ইন্টারন্যাশনাল

বাংলাদেশে দুটো ট্ৰেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১৫,আহত ৫০-এর বেশি

বাংলাদেশ

 

বাংলাদেশের পূর্ব-মধ্য ব্ৰাহ্মণবাড়িয়া জেলায় মঙ্গলবার শেষ রাত-৩.৩০ নাগাদ দুটো ট্ৰেনের মুখোমুখি সংঘর্ষে কমপক্ষে ১৫ জনের মৃত্যু হয়। আহত হন ৫০ জনেরও বেশি। সিলেট থেকে চট্টগ্ৰামগামী উদয়ন এক্সপ্ৰেস এবং ঢাকা গামী টারনা নিশিতার মধ্যে এই মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে জেলার মনডোভাগ রেল স্টেশনের কাছে। প্ৰচার মাধ্যমের রিপোর্টে একথা জানানো হয়েছে। ব্ৰাহ্মণবাড়িয়ার জেলাশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খানের উদ্ধৃতি দিয়ে ঢাকা ট্ৰিবিউন এখবর ছেপেছে।

খান বলেছেন,লোকো মাস্টারর্স সিগন্যাল অমান্য করার জন্যই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনার কারণ তদন্ত করতে তিনটি পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। রেল মন্ত্ৰকের সচিব মফজ্জল হুসেনের উদ্ধৃতি দিয়ে রিপোর্টে একথা জানানো হয়। ডেইলি স্টার-এর রিপোর্টে বলা হয়েছে উদয়ন এক্সপ্ৰেস আখাউড়া রেলওয়ে জংশনের কাছে ট্ৰ্যাক পাল্টানোর সময় দুটো ট্ৰেনের মধ্যে মুখোমুখি ধাক্কা লাগে। দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিচয় এখন অবধি জানা যায়নি। আখাউড়া রেলওয়ে থানার ওসি শ্যামল কান্তি দাস বলেন,দুর্ঘটনা স্থলেই ১২ জন যাত্ৰীর মৃত্যু হয়েছে। পরে গুরুতর আহত তিন জন মারা যান বিভিন্ন হাসপাতালে।

দুর্ঘটনাস্থলে উদ্ধার অভিযান চলছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কারণ ট্ৰেনের ভাঙা কোচের মধ্যে বহু মানুষ এখনও আটকে আছেন-জানান তিনি।

এই দুর্ঘটনার জন্য ঢাকা-চট্টগ্ৰাম,ঢাকা-নোয়াখালি এবং চট্টগ্ৰাম-সিলেটের মধ্যে ট্ৰেন সেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। উদ্ধার ও ত্ৰাণ সাহা্য্যের জন্য আখাউড়া ও লাকসাম রেল জংশন থেকে দুটো রিলিফ ট্ৰেন অকুস্থলে ছুটে গিয়েছে।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ প্ৰবীণার অর্থ নিতে অস্বীকার করে মানবিকতা দেখাল সশস্ত্ৰ ডাকাত

অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Wild Jumbo in Goalpara which claimed 5 Human Lives, Tranquilized