Top
Begin typing your search above and press return to search.

সড়ক দুর্ঘটনায় আহতদের সাহায্য করে মানবতার নজির রাখলেন জুবিন

সড়ক দুর্ঘটনায় আহতদের সাহায্য করে মানবতার নজির রাখলেন জুবিন

Sentinel Digital DeskBy : Sentinel Digital Desk

  |  19 Jun 2019 1:21 PM GMT

গুয়াহাটিঃ মানবতা যে তাঁর প্ৰধান কর্তব্য তা আরও একবার প্ৰমাণ করলেন অসমে যুব প্ৰজন্মের হার্টথ্ৰব সংগীত শিল্পী জুবিন গার্গ। দুর্ঘটনাগ্ৰস্ত কোনও অসহায় আর্তের উদ্ধারে ঝাঁপিয়ে পড়তে বিন্দুমাত্ৰও বিচলিত নন তিনি। দুর্ঘটনাগ্ৰস্ত কোনও ব্যক্তিকে চোখের সামনে কাতরাতে দেখে জুবিন কখনোই ঠায়ে দাঁড়িয়ে থাকতে পারেন না। সাম্প্ৰতিক একটি ঘটনা তারই জ্বলন্ত প্ৰমাণ।

স্পষ্টভাষী জুবিন। মুখে যখন যা আসে অবলীলায় বলে ফেলেন কোনওরকম রাখঢাক না করে। বাইরের দিকটা একটু কঠিন মনে হলেও কিংবা সোজাসাপটা কথা বলে কখনও বা বিতর্ক পিছু তাড়া করলেও অসহায়,আর্তের উদ্ধারে তাঁর অন্তরে মানবতাবাদে যে কোনও খামনি নেই তা ফের প্ৰমাণিত হলো। কিছুদিন কাজিরঙার গন্ডার বাঁচাতে জুবিনকে আমরা পথে নামতে দেখেছি। জীবজন্তুর প্ৰতি যাঁর হৃদয়ে একটা স্নেহ,ভালবাসা রয়েছে,সেই মানুষটির মানবতাদের প্ৰতি আস্থা কোনও অংশেই কম হতে পারে না তা গোয়ালপাড়ার কাছে রংজুলির দুর্ঘটনা চোখে আঙুল দিয়ে বুঝিয়ে দেয়।

ঘটনার বিবরণে প্ৰকাশ,সম্প্ৰতি গোয়ালপাড়ার কাছে রংজুলিতে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সেরে গুয়াহাটি ফিরছিলেন। ফেরার পথে তাঁর নজরে আসে পথপাশে কয়েকজন আহত লোক আঘাতের যন্ত্ৰণায় কাতরাচ্ছে। যারা আর্তনাদ করছিলেন তাদের গাড়িটি দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে। এই দৃশ্য দেখা মাত্ৰাই জুবিন নিজের গাড়ি থামিয়ে ছুটে গেলেন দুর্ঘটনায় আহত লোকগুলির কাছে। আহতদের শরীর থেকে রক্ত ঝরছিল। সময় নষ্ট না করে জুবিন নিজেই নেমে পড়লেন আহতদের উদ্ধারে। রক্ত রাঙা আহতদের টানাহেঁচড়া করে তুললেন অ্যাম্বুলেন্সে।

দুর্ঘটনা এবং আহত যাত্ৰীদের উদ্ধারে জুবিনের এই প্ৰয়াসের পুরো ঘটনাটা বর্ণনা করেছেন শিল্পীর সহধর্মিণী গরিমা শইকিয়া গার্গ। ওই দিন গরিমাও জুবিনের সঙ্গেই ছিলেন। ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে গরিমা বলেন,বছর কয়েক আগে এরকমই এক ভয়ঙ্কর সড়ক দুর্ঘটনার মুখে পড়তে হয়েছিল জুবিনকে। ওই দুর্ঘটনায় জুবিনকে হারাতে হয়েছিল তার প্ৰিয় বোন জনকি এবং এক ঘনিষ্ঠ বন্ধুকে। গরিমা বলেন,‘সেদিনের সেই আতঙ্ক,শঙ্কা,ভয়ের ছাপ জুবিনের চোখ মুখে ভেসে ওঠা আমি অনুভব করেছি’। গরিমার কথা,দুর্ঘটনার এই দৃশ্য দেখার পর আমি হতভম্ব হয়ে পড়ি। কিন্তু এরই মধ্যে জুবিন বসে না থেকে দুর্ঘটনায় আহত মানুষগুলোর পাশে গিয়ে দাঁড়ায় এবং তাদের অ্যাম্বুলেন্সে তুলতে সাহা্য্যের হাত বাড়িয়ে দেয়।

গরিমা ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে আরও বলেন,দুর্ঘটনায় আহতরা কথা বলতে না পারলেও এইটুকু সাহা্য্যের জন্য তাঁরা যে জুবিনের প্ৰতি কতটা কৃতজ্ঞ তা আকারে ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দেন। আহতদের একজন তো তাঁর রক্তঝরা হাত দিয়ে জুবিনের হাত ধরে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন-উল্লেখ করেন গরিমা।

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ তিন মাসে গুয়াহাটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬৩

Next Story