ইন্টারন্যাশনাল

প্ৰবীণার অর্থ নিতে অস্বীকার করে মানবিকতা দেখাল সশস্ত্ৰ ডাকাত

সশস্ত্ৰ ডাকাত

 

অস্ত্ৰসজ্জিত দুই ডাকাত ব্ৰাজিলের একটি মেডিক্যাল স্টোরে হানা দেয়। মাথায় হেলমেট পরা ডাকাতদ্বয় ওই স্টোরে ঢুকে স্টাফদের হুমকি দেয় নগদ অর্থ তাদের হাতে তুলে দিতে। ওই সময় একজন বয়স্ক মহিলা খদ্দের এসেছিলেন স্টোরে। দুই ডাকাতের মধ্যে একজন বৃদ্ধা মহিলার কাছ থেকে অর্থ নিতে অস্বীকার করে এবং উল্টে মহিলার কপালে চুমু দিয়ে ওই স্থান থেকে কেটে পড়ে। মেডিক্যাল স্টোরের সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ে এই দৃশ্য,যা পরে ভাইরাল হয়ে যায়।

ফুটেজে দেখা গেছে,এক ডাকাত যখন মহিলার সঙ্গে কথা বলছিল তখন অন্য ডাকাতটি স্টোর রেজিস্টারের কাছ থেকে নগদ অর্থ তোলায় ব্যস্ত ছিল। স্টোরের একজন কর্মী মাথার পেছনে হাত নিয়ে মেঝের ওপর দাঁড়িয়েছিল নির্বাক হয়ে। বৃদ্ধা মহিলা ডাকাতের মুখোমুখি হয়ে ভয়াতুর কণ্ঠে কথা বললে সশস্ত্ৰ ডাকাতটি তাঁর কাঁধে হাত রেখে তাকে শান্ত করার চেষ্টা করে। এরপরই ডাকাতটি তাঁর কপালে চুমু দেয়। ব্ৰাজিলের আমারান্তে শহরে মঙ্গলবার এই ঘটনা ঘটে।

স্টোরের মালিক স্যামুয়েল আলমেইদা ব্ৰাজিলিয়ান মিডিয়া আউটলেট জি-১-এর সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন,ওই দুই ডাকাত স্টোরে ঢুকে ক্যাশ রেজিস্টারে থাকা সমস্ত নগদ অর্থ তাদের হাতে তুলে দেওয়ার নির্দেশ দেয়। ওই সময় প্ৰবীণা মহিলা খদ্দেরটি এক ডাকাতের মুখোমুখি হয়ে ডাকাতটি তার কাছে থাকা অর্থ নিয়ে নিতে বলেন। কিন্তু পরিবর্তে ‘ডাকাতটি মহিলার মাথায় চুমু খেয়ে বলে না,ম্যাম আপনাকে আমি নিঃস্ব করতে পারবো না। আপনার অর্থের প্ৰয়োজন নেই আমার’।

স্থানীয় রিপোর্ট অনুসারে ওই দিন ডাকাতদ্বয় পালাবার আগে নগদ ২৪০ ডলার এবং অন্যান্য কিছু সামগ্ৰী নিয়ে যায়। দুই ডাকাত এখনও ফেরার।

 

অন্যান্য খবরের জন্য পড়ুনঃ ভারতের প্ৰথম দৃষ্টিশক্তিহীন মহিলা আইএএস তিরুবনন্তপুরমের সাব-কালেক্টরের দায়িত্বে

 অধিক খবরের জন্য ভিডিও দেখুন: Redmi Note 7 explodes in Tinsukia, None injured