে ১৩৪ কোটি টাকা লেনদেনের নোটিশ আয়কর বিভাগের

আয়কর বিভাগ

 

ভূপালঃ আয়কর বিভাগের কাছ থেকে একটি নোটিশ পেয়ে রীতিমতো হতভম্ব হয়ে পড়েন মধ্যপ্ৰদেশের ভিন্ড জেলার ২৯ বছর বয়সী এক যুবক। যুবকটির নাম রবি গুপ্তা। ২০১১-১২ সালে রবি গুপ্তার প্যান নাম্বার দিয়ে মুম্বইয়ে খোলা হয়েছিল ওই বিজনেস অ্যাকাউন্ট। গুপ্তা কি করে ওই অ্যাকাউন্ট থেকে ১৩৪ কোটি টাকা লেনদেন করলেন নোটিশে তাকে তা ব্যাখ্যা করতে বলেছে আয়কর বিভাগ। এদিকে রবি গুপ্তা বলেছেন,ওই দিনগুলোতে তিনি মাত্ৰ ৭ হাজার টাকা বেতন পেতেন। কীভাবে ওই অ্যাকাউন্ট খোলা হলো সে সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না। তবে মনে করা হচ্ছে অবৈধভাবে আর্থিক লেনদেনের জন্যই এমন অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে। এর উপযুক্ত তদন্ত হওয়া উচিত বলে মনে করেন গুপ্তা।

তিনি বলেন,নিজস্বভাবে তদন্ত করে তার মনে হচ্ছে যে ফার্মটি এই আর্থিক লেনদেনে জড়িয়ে আছে তার সঙ্গে গুজরাটের পলাতক হিরে ব্যবসায়ী মেহুল চোকসি এবং তাঁর আত্মীয় নীরব মোদির সংযোগ থাকতে পারে যারা ১২,৭০০ কোটি টাকার পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক জালিয়াতির ঘটনায় অভিযুক্ত। গুপ্তা অভিযোগ করেন গুজরাট ভিত্তিক কোনও হিরে ব্যবসায়ী কোম্পানি এই লেনদেনে জড়িত থাকতে পারে।

একজন বরিষ্ঠ আইটি কর্মকর্তা বলেন,গুপ্তা এব্যাপারে নালিশ জনিয়ে তদন্তের দাবি জানাতে পারেন। ভিন্ডের মোহানার বাসিন্দা গুপ্তাকে বলা হয়েছে মুম্বইয়ের একটি বেসরকারি ব্যাংকে একটি কোম্পানির অ্যাকাউন্ট থেকে ওই ১৩৪ কোটি টাকা লেনদেন করা হয়েছে ২০১১-র ৯ সেপ্টেম্বর থেকে ২০১২-র ১৩ ফেব্ৰুয়ারির মধ্যে। এই কোম্পানির প্যান কার্ডটি গুপ্তার নামে।

‘এই আর্থিক লেনদেন যখন হয়েছিল তখন আমার বয়স ছিল ২১ বছর। ২০১১ অথবা ২০১২ সালে আমি মুম্বই বা গুজরাটে ছিলাম না। আমি ইন্দোরে একটা বেসরকারি ফার্মে কাজ করতাম ওই সময়। বেতন পেতাম মাত্ৰ ৭ হাজার টাকা। আমার ওই বেতন থেকে কর দেওয়ার কিছুই নেই’-গুপ্তা একথা  বলেন। আমি মধ্যপ্ৰদেশ সাইবার সেল,মহারাষ্ট্ৰ পুলিশ,পি এমও এবং  আইটি অফিসারদের এই ট্যাক্স রিকভারি কেস সম্পর্কে আমাকে পরিষ্কার করে জানাতে বলেছি’।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ সাভারকারের ছবি থাকা নোটবুক স্কুল ছাত্ৰদের মধ্যে বিতরণের জন্য মধ্যপ্ৰদেশে আধ্যক্ষ সাসপেন্ড

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Watch Bhogali Bihu preparation from Guwahati ahead ‘Uruka’ (Night before Magh Bihu)